Stock Market

খবর অনলাইন ডেস্ক: চওড়া পতনের মুখোমুখি হল বিএসই সেনসেক্স এবং নিফটি ফিফটি। শুক্রবারের সপ্তাহের শেষ কেনাবেচার দিনে স্টক বিক্রির হিড়িকে প্রায় পাঁচ লক্ষ কোটি টাকা লোকসান হল বিনিয়োগকারীদের।

এ দিন বেলা দেড়টা নাগাদ সেনসেক্সে ৩.২৯ শতাংশ এবং নিফটিতে ৩.২৬ শতাংশের চওড়া পতন ধরা পড়ে। এক ধাক্কায় ৫১ হাজারের উপরে থাকা সেনসেক্স পড়ে যায় ৪৯,১৯১ পয়েন্টে। অন্যদিকে ১৫ হাজারের উপরে থাকা নিফটি নেমে আসে ১৪,৫৫৪ পয়েন্টে।

Loading videos...

বেলা গড়াতে শুরু করলে কিছুটা পুনরুদ্ধারে মন দেয় ভারতীয় শেয়ার বাজারের দুই সূচক। কিন্তু ততক্ষণে যা হওয়ার হয়ে গিয়েছে। বৃহস্পতিবার বন্ধ হওয়ার সময় ২০১ লক্ষ কোটি টাকার বাজার মূলধনের নিরিখে বিনিয়োগকারীদের লোকসান ততক্ষণে পাঁচ লক্ষ কোটি টাকায় দাঁড়িয়েছে।

যদিও আরও কিছু অপেক্ষা করে ছিল এ দিন বাজার বন্ধ হওয়ার মিনিট পাঁচেক আগে পর্যন্ত। ২,১৪৮ পয়েন্ট নেমে সেনসেক্স তখন ধুঁকছে ৪৯ হাজারের নীচে। শেষমেশ ৪৯,০৯৯ পয়েন্টে বন্ধ হলেও এ দিনের রক্তক্ষরণ বিনিয়োগকারীদের কয়েক লক্ষ কোটি টাকা লোকসানের মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিল। নিফটিও এক সময় ১৪,৪৬৪ পয়েন্টে নেমে গেল।

বুধবার সরকার ঘোষণা করে, এ বার সরকারি কাজে বেসরকারি ব্যাঙ্কের অংশগ্রহণের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে। সরকারের এই ঘোষণায় অক্সিজেন পায় নিফটি ব্যাঙ্ক। কিন্তু আজ স্টক বিক্রির ধাক্কায় দেড় হাজার পয়েন্টের বেশি পতনের মুখোমুখি হয় নিফটি ব্যাঙ্ক।

বিশ্লেষকদের মতে, বিশ্ববাজারে তীব্র মন্দার চাপ নিতে পারেনি ভারতের শেয়ার বাজার। আগের দিন আমেরিকার ওয়াল স্ট্রিটে পতন ঘটেছে শেয়ার সূচকের। এ দিকে শুক্রবার বাজার বন্ধ হওয়ার পরেই জিডিপি সংক্রান্ত পরিসংখ্যান প্রকাশ করার কথা রয়েছে। ভারতের আর্থিক বৃদ্ধি নিয়ে আন্তর্জাতিক সমীক্ষক সংস্থা মুডিজ সুখবর শোনালেও দোলাচলে রয়েছেন বিনিয়োগকারীরা।

আরও পড়তে পারেন: সরকারি কাজে বেসরকারি ব্যাঙ্কের অংশগ্রহণ নিয়ে বড়োসড়ো সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.