হাওয়া খারাপ! ফের জিডিপির লক্ষ্যমাত্রা কমাল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

0
RBI
আরবিআই। প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: গত ৩ ডিসেম্বর থেকে তিন দিনের মুদ্রানীতি পর্যালোচনা বৈঠকে বসেছিল আরবিআই। ওই বৈঠকের শেষে বৃহস্পতিবার সুদের হার অপরিবর্তিত রাখার কথা ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। একই সঙ্গে জানানো হয়, জিডিপির লক্ষ্যমাত্রাও হ্রাস করা হচ্ছে।

গভর্নর শক্তিকান্ত দাসের নেতৃত্বাধীন আরবিআইয়ের অর্থনৈতিক নীতি কমিটি (এমপিসি) এ দিন ২০১৯-২০ অর্থবর্ষের পঞ্চম বৈঠকের পর ঘোষণা করে, রেপো রেট অপরিবর্তিত রাখা হবে। এর আগে টানা পাঁচবার রেপো রেট কমিয়েছিল আরবিআই। তবে এ দিন জানানো হয়, ৫.১৫ শতাংশেই স্থির থাকছে রেপো রেট।

অর্থনৈতিক বিশ্লেষকরা ধারণা করেছিলেন, জিডিপি বৃদ্ধির মন্দদশায় ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থায় বাড়তি অক্সিজেন জোগাতে রেপো রেট কমাতে পারে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। তবে ন’বছরের সর্বনিম্ন ৫.১৫ শতাংশেই অনড় থাকল আরবিআই।

কিন্তু জিডিপির পূর্বাভাসে পিছু হঠতে বাধ্য হয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। শেষ ত্রৈমাসিকে জিডিপি বৃদ্ধির হার ছ’বছরের সর্বনিম্ন স্তরে এসে ঠেকেছে। গত সপ্তাহে প্রকাশিত সরকারি তথ্যে প্রকাশিত হয়েছে, জুলাই-সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে ভারতের গ্রস ডোমেস্টিক প্রডাক্ট (জিডিপি) বৃদ্ধি ৪.৫ শতাংশে এসে ঠেকেছে। 

স্বাভাবিক ভাবেই চলতি অর্থবর্ষের জন্য নির্ধারিত ৬.১ শতাংশ জিডিপি বৃদ্ধির পূর্বাভাস থেকে কিছুটা অবনমন ঘটেছে। এ দিন আরবিআই জানায়, জিডিপি বৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা হিসাবে ৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে। একাধিক বার রেপো রেট কমিয়েও অর্থনৈতিক মন্দায় তেমন কোনো পরিবর্তনা না আসাতেই সম্ভবত রেপো রেট অপরিবর্তিত রেখে জিডিপির লক্ষ্যমাত্রায় অবনমন ঘটাল আরবিআই!

একই সঙ্গে বৈঠকে আশা প্রকাশ করা হয়, আগামী কয়েকটি টার্মে মুদ্রাস্ফীতি অব্যাহত থাকলেও আগামী ২০২০-২১ অর্থবর্ষে এই পরিস্থিতির সমূহ বদল ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.