৪৩ বছর আগে কেনা শেয়ারের দাম এখন ১,৪৪৮ কোটি! বিপুল পরিমাণ টাকা আদায়ের জন্য লড়াই করছেন বিনিয়োগকারী

0

নয়াদিল্লি: প্রায় চার দশক আগে একটি সংস্থায় বিনিয়োগ করেছিলেন এখন ৭৪ বছর বয়সি এক ব্যক্তি। সেই শেয়ারের দাম এখন বেড়ে হয়েছে ১,৪০০ কোটি টাকারও বেশি। সহজে না পেয়ে নিজেদের অংশীদারিত্ব আদায়ের জন্য লড়াই চালাচ্ছেন কেরলের কোচির বাসিন্দা বাবু জর্জ ভালাভির পরিবার।

দ্য নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, বাবু জর্জ ভালাভি (Babu George Valavi) এবং চার আত্মীয়ের শেযারের মূল্য কমপক্ষে ১,৪৪৮ কোটি টাকা হওয়া উচিত। কিন্তু সংস্থা এই বিপুল পরিমাণ টাকা দিতে অস্বীকার করায় লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন ভালাভির পরিবার।

১৯৭৮ সালে বাবু এবং তাঁর চার আত্মীয় উদয়পুর-ভিত্তিক মেওয়াড় অয়েল অ্যান্ড জেনারেল মিলস লিমিটেডের (Mewar Oil and General Mills Limited) ২.৮ শতাংশ শেয়ার কিনেছিলেন। কোম্পানিটি তখন তালিকাভুক্ত ছিল না।

এর পর কেটে গিয়েছে বেশ কয়েক দশক। বছরের পর বছর ধরে সংস্থাটির বহর বেড়েছে। প্রোমোটাররা এর নাম পরিবর্তন করে পিআই ইন্ডাস্ট্রিজ (PI Industries) রেখেছেন। এখন এটা শুধুমাত্র শেয়ার বাজারে তালিকাভুক্ত নয় বরং প্রায় ৫০,০০০ কোটি টাকার বাজার মূলধনের সঙ্গে ভালো পারফর্ম-ও করছে।

সংস্থার মূলধন বাড়ার সঙ্গেই তাতে বাবুর বিনিয়োগের মূল্যও সমানতালে বেড়েছে। মঙ্গলবার বন্ধের সময় বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জে সংস্থার প্রতিটি শেয়ার ৩,৩১৬ টাকায় লেনদেন হয়েছে। সংস্থায় বাবুর অংশীদারিত্ব ২.৮ শতাংশ ধরে নিলে অঙ্কের হিসেবে তাঁর হাতে থাকার কথা ৪২.৪৮ লক্ষ শেয়ার।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, ওই সংস্থায় নিজের বিনিয়োগের কথা কার্যত ভুলেই গিয়েছিলেন বাবু। ২০১৫ সালে কিছু পুরনো কাগজপত্র হাতে পেয়ে বিষয়টি নিয়ে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেন তাঁর ছেলে। সংস্থার রেজিস্ট্রারের সঙ্গে যোগাযোগ করলে ডিম্যাট অ্যাকাউন্টের ফিজিক্যাল শেয়ার সার্টিফিকেট জমা দিতে বলে পিআই ইন্ডাস্ট্রিজ। কিন্তু সে সব করার পর তাঁদের বলা হয় ওই শেয়ার ১৯৮৯ সালে অন্য ব্যক্তিদের হস্তান্তরিত করে দেওয়া হয়েছে।

বাবুর ছেলে জর্জ কে ভালাভি বলেন, “এটা জানতে পেরে আমরা আকাশ থেকে পড়ি। এটা অবিশ্বাস্য। শেয়ারের আসল নথি আমাদের কাছে, অথচ তা অন্যদের কাছে কী ভাবে বিক্রি করে দেওয়া হল”!

সংস্থার কাছ থেকে এ ধরনের উত্তর পেয়ে শেয়ার বাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ বোর্ড অব ইন্ডিয়ার (সেবি) কাছে গিয়েছিল বাবুর পরিবার। তবে সেবির প্রশ্নের উত্তরে, পিআই ইন্ডাস্ট্রিজ ফের জানায়, শেয়ারগুলি ১৯৮৯ সালে অন্য ব্যক্তিদের কাছে স্থানান্তরিত হয়েছিল।

তবে সেবি এই মামলার তদন্ত এখনও বন্ধ করেনি। এই ঘটনার সঙ্গে সংস্থার উচ্চপদস্থ কর্তাদের জালিয়াতি-যোগ রয়েছে কি না, সেটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে বাবুর পরিবার সূত্রে।

আজকের উল্লেখযোগ্য আরও কিছু খবর পড়তে পারেন এখানে:

‘গোরুর দুধে সোনা’র কথা কেন বলেছিলেন দিলীপ ঘোষ, ব্যাখ্যা দিলেন বিজেপির নতুন রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার

বড়ো ধাক্কা কংগ্রেসে! তৃণমূলে যোগ দেওয়ার জল্পনা বাড়িয়ে কংগ্রেস ছাড়লেন মইনুল হক

ইডি-র সমন মামলায় অভিষেক-রুজিরার রক্ষাকবচের আর্জি ফেরাল দিল্লি হাইকোর্ট

‘অথ শ্রী মহাভারত কথা…’, মুসলিম বৃদ্ধের ভাইরাল ভিডিও দেখে প্রাক্তন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার বললেন, একঘেয়েমি হার মানছে!

জেরা চলাকালীন ত্রিপুরার থানায় আচমকা অসুস্থ কুণাল ঘোষ, ভরতি হাসপাতালে

ভবানীপুরে প্রার্থী না দিলে ভালো করত বিজেপি, মত রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন