Currency
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: ক্ষুদ্র-মাঝারি শিল্পগুলি এবং অন্যান্য ক্ষেত্রগুলিকে কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে ৬.৪৫ লক্ষ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলি। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণের (Nirmala Sitharaman) অফিস থেকে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়।

অর্থমন্ত্রকের টুইটে জানানো হয়, গত ১ মার্চ থেকে ১৫ মে পর্যন্ত ক্ষুদ্র-মাঝারি শিল্প (MSME), খুচরো বিক্রেতা, কৃষক এবং কর্পোরেটদের হাতে ৫৪.৯৬ লক্ষ অ্যাকাউন্টে এই ‌ঋণ বণ্টন করেছে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কগুলি। ৮ মে-র হিসাবে অনুমোদিত ৫.৯৫ লক্ষ কোটি টাকার তুলনায় এটি উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি।

Loading videos...

একই সঙ্গে জানানো হয়েছে, জরুরিকালীন ধার এবং কার্যকরী মূলধন হিসাবে গত ২০ মার্চ থেকে ১৫ মে পর্যন্ত ১.০৩ লক্ষ টাকা দেওয়া হয়েছে। এটি ৮ মে পর্যন্ত অনুমোদিত ৬৫,৮৭৯ কোটি টাকার তুলনায় উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি।

সম্প্রতি কোভিড-১৯ (Covid-19) পরিস্থিতি মোকাবিলায় পাঁচ দিন ধরে ২০ লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। এর পরই এই ঋণ সম্পর্কিত তথ্যগুলি প্রকাশ্যে নিয়ে আসা হয়।

যদিও কেন্দ্রের দাবি মতো জিডিপির প্রায় ১০ শতাংশ বরাদ্দ করা হলেও অর্থনীতিবিদ এবং বিরোধী রাজনৈতিক নেতৃত্ব প্যাকেজের যথার্থতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। দীর্ঘমেয়াদি লকডাউনের জেরে সংকটে পড়া অর্থনীতির বিভিন্ন ক্ষেত্রগুলিতে নগদ জোগানের অভাব রয়েছে। তাৎক্ষণিক কোনো পদক্ষেপ না থাকার খামতির অভিযোগও তুলেছেন।

আরও পড়ুন: লকডাউনেও কর্মীদের বেতন দেওয়া সংক্রান্ত আদেশনামা তুলে নিল কেন্দ্র

এমনকী রয়টার্সের একটি প্রতিবেদনেও দাবি করা হয়েছে, ভারত সরকারের ঘোষিত আর্থিক প্যাকেজ বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য পর্যাপ্ত নয়। আন্তর্জাতিক রেটিং এজেন্সিগুলির নেতিবাচক রিপোর্টের দিকে তাকিয়েই প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে ওয়াকিবহাল মহল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.