Car dealer
প্রতীকী ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: মালিকের মৃত্যুর পর গাড়ির মালিকানা কার হাতে যাবে? তা নিয়ে যাবতীয় ধন্ধ কাটানো যেতে পারে মৃত্যুর আগেই। গাড়ির মালিকেরা রেজিস্ট্রেশনের সময় অথবা তার পরে নিজের গাড়ির উত্তরসূরি মনোনীত করে সেই তথ্য আপডেট করতে পারবেন। কেন্দ্রের সড়ক পরিবহণ ও জাতীয় সড়ক মন্ত্রকের তরফে ৮ এপ্রিল গেজেট বিজ্ঞপ্তি দিয়ে সেন্ট্রাল মোটর ভেহিকলস রুলস, ১৯৮৯-এর সংশোধনী জারি করেছে।

জানানো হয়েছে, গাড়ির মালিক যানবাহনের রেজিস্ট্রেশনের সময় মনোনীত ব্যক্তির নাম রাখতে পারেন। তবে একটা অনলাইন অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে পরবর্তী সময়েও সেটা করা যেতে পারে।

Loading videos...

এই সংশোধনীর মাধ্যমে মালিকের মৃত্যুর ক্ষেত্রে যানবাহনটি মনোনীত ব্যক্তির নামে রেজিস্ট্রেশন বা ট্রান্সফার প্রক্রিয়াকে আরও সহজ করে তুলবে। ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে ঠিক যে ভাবে নমিনি বা মনোনীত ব্যক্তি বেছে নেওয়া যায়, একই রকম ভাবে গাড়ির ক্ষেত্রেও তা প্রযোজ্য হচ্ছে।

আইন সংশোধনের আগে অবশ্য এই সুবিধাটি পাওয়া যেত না। কারণ, এটা ছিল একটা জটিল প্রক্রিয়া। দেশের বিভিন্ন জায়গায় এ ব্যাপারে ভিন্ন ভিন্ন পদ্ধতি ছিল। যে কারণে, মালিকের মৃত্যুর পর তা হস্তান্তরের প্রক্রিয়াটি ছিল বেশ লম্বা। এর জন্য ঘন ঘন সংশ্লিষ্ট অফিসে গিয়ে তাগাদা দিতেও হতো।

কী ভাবে ঘটবে মালিকানা হস্তান্তর?

যানবাহনের মালিকের মৃত্যুর পরে মনোনীত ব্যক্তির কাছে মালিকানা হস্তান্তর কী ভাবে ঘটবে, তা সংক্ষেপে দেখে নেওয়া যাক।

প্রকৃত মালিকের মৃত্যুর পর মনোনীত ব্যক্তি পুরনো রেজিস্ট্রেশনেই গাড়িটি ব্যবহার করতে পারবেন। তবে এই সময়কাল মালিকের মৃত্যুর পর থেকে সর্বোচ্চ তিন মাস। এরই মধ্যে ৩০ দিনের ভিতর সংশ্লিষ্ট রেজিস্ট্রেশন কর্তৃপক্ষকে মালিকের মৃত্যুর ব্যাপারে নথি-সহ অবগত করতে হবে। পাশাপাশি মৃত্যুর আগে মালিক যে তাঁকে মনোনীত করে গিয়েছেন, সেটাও জানাতে হবে।

গাড়িটির দখল নিয়ে মামলাও হতে পারে। তবে মোটর গাড়ির মালিকের মৃত্যুর পরে তিন মাসের মধ্যে মালিকানা হস্তান্তরের জন্য ‘ফরম ৩১’ ব্যবহার করে আবেদন করতে হবে।

ফরমের পাশাপাশি কী কী দিতে হবে?

রুল নম্বর ৮১-তে উল্লিখিত উপযুক্ত ফি।

গাড়ি মালিকের মৃত্যুর শংসাপত্র।

রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট।

বিমা সার্টিফিকেট।

ড্রাইভিং লাইসেন্স এবং ই-রিকশা ও ই-কার্টের ক্ষেত্রে পারমিট।

রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেটে উল্লেখ করা হবে মনোনীত ব্যক্তির পরিচয়ের প্রমাণ।

আরও পড়তে পারেন: জীবন বিমা পলিসি কত রকমের হয়? কেনার সময় নিজের প্রয়োজনীয়তার কথা মাথায় রাখুন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.