খবর অনলাইন ডেস্ক: বছরের প্রায় শুরু থেকেই বিশ্ব জুড়ে করোনাভাইরাস অতিমারির আতঙ্ক। যার জোরালো প্রভাব পড়ল অর্থনীতিতেও। তবে করোনা মোকাবিলায় আর্থিক প্যাকেজ, সংক্রমণের পরিসংখ্যানের ওঠানামা এবং ভ্যাকসিন নিয়ে আশাব্যঞ্জক খবরে ভর করেই ফের ঘুরে দাঁড়িয়েছে অর্থনীতি। ও দিকে ভারতীয় শেয়ার বাজারের ৩০ স্টকের সূচকও কিন্তু নিজের মতোই ভেলকি দেখিয়েছে।

এক নজরে কয়েকটি চমকপ্রদ তথ্য

*১৩ জানুয়ারি সকালে সেনসেক্স পৌঁছে যায় ৪১,৮৯৩.৪১ পয়েন্টে। এটা সেনসেক্সের ক্ষেত্রে সে সময় পর্যন্ত সর্বকালীন রেকর্ড।

Loading videos...

*করোনাভাইরাস অতিমারির জেরে ২ মার্চ থেকে বড়োসড়ো পতন শুরু সেনসেক্স।

*১২ মার্চ বাজার খোলার কিছুক্ষণের মধ্যেই ১,৮০০ পয়েন্টের বেশি পড়ে যায় সেনসেক্সের (Sensex) সূচক। বর্তমানে তার সূচক ১,৮২১.২৭ কমে এসে দাঁড়িয়েছে ৩৩,৮৭৬.১৩ পয়েন্টে।

*৪১ হাজারের উপরে থাকা সেনসেক্স মাত্র কয়েক দিনের চোটে ২৩ মার্চ নিমজ্জিত হয় ২৫ হাজারের ঘরে।

*দেশব্যাপী লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর সঙ্গেই গত ৪ মে সেনসেক্সে পতন ২০০০ পয়েন্ট।

*৩১ আগস্ট ফের ৪০ হাজারের উপরে ভারতীয় শেয়ার বাজারের অন্যতম সূচক সেনসেক্স।

*৫৬০ পয়েন্টের (১.৪০ শতাংশ) উপর ঝুলিতে ভরে 8 অক্টোবর সেনসেক্স পৌঁছালো ৪০,৫৫০-র উপরে।

*১৪ নভেম্বর ধনতেরাসের আবহে সে সময় পর্যন্ত সর্বকালীন রেকর্ড উচ্চতা ছুঁয়ে ফেলল সেনসেক্স, পৌঁছালো ৪৩,৫২২ পয়েন্টে।

*৩১ ডিসেম্বর সর্বকালীন রেকর্ড উচ্চতা ৪৭,৮৯৬ পয়েন্টে পাড়ি দিল সেনসেক্স।

শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ উপচে পড়ছে

এই এক বছরে সেনসেক্সে বৃদ্ধি ঘটেছে ১৫.৭৫ শতাংশ। অন্যদিকে আর এক সূচক নিফটির বৃদ্ধি ১৪.৯০ শতাংশ।

২০২০ সালে বিনিয়োগকারীদের সম্পদের পরিমাণ প্রায় ৩২.৫ লক্ষ কোটি টাকা বেড়েছে। বিএসই-তালিকাভুক্ত সমস্ত শেয়ারের বাজার মূলধন ২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর বাজার বন্ধের সময় দাঁড়িয়েছে ১৮৮ লক্ষ কোটি টাকা, যা আগের বছর ছিল ১৫৫.৫৩ লক্ষ কোটি টাকা।

আরও পড়তে পারেন: এটিএম চার্জ বেড়েছে, টাকা তোলার আগে দেখে নিন ব্যালেন্স

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.