বাজেট ২০২২: বোঝা লাঘবে বেতনভুক করদাতারা কী ধরনের প্রত্যাশা করছেন

0

নয়াদিল্লি: আগামী ১ ফেব্রুয়ারি সংসদে বাজেট পেশ করবেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। কেন্দ্রীয় বাজেট ২০২২ (Union Budget 2022)-এ আয়কর সংক্রান্ত বেশ কিছু বড়ো ঘোষণার প্রত্যাশা করছেন অনেকেই। কারণ, গত দু’বছর ধরে করোনা মহামারির কারণে এ ব্যাপারে উল্লেখযোগ্য তেমন কোনো সুবিধা মেলেনি। বিশেষ করে বেতনভুক কর্মীদের মতে, সবমিলিয়ে কোভিড সংক্রমণের আবহে কর সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিধি শিথিল করুক কেন্দ্রীয় সরকার।

ওয়ার্ক ফ্রম হোমে বাড়তি চাপ

কোভিডের কারণে সরকারি-বেসরকারি সংস্থার অবলম্বন কর্মীদের বাড়ি থেকে কাজ বা ওয়ার্ক ফ্রম হোম। বাড়ি থেকে কাজ করতে গিয়ে পকেটেও পড়ছে বাড়তি চাপ। ইন্টারনেট, ফোন এবং বিদ্যুতেও খরচ হচ্ছে বেশি। আবার অফিসের মতো কাজ করতে বাড়িতে নতুন আসবাবপত্রও কিনতে হচ্ছে কোনো কোনো ক্ষেত্রে। অনেক সংস্থাই কর্মীকে এই ব্যয়ের জোগান দিচ্ছে নিজের ভাঁড়ার থেকে। কিন্তু আয়কর জমার সময় এই বাড়তি পাওনা করের আওতায় আসা স্বাভাবিক। কিন্তু কর্মীর ব্যক্তিগত লাভালাভের কোনো বিষয় নয় এটা। ফলে এই বাড়তি পাওনার উপর কর মুকুবের প্রত্যাশা করছেন বেতনভুকরা।

স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন

ক্রমশ বেড়েছে চিকিৎসার খরচ। বেতন আয় থেকে এককালীন বাদ বা স্ট্যান্ডার্ড ডিডাকশন এখনকার ৫০ হাজার থেকে বার্ষিক ১ লক্ষে উন্নীত করার প্রত্যাশা করছেন অনেকে। এটা কিছুটা হলেও চিকিৎসা সংক্রান্ত খরচকে আচ্ছাদিত করতে সাহায্য করবে।

করের প্রান্ত

একটি অর্থনৈতিক সমীক্ষক সংস্থার মতে, প্রাক-বাজেট নির্ধারণে ৩০ শতাংশের সর্বোচ্চ করের হার ২৫ শতাংশে কমিয়ে আনা হোক। একই সঙ্গে তারা সর্বোচ্চ করের হারে সীমাকে ১০ লক্ষ থেকে ২০ লক্ষ টাকায় উন্নীত করারও অনুরোধ করেছে।

আয়কর ছাড়ের সীমা

আয়করের জন্য মৌলিক ছাড়ের সীমা ২.৫ লক্ষ থেকে ৫ লক্ষ টাকায় উন্নীত করা যেতে পারে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি। মৌলিক ছাড়ের সীমা বাড়ানো হলে আরও অনেক করদাতা একাধিক দিক থেকে সুবিধা পাবেন।

৮০ডি ধারায় সীমা বাড়ানো

অনেক পরিবারেরই পর্যাপ্ত পরিমাণে স্বাস্থ্যবিমা নেই। ফলে আয়কর আইনের ৮০ডি ধারায় মেডিক্লেম কভারেজের খরচ বাদ দেওয়া হলে অনেকের উপকার হতে পারে। পাশাপাশি যাঁদের স্বাস্থ্যবিমা নেই, তাঁদের জন্য কোভিড চিকিৎসার ব্যয় করছাড়ের তালিকায় যুক্ত করাও যেতে পারে।

ক্যাশ ভাউচার স্কিম

২০২০ সালের অক্টোবরে লিভ ট্রাভেল কনসেশন ক্যাশ ভাউচার স্কিম ঘোষণা করেছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী। কিন্তু করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় বিধিনিষেধের কারণে অনেকেই ভ্রমণ করতে পারেননি। ফলে অনেকেই আশা করছেন, সরকার এই প্রকল্পটির মেয়াদ বাড়ালে তাঁরা সুবিধাটি ব্যবহার করতে পারবেন।

৮০সি ধারার সীমা বাড়ানো

বেশ কয়েক বছর ধরেই আয়কর আইনের এই ধারায় সর্বাধিক ১.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত করছাড়ের সুযোগ রয়েছে। বেতনভুক কর্মীরা আশা করছেন, এ বারের বাজেটে এই ঊর্ধ্বসীমা বাড়িয়ে ৩ লক্ষ টাকা করা হোক।

উল্লেখ্য, আগামী ৩১ জানুয়ারি সংসদের উভয় কক্ষের যৌথ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণ দিয়ে শুরু হবে এ বারের বাজেট অধিবেশন। কোভিড আবহে দু’দফার বাজেট অধিবেশন চলবে ৮ এপ্রিল পর্যন্ত। প্রথম পর্বের অধিবেশন শুরু হবে ৩১ জানুয়ারি। শেষ ১১ ফেব্রুয়ারি এর পর প্রায় এক মাসব্যাপী অবকাশের পর অধিবেশনের দ্বিতীয় অংশটি শুরু হবে। সংসদ বিষয়ক মন্ত্রীসভা কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী, দ্বিতীয় পর্ব চলবে ১৪ মার্চ থেকে ৮ এপ্রিল পর্যন্ত।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন