তিন মাস কাটা হবে না কোনো ঋণের ইএমআই, স্থগিতাদেশ ঘোষণা করল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক

2
RBI
আরবিআই। প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের জেরে দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। এমন পরিস্থিতিতে ঋণের কিস্তি জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে বড়োসড়ো ছাড় দিল ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক (RBI)।

শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠকে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস ঘোষণা করেন, সমস্ত ধরনের ঋণের ইএমআইয়ে তিন মাসের জন্য স্থগিতাদেশ জারি থাকবে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে: “সমস্ত বাণিজ্যিক, আঞ্চলিক, গ্রামীণ, এনবিএফসি এবং ছোটো ফিনান্স ব্যাঙ্কগুলিকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত বকেয়া সমস্ত মেয়াদি ঋণের ইএমআই বা কিস্তি প্রদানের বিষয়টি তিন মাসের জন্য স্থগিত করার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।”

অর্থাৎ, ঋণ বকেয়া রয়েছে, এমন কোনো ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট থেকে পরবর্তী তিন মাসের জন্য কোনো ইএমআই কেটে নেওয়া হবে না। পাশাপাশি ক্রেডিট স্কোরেও এর কোনো প্রভাব পড়বে না। স্থগিতের সময়সীমা শেষ হওয়ার পরে ইএমআইগুলি আবার শুরু হবে।

এটি সমস্ত ধরনের ইএমআই প্রদানকারীদের, বিশেষত যাঁরা স্বনির্ভর প্রকল্পে ঋণ নিয়েছেন, তাঁদের কষ্ট লাঘব করবে। লকডাউনের জেরে উৎপাদন বন্ধ। চাহিদা থাকলেও জোগান নেই। স্বাভাবিক ভাবেই চরম আর্থিক সংকটের মুখে তাঁরা। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেই ইতিবাচক পদক্ষেপ নিল আরবিআই।

এ বিষয়ে আরও পড়ুন: ঋণের ইএমআই স্থগিতের নেপথ্যে রয়েছে কোন অঙ্ক?

অন্য দিকে সমস্ত ক্ষেত্রেই ঋণের ইএমআই স্থগিত করা হবে কি না, এ ব্যাপারে একটি এনবিএফসি (ব্যাঙ্ক নয়, এমন আর্থিক প্রতিষ্ঠান) কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাওয়া হলে তাঁরা বলেন, আরবিআইয়ের নির্দেশিকা তাঁর এখনও হাতে পাননি। আগে পূর্ণাঙ্গ নির্দেশিকা খতিয়ে দেখা হবে, তার পরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: করোনার ধাক্কা সামলাতে বড়ো ঘোষণা রিজার্ভ ব্যাঙ্কের

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

2 COMMENTS

    • আমাদের কাছে এখনও কোনো খবর নেই। থাকলে অবশ্যই জানাবো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.