Connect with us

শিল্প-বাণিজ্য

চিন-বিরোধী আবেগে স্যামসাং-এর বৃহস্পতি তুঙ্গে!

এপ্রিল-জুন ত্রৈমাসিকে স্যামসাং দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসতেই পারে!

Published

on

ওয়েবডেস্ক: চিনের ক্ষতি তো দক্ষিণ কোরিয়ার লাভ! অন্তত ভারতের স্মার্টফোন বাজারের মতিগতি দেখে তেমনটাই মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ দেশের স্মার্টফোন বাজারে স্যামসাং (Samsung) সম্ভবত ভিভোকে নিজের জায়গা থেকে সরিয়ে দিতে চলেছে। ফলে ফের দু’নম্বর স্থান দখল করতে চলেছে স্যামসাং। মূলত চিন-বিরোধী আবেগের জেরেই জুন ত্রৈমাসিকে সম্ভব না হলেও আগামী সেপ্টেম্বরের শেষ নাগাদ ফের স্বমহিমায় ফিরতে চলেছে স্যামসংয়ের বিক্রিবাট্টা।

বাজার কী বলছে?

লকডাউনের কারণে টানা কয়েক মাস দোকান বন্ধ ছিল। অনলাইনে বিক্রি হওয়ার পর এখন দোকানগুলিও খুলছে। ফলে এত দিন জমে থাকা স্টক প্রায় নি:শেষ। বিক্রেতারা জানাচ্ছেন, হোক না চিনা ফোন, তবুও হু-হু করে বিকিয়েছে ওপো, ভিভো, রিয়েলমি, শাওমি অথবা ওয়ান প্লাস। কিন্তু এর পর?

Loading videos...

জোগানে ভাটা পড়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে চাহিদা থাকলেও চিনা মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলি জোগান দেবেন কি ভাবে, সেটাই দেখার।

সেই শূন্যস্থান পূরণ করতে উঠেপড়ে লাগতে পারে স্যামসাং। বাজারের পরিসংখ্যান বলছে, এখনই এই স্মার্টফোনের বিক্রি আগের থেকে বেড়েছে। সে দিক তাকিয়েই বিশেষজ্ঞদের দাবি, এপ্রিল-জুন ত্রৈমাসিকে স্যামসাং দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসতেই পারে!

বাজারে এখন দখলদারি

স্মার্টফোনের বাজারে ক্রেতার পছন্দের তালিকার শীর্ষে রয়েছে শাওমি। দুইয়ে ভিভো, আর তিনে স্যামসাং।

একটি সমীক্ষক সংস্থার মতে, স্মার্টফোন বাজারে শাওমি (Xiaomi), ভিভো (Vivo)এবং স্যামসাংয়ের অংশীদারিত্ব যথাক্রমে ৩০%, ১৭% এবং ১৬%।

এমনিতে ভারতের স্মার্টফোন বাজারে চিনা সংস্থাগুলি ৮১ শতাংশ জায়গা দখল করে রয়েছে। তার উপর অনলাইন প্ল্যাটফর্মের বিক্রিতে চিনা ফোনের বিক্রি আরও বেশি, ৮৫ শতাংশের বেশি (প্রথম ত্রৈমাসিকের হিসাব অনুযায়ী)। স্বাভাবিক ভাবেই অনলাইনে আরও বেশি করে আগ্রাসী হওয়ার প্রস্তুতি নিতে পারে স্যামসাং।

দক্ষিণ কোরিয়ায় স্যামসাং টাউন। ছবি: উইকিপিডিয়া থেকে

পরিস্থিতির দিকে নজর রেখে ১০ দিনের মেয়াদে স্যামসাং চারটি নতুন মডেল বাজারে নিয়ে এসেছে। যেগুলির দাম ১০-২০ হাজারের মধ্যে। বিক্রেতারা জানাচ্ছেন, বহুদিন আগে বাজারে আসা স্যামসাংয়ের মডেলগুলিও ভালোই বিকোচ্ছে।

ভিন্ন কারণ

লাদাখে ভারত-চিন সীমান্ত উত্তেজনার রেশ ধরে সরকারের চিনা বিনিয়োগ এবং পণ্য বর্জনের সিদ্ধান্তের বাইরেও চিনা স্মার্টফোনের বিক্রি কমার ভিন্ন কারণও রয়েছে।

একটি মহলের দাবি, একটা অংশ আবেগবশত চিনা স্মার্টফোনে (Smartphone) আগ্রহ না দেখালেও অন্য একটা বড়ো অংশ দাম এবং গুণমানের জন্য আকৃষ্ট। ফলে ওই অংশটি চিনা স্মার্টফোনের দিকেই যাবে। কিন্তু চিনা স্মার্টফোন অথবা যন্ত্রাংশের উৎপাদনে ভাটা পড়েছে। ফলে চাহিদা থাকলেও জোগান কী ভাবে অব্যাহত থাকবে, সেটাই দেখার।

অন্য দিকে স্যামসাং দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্থা হলেও চিনে বেশ কিছু সংস্থার সঙ্গে তাদের অংশীদারিত্ব রয়েছে। সংস্থার অংশীদারিত্ব এক শতাংশের নীচে নেমে যাওয়ার পরে গত বছর চিনে তার উৎপাদন প্রকল্প বন্ধ করে দিয়েছে স্যামসাং। তবে কিছু মূল নকশা প্রস্তুতকারকের সঙ্গে এখনও অংশীদারিত্ব ধরে রেখেছে।

শিল্প-বাণিজ্য

২৯ জানুয়ারি থেকে শুরু সংসদের প্রথম ‘কাগজবিহীন’ বাজেট অধিবেশন

স্বাধীনতার পর থেকে এই প্রথম সংসদের ‘কাগজবিহীন’ বাজেট অধিবেশন।

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: আগামী ২৯ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে সংসদের বাজেট অধিবেশন। ১ ফেব্রুয়ারি সকাল ১১টায় বাজেট পেশ করবেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। তবে করোনা মহামারির জেরে এ বারের বাজেট অধিবেশনে বদল হচ্ছে বেশ কয়েকটি ঐতিহ্যগত প্রথায়।

এর আগেই কেন্দ্রীয় সংসদ বিষয়কমন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশি জানিয়েছেন, সংসদের বাজেট অধিবেশন দু’টি পর্যায়ের হবে অধিবেশন। প্রথমটি হবে ২৯ জানুয়ারি থেকে ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। দ্বিতীয়টি হবে ৮ মার্চ থেকে ৮ এপ্রিল পর্যন্ত।

৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে সর্বদল বৈঠক। সেখানে উপস্থিত থাকবেন নির্মলা। এই অধিবেশনে সরকার সমস্ত রকমের আলোচনার জন্য প্রস্তুত।

Loading videos...

কাগজবিহীন বাজেট

তবে স্বাধীনতার পর থেকে এই প্রথম কোনো পেপারলেস বা কাগজবিহীন অধিবেশন হতে চলেছে। করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে হার্ড কপিগুলির কোনো প্রিন্ট করা হবে না।

প্রতিবছরই কেন্দ্রীয় বাজেট অর্থমন্ত্রকের নিজস্ব প্রেসে মুদ্রিত হয়। এই কাজের সঙ্গে মন্ত্রকের প্রায় শ’খানেক কর্মচারী জড়িত থাকেন। যাঁদের বাজেটের জন্য কাগজপত্র মুদ্রণ, সিল করা এবং বিতরণ করা পর্যন্ত প্রায় ১৫ দিনের জন্য একত্রে থাকতে হয়।

তবে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে সেই ঐতিহ্যে এ বার প্রথম বারের জন্য ছেদ পড়তে চলেছে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, এর পরিবর্তে বাজেটের সফট কপিগুলি ভাগ করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

এক নজরে এ বারের পরিবর্তন

*সূত্রের খবর অনুয়ায়ী, কেন্দ্রীয় বাজেট এবং অর্থনৈতিক সমীক্ষা-সহ বাজেটের যাবতীয় কাগজপত্র প্রিন্ট করা হবে না এবং সফট কপি সরবরাহ করা হবে।

*সংসদের সমস্ত সদস্যকে ওই সফট কপি দেওয়া হবে।

halwa ceremony
[হালুয়া তৈরিতে হাত লাগিয়েছেন তৎকালীন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম এবং অরুণ জেটলিরা। ফাইল ছবি]
[হালুয়া পরিবেশন করছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। ফাইল ছবি]

*কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ তৈরির সূচনায় হালুয়া অনুষ্ঠানের চল বেশ পুরনো। হালুয়া অনুষ্ঠানের মাধ্যমেই বাজেট পেশের মূলপর্বের কাজ শুরু হয়। করোনার জন্য এ বার সেটা হবে না।

আরও পড়তে পারেন: প্রথম দিন ৩ লক্ষ! টিকাকরণ কর্মসূচির সূচনা করতে পারেন নরেন্দ্র মোদী, রাজ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Continue Reading

শিল্প-বাণিজ্য

আয়কর বিভাগকে কালো টাকা হদিশ দিয়ে পাঁচ কোটি টাকা পর্যন্ত আয়ের সুযোগ

কোথায়, কী ভাবে আবেদন জানাবেন?

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: তথ্য প্রদানকারীদের জন্য নতুন একটি অনলাইন সুবিধা চালু করেছে আয়কর বিভাগ। যেখানে কালো টাকা, বেনামি লেনদেন, সম্পত্তি বা কর ফাঁকির মতো বিষয় সরাসরি সরকারকে জানানো যাবে। মঙ্গলবার কেন্দ্রের প্রত্যক্ষ কর বিভাগ বা সিবিডিটি নতুন এই সুবিধা চালু করেছে।

কোথায় জানাবেন?

সংস্থার ই-ফাইলিং পোর্টাল https://www.incometaxindiaefiling.gov.in-এ গিয়ে “কর ফাঁকি বা বেনামি সম্পত্তির তথ্য” জানানো যাবে।

কী ভাবে জানাবেন?

বলা হয়েছে, যাঁদের প্যান অথবা আধার নম্বর রয়েছে, তাঁরা যেমন অভিযোগ দায়ের করতে পারবেন, তেমনই যাঁদের কাছে এগুলি নেই তাঁরাও এই সুবিধা পাবেন। অর্থাৎ, প্রত্যেকেই নিজের অভিযোগ দায়ের করতে পারবেন এই অনলাইন প্ল্যাটফর্মে। ওটিপি -ভিত্তিক এই প্রক্রিয়ায় আয়কর আইন,১৯৬১-র অধীনে হিসেব বহির্ভূত টাকা মজুতের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো যাবে। একই সঙ্গে ভিন্ন ফরম্যাটে বেনামি লেনদেন সম্পর্কেও অভিযোগ জানানো সম্ভব।

Loading videos...

অভিযোগ দায়েরের পরে প্রতিটি অভিযোগের জন্য একটি নির্দিষ্ট নম্বর দেওয়া হবে। অভিযোগকারী ওয়েবলিঙ্কে নিজের অভিযোগের ভিত্তিতে সংস্থার পদক্ষেপের আপডেট সহজেই দেখে নিতে পারবেন।

আর্থিক পুরস্কারের ধরন

Currency

এই উদ্যোগেই অন্তর্ভুক্ত হয়েছে তথ্য প্রদানের জন্য পুরস্কার। বেনামি সম্পত্তির হদিশ দেওয়ার জন্য এক কোটি টাকা পর্যন্ত এবং কর ফাঁকি দেওয়া বিদেশে কালো টাকার হদিশ দিলে পাঁচ কোটি টাকা পর্যন্ত আর্থিক পুরস্কার জেতা যাবে বলে জানা গিয়েছে।

সিবিডিটি বলেছে, বেনামি লেনদেন এব সম্পত্তি সম্পর্কিত তথ্য জানানোর লক্ষ্যে সাধারণ মানুষকে উৎসাহিত করতেই এই সুবিধা চালু করা হয়েছে।

আরও পড়তে পারেন: ৪টি শ্রমবিধি কার্যকরে মরিয়া কেন্দ্র

Continue Reading

শিল্প-বাণিজ্য

৪টি শ্রমবিধি কার্যকরে মরিয়া কেন্দ্র

কৃষি আইন নিয়ে টানাপোড়েনর মধ্যেই শ্রমবিধি কার্যকরের প্রস্তুতি কেন্দ্রের!

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: সংসদের অধিবেশনে পাশ হওয়া শ্রমবিধি চলতি জানুয়ারি মাসের শেষের দিকেই কার্যকর হতে পারে। ট্রেড ইউনিয়নগুলির দাবি-দাওয়াকে অগ্রাহ্য করার অভিযোগ উঠলেও তড়িঘড়ি বিধিগুলি কার্যকরে মরিয়া কেন্দ্রীয় সরকার।

গত অক্টোবরে শ্রমমন্ত্রক বলেছিল যে, এপ্রিলের মধ্যে এই চারটি শ্রমবিধি কার্যকর করার লক্ষ্য রয়েছে। তবে মঙ্গলবার শ্রমসচিব অপূর্ব চন্দ্র বলেন, মন্ত্রক ৩১ জানুয়ারির মধ্যে চারটি শ্রমবিধি নিয়ে প্রস্তুত নিচ্ছে। তাঁর কথায়, “আইনের কার্যকর যে কোনো সময় হতে পারে … এটা এপ্রিলেরও আগেও হতে পারে”।

তিনি জানান, “মজুরি এবং শিল্প সম্পর্কিত বিধি প্রস্তুত রয়েছে। যথাযথ আলোচনার পরে নূন্যতম মজুরি নির্ধারণের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। ত্রিপাক্ষিক পরামর্শ প্রায় শেষ হয়ে গিয়েছে এবং পেশাগত সুরক্ষা এবং সামাজিক সুরক্ষা বিধির জন্য শীঘ্রই একটি বৈঠক হতে পারে”।

Loading videos...

পড়ে আছে চার শ্রমবিধি

ইন্ডাস্ট্রিয়াল রিলেশনস কোড ২০২০, অকুপেশনাল সেফটি, হেলথ অ্যান্ড ওয়ার্কিং কন্ডিশনস কোড (শিল্পে শ্রমিক-মালিক সম্পর্ক বিধি) ২০২০ (কর্মক্ষেত্রে স্বাস্থ্য ও সুরক্ষা নিশ্চয়তা বিধি) এবং কোড অন সোশ্যাল সিকিউরিটি ২০২০ (সামাজিক সুরক্ষা বিধি ) নামে তিনটি শ্রমবিধি পাশ হয়েছে লোকসভা এবং রাজ্যসভায়।

গত কয়েক বছর ধরে শ্রম আইন সংস্কারে কেন্দ্র যে চারটি খসড়া তৈরি করেছিল, এই তিনটি তারই অংশ। এর আগে ২০১৯ সালে মজুরি সংক্রান্ত বিধি পাশ হয়ে যায়। যদিও সেটাও এখনও কার্যকর হয়নি।

গত বছরের জুলাই মাসে লোকসভায় এবং আগস্টে রাজ্যসভায় পাশ হওয়ার পর রাষ্ট্রপতির অনুমোদনে সেটি আইনে পরিণত হবে। শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী সন্তোষকুমার গাঙ্গোয়ার বলেছিলেন, মজুরির সংক্রান্ত এই কোডটি ঐতিহাসিক বিল, যা সংঘবদ্ধ ও অসংগঠিত ক্ষেত্রের প্রায় ৫০ কোটি শ্রমিকের ন্যূনতম মজুরির সময়োপযোগী বেতন এবং সময়মতো বেতন নিশ্চিত করবে।

ট্রেড ইউনিয়নের প্রতিবাদ

শ্রমবিধির প্রতিবাদে এক দিনের দেশজোড়া কর্মবিরতির ডাক দিয়েছিল কেন্দ্রীয় শ্রমিক সংগঠনগুলি। তাদের অভিযোগ, “শ্রমবিধি সংশোধন করে শ্রমিকদের উপর ভার্চুয়াল দাসত্বের শর্ত আরোপ করা হচ্ছে। এই সংশোধন কর্মী সংগঠন গঠনকে কঠিনতর করে তুলবে, ধর্মঘটের অধিকার কেড়ে নেবে এবং অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের দূরে সরিয়ে দেবে”।

ট্রেড ইউনিয়নগুলির আরও অভিযোগ, এই বিধির বহু অংশ শ্রমিক স্বার্থের পরিপন্থী। এতে একতরফা ক্ষমতা তুলে দেওয়া হয়েছে মালিক এবং আমলাদের হাতে।

আরও পড়তে পারেন: ফের বাড়ল পেট্রোল-ডিজেলের দাম!

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
Currency
দেশ38 mins ago

আপনি কি জানেন, মাইনে থেকে কেটে নেওয়া মাত্র ২৫ টাকাতেই পাওয়া যায় কয়েক লক্ষ টাকার সুবিধা?

ফুটবল10 hours ago

শেষ মিনিটে সমতা ফিরিয়ে হার এড়াল ইস্টবেঙ্গল

রাজ্য12 hours ago

রাজ্যে আরও কমল দৈনিক সংক্রমণের হার, ১৩ জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা এক অঙ্কে

election commission of india
রাজ্য13 hours ago

ভোট প্রস্তুতি তুঙ্গে! রাজ্যে আসছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

রাজ্য13 hours ago

শতাব্দী রায়ের ‘মানভঞ্জনে’ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রযুক্তি14 hours ago

হোয়াটসঅ্যাপে এ ভাবে সেটিং করলে আপনার আলাপচারিতা কেউ দেখতে পাবে না এবং তথ্যও থাকবে নিরাপদে

দেশ14 hours ago

বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তীতেই মৈত্রী সেতু উদ্বোধনের সম্ভাবনা

শরীরস্বাস্থ্য15 hours ago

কেন খাবেন মেথি?

বিদেশ3 days ago

১৯৫৩ সালের পর থেকে প্রথম কোনো মহিলার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করল মার্কিন সরকার

শিল্প-বাণিজ্য3 days ago

ফের বাড়ল পেট্রোল-ডিজেলের দাম!

বিনোদন3 days ago

কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে ‘অভিযাত্রিক’, সিনেমার ‘মাস্টার’দের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি

দেশ1 day ago

করোনার টিকা নেওয়ার পর অসুস্থ হলে দায় নেবে না কেন্দ্র

দেশ16 hours ago

নবম দফার বৈঠকেও কাটল না জট, ফের কৃষকদের সঙ্গে আলোচনায় বসবে কেন্দ্র

দেশ3 days ago

গ্রেফতার অ্যালকেমিস্ট কর্ণধার কেডি সিং!

কলকাতা2 days ago

বাগবাজার ব্রিজের কাছে বস্তিতে বিধ্বংসী আগুন, ছড়াল পার্শ্ববর্তী বহুতলেও

কলকাতা2 days ago

অগ্নিকাণ্ডে গৃহহীনদের ঘর তৈরি করে দেবে পুরসভা, বাগবাজারে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

কেনাকাটা

কেনাকাটা4 days ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা1 week ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা1 week ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা1 week ago

ম্যাক্সিড্রেসের নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সুন্দর ম্যাক্সিড্রেসের চাহিদা এখন তুঙ্গে। সামনেই কোনো আনন্দ অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ থাকলে ম্যাক্সি পরতে পারেন। বাছাই করা কয়েকটি ড্রেসের...

কেনাকাটা2 weeks ago

রকমারি ডিজাইনের ৯টি পুঁটলি ব্যাগের কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুমে নিমন্ত্রণে যেতে সাজের সঙ্গে মিলিয়ে ব্যাগ নেওয়ার চল রয়েছে। অনেকেই ডিজাইনার ব্যাগ পছন্দ করেন। তেমনই কয়েকটি...

কেনাকাটা2 weeks ago

কস্টিউম জুয়েলারির দারুণ কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুম আসছে। নিমন্ত্রণবাড়ি তো লেগেই থাকে। সেখানে আজকাল সোনার গয়নার থেকে কস্টিউম বা জাঙ্ক জুয়েলারি পরে যাওয়ার...

কেনাকাটা2 weeks ago

রুম হিটারের কালেকশন, ৬৫০ থেকে শুরু

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভালোই শীত চলছে। এই সময় রুম হিটারের প্রয়োজনীয়তা খুবই। তা সে ঘরের জন্যই হোক বা অফিস, বা কোথাও...

কেনাকাটা3 weeks ago

চোখের যত্ন নিতে কিনুন এগুলি, খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অনেকেই আছেন সারা দিনের ব্যস্ততার মাঝে যদিও বা পা, হাত বা মুখের টুকটাক যত্ন নেন, কিন্তু চোখের বিশেষ...

কেনাকাটা4 weeks ago

ফিলগুড প্রোডাক্ট! পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দিনের মধ্যে কিছু সময় যদি নিজের মতো করে নিজের জন্য দেওয়া যায় তা হলে মন যেমন ভালো থাকে...

কেনাকাটা4 weeks ago

জায়গা বাঁচানোর জন্য বিভিন্ন রকমের অর্গানাইজার, দেখে নিন খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রোজকার ঘরে ব্যবহারের জন্য এমন অনেক জিনিস আছে যেগুলি থাকলে যেমন জায়গার সাশ্রয় হয় তেমনই সময়েরও। জায়গা বাঁচানোর...

নজরে