সীমা ছাড়াচ্ছে খুচরো মূল্যবৃদ্ধি, অতিরিক্ত বৈঠকে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের মুদ্রানীতি কমিটি

0

বেঙ্গালুরু: পর পর তিনটি ত্রৈমাসিকে খুচরো বাজারে মূল্যবৃদ্ধি ৬ শতাংশের উপরে। কমার তো কোনো ইঙ্গিত নেই, বরং ক্রমশই তা বেড়ে চলেছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় ৩ নভেম্বর বিশেষ বৈঠকে বসছে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের (RBI) মুদ্রানীতি কমিটি (MPC)।

বৃহস্পতিবার একটি বিবৃতিতে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক জানিয়েছে, “ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক আইনের ৪৫জেডএন ধারার অধীনে … ৩ নভেম্বর একটি অতিরিক্ত বৈঠকে বসছে মুদ্রানীতি কমিটি”। বলে রাখা ভালো, আরবিআই আইনের ধারা ৪৫ জেডএন মূল্যস্ফীতি লক্ষ্যমাত্রা বজায় রাখার ব্যর্থতার সঙ্গে সম্পর্কিত।

৬ শতাংশের উপর খুচরো মুল্যস্ফীতি

টানা ন’মাস বা তিন ত্রৈমাসিক ধরে মুদ্রাস্ফীতি ৬ শতাংশের উচ্চ সহনশীলতার সীমার (রিজার্ভ ব্যাঙ্কের বেঁধে দেওয়া সীমা) উপরে রয়েছে। জাতীয় পরিসংখ্যান বিভাগের প্রকাশিত সাম্প্রতিক তথ্য জানাচ্ছে, খুচরো বাজারে খাদ্য-সহ বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়ার কারণেই মূল্যবৃদ্ধি সূচক নতুন মাত্রা পেয়েছে।

ভারতের খুচরো মূল্যস্ফীতি এক বছর আগের তুলনায় সেপ্টেম্বরে পৌঁছে গেল ৭.৪১ শতাংশে। যা গত এপ্রিলের পর থেকে সর্বোচ্চ। উচ্চ হারে খাদ্য ও জ্বালানি খরচের জেরে আরবিআই-এর সহনশীলতা মাত্রা ২-৬ শতাংশের উপর দিয়ে যাচ্ছে খুচরো মুল্যস্ফীতি। ন্যাশনাল স্ট্যাটিস্টিক্স অফিসের (NSO) প্রকাশিত তথ্যে দেখা গিয়েছে, সেপ্টেম্বরে ভোক্তা মূল্য সূচক-ভিত্তিক মূল্যস্ফীতি (CPI) এক বছর আগের তুলনায় ৭.৪১ শতাংশে বেড়েছে, যা আগস্টে ছিল ৭ শতাংশ।

সিপিআই বৃদ্ধির অর্ধেক অংশ জুড়ে রয়েছে খাদ্যদ্রব্যের ঊর্ধ্বমূখী মূল্য। গম, চাল এবং ডালের মতো প্রয়োজনীয় সামগ্রীর দাম বেড়েছে। যা ইতিমধ্যেই বিস্তৃত ভাবে গৃহস্থালির বাজেট আরও চাপের সৃষ্টি করেছে। অন্য মতে, শস্য এবং শাকসবজির মতো মৌলিক পণ্যের দাম, গত দু’বছরে বদলে যাওয়া বৃষ্টিপাতের ধরন এবং ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণের কারণে সরবরাহের ধাক্কার কারণে বেড়েছে।

আবারও কি বাড়বে সুদের হার?

খুচরো মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আরও কঠোর হতে পারে আরবিআই। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ককে আরও আক্রমণাত্মক ভাবে কাজ করতে হবে এবং পশ্চিমের প্রধান কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্কগুলির নীতির পথ দেখাতে হবে। মন্দা-সহ যে কোনো মূল্যে মুদ্রাস্ফীতির বিরুদ্ধে লড়াই করছে বিশ্বের অন্যান্য কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। একই সঙ্গে রয়েছে ডলারের নিরিখে টাকার দামের লাগাতার পতন।

মুদ্রানীতি তৈরি করতে প্রধানত খুচরো মুদ্রাস্ফীতির দিকে নজর দেয় আরবিআই। খুচরো বাজারে গত কয়েক মাস ধরে নিরবচ্ছিন্ন ভাবে দাম বাড়ছে পণ্যের। সেই মূল্যবৃদ্ধিতে রাশ টানতেই রেপোরেট বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক। চলতি বছরের মে মাস থেকেই রিজার্ভ ব্যাঙ্কের মুদ্রানীতি কমিটি রেপো রেট বৃদ্ধি করছে। তার পর থেকে সবমিলিয়ে ১৯০ বিপিএস রেপো রেট বাড়িয়েছে আরবিআই। মূল্যবৃদ্ধি, আর্থিক মন্দার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতেই শেষবার, গত ৩০ সেপ্টেম্বর রেপো রেট ৫০ বেসিস বাড়ানো হয়েছে। এর ফলে আরবিআইয়ের রেপো রেট বেড়ে ৫.৯০ শতাংশে পৌঁছেছে।

আরও পড়ুন: ঘুচল বৈষম্য, এ বার থেকে সমান ম্যাচ ফি পাবেন পুরুষ ও মহিলা ক্রিকেটাররা

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন