করোনা-আক্রান্ত অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে নরেন্দ্র মোদীর নয়া দাওয়াই

ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাস সতর্কতায় বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। শুরুতেই তিনি বলেন, মানব সভ্যতা এখন সংকটে। কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে গোটা বিশ্ব। একই সঙ্গে এই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণের জেরে অর্থনীতির সংকট কাটাতেও বিশেষ টাস্ক ফোর্স গঠনের কথা জানান।

দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সীমান্ত সিল করে দেওয়া এবং বৈদেশিক পণ্য আমদানিতে নিয়ন্ত্রণের জেরে দেশে গুজব ছড়িয়েছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর আকাল দেখা দিতে পারে বলেও গুজব রটেছে দেশের প্রায় সর্বত্র। এমন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য মোদী বলেন, “নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর জোগানে সর্বদা নজর রাখছে সরকার। আতঙ্কে বেশি কিছু মজুতের কোনো দরকার নেই”।

করোনা-আতঙ্ক দেশের অর্থনীতিকে বড়োসড়ো সংকটের মুখে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। গত কয়েক সপ্তাহে এ দেশের শেয়ার বাজার থেকে কোটি কোটি টাকার বিদেশি বিনিয়োগ কার্যত উবে গিয়েছে। শেয়ার বাজারের অস্থির পরিস্থিতির সঙ্গেই নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর বাজার থেকে ‘কালোবাজারি’র খবর পাওয়া যাচ্ছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের বেআইনি মজুতের জেরে মূল্যবৃদ্ধির শিকার হতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। একই সঙ্গে মার খাচ্ছে দেশের পর্যটন শিল্প থেকে বিমান পরিবহণও।

নিজের ভাষণে প্রধানমন্ত্রী এ দিন স্বীকার করেন নেন, “এমন পরিস্থিতিতে এই মহামারীর প্রভাব সামগ্রিক অর্থনীতিতেও পড়তে বাধ্য”। তিনি জানান, “পরিস্থিতি নজরে রেখে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর নেতৃত্ব একটি করোনাভাইরাস অবস্থা মোকাবিলায় একটি ইকনোমিক রেসপন্স টাস্ক ফোর্স গঠন করছে। এই টাস্ক ফোর্স নিশ্চিত করবে, আর্থিক অবনতি মোকালবিলা করার জন্য কোন ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব”।

আরও পড়ুন: ২২ মার্চ ‘জনতা কারফিউ’ ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী

তবে করোনাভাইরাসের জেরে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতির পুনরুদ্ধারে ঠিক কী ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হবে, এ দিন সে বিষয়ে বিশদে কিছু বলেননি প্রধানমন্ত্রী। ইতিমধ্যে আমেরিকা-সহ ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশ এহেন পরিস্থিতিতে ব্যবসা-বাণিজ্যের হাল ধরে রাখতে কর লাঘবের পথে হেঁটেছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.