তলানিতে জিডিপি বৃদ্ধি, ফের নমনীয় হতে পারে আরবিআই

0
RBI
ফাইল ছবি

ওয়েবডেস্ক: ব্যাঙ্কার ও বিশেষজ্ঞদের ধারণা, অর্থনৈতিক বৃদ্ধির সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টি করতে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া (আরবিআই) আগামী ৫ ডিসেম্বর সরাসরি ষষ্ঠবারের জন্য সুদের হার কমিয়ে দিতে পারে।

গত ডিসেম্বরে শক্তিকান্ত দাস আরবিআইয়ের গভর্নর হিসাবে দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে বহু সদস্যের মুদ্রা নীতি কমিটি (এমপিসি) টানা পাঁচবার সুদের হার হ্রাস করেছে।

Shaktikanta Das
শক্তিকান্ত দাস

২০১৯ সালে এখনও পর্যন্ত পাঁচবারে সুদের হার মোট ১৩৫ বেসিস পয়েন্টের কমিয়ে আনা হয়েছে। অর্থনৈতিক বৃদ্ধির গতি হ্রাস পাওয়ার আশঙ্কা এবং আর্থিক ব্যবস্থায় সরলীকরণ বাড়াতে এই চেষ্টা চালাচ্ছে আরবিআই।

জুলাই-সেপ্টেম্বরে জিডিপির বৃদ্ধি দ্রুতগতিতে ৪.৫ শতাংশে এসে ঠেকেছে। উৎপাদন ক্ষেত্রে যা কমে দাঁড়িয়েছে মাত্রা ১.০ শতাংশ। জিডিপি বৃদ্ধির গতি এপ্রিল-জুনের থেকেও .৫ শতাংশ কমেছে। ওই ত্রৈমাসিকে জিডিপি বৃদ্ধির হার ছিল ৫ শতাংশ হার এবং গত ২০১৮ সালের জুলাই-সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে ৭ শতাংশে পৌঁছেছিল জিডিপি বৃদ্ধি।

৩ ডিসেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে আরবিআইয়ের তিন দিনের মুদ্রানীতি পর্যালোচনা। ওই বৈঠকের শেষে সুদের হার হ্রাস করা হতে পারে বলেই ধারণা করছেন ব্যাঙ্কার এবং বিশেষজ্ঞরা। একটি মহলের যুক্তি, অর্থনীতিতে অতিরিক্ত সক্ষমতা থাকায় মুদ্রাস্ফীতি কম রয়েছে এবং তা অব্যাহত থাকবে বলে আশা করা হচ্ছে।

[ আরও পড়ুন দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে আরও কমল জিডিপি বৃদ্ধি! ]

তাঁদের মতে, আরবিআই গত মাসে মুদ্রাস্ফীতিতে সাম্প্রতিক উত্থানের অতীতের দিকে তাকিয়ে দেখতে পাবে। মূলত পেঁয়াজের মতো সবজির ক্রমশ বেড়ে চলা দাম এর একটা নমুনা। তবে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল মূল মুদ্রাস্ফীতিতে সামান্য হলেও একটা পরিবর্তন দেখা গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.