vodafoneairtel
প্রতীকী ছবি

ওয়েবডেস্ক: সুপ্রিম কোর্ট টেলিকম অপারেটরদের গত ২৪ অক্টোবরের রায় পর্যালোচনা করার আবেদন ফিরিয়ে দেওয়ার পরদিনই শেয়ার বাজারে পর্বতপ্রমাণ ধসের মুখোমুখি হল ভোডাফোন আইডিয়া এবং ভারতী ইনফ্রাটেল। অ্যাডজাস্টেড গ্রস রেভিনিউয়ের (এজিআর) বকেয়া হিসাবে ৯২,০০০ কোটি টাকা ডিপার্টমেন্ট অব টেলিকমিউনিকেশনকে মিটিয়ে দিতে বলেছিল শীর্ষ আদালত। সেই রায়ের পুনর্বিবেচনা চেয়ে ফের আবেদন দাখিলের পর গত বৃহস্পতিবার তা খারিজ করে দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

শুক্রবার ভোডাফোন আইডিয়া ২৩.৩৩% এবং ভারতী ইনফ্রেটেল ৬.৮৯%-এর পতনের মুখোমুখি হয় শেয়ার বাজারে। একটা সময় ভোডাফোনকে রেকর্ড ৩৯% পর্যন্ত খোয়াতে হয়। স্টকের দাম ঠেকে ৩.৬৬ টাকায়। যেখানে আগের দিন বাজার বন্ধের সময় স্টকপিছু দাম ছিল ৬ টাকা। সর্বশেষ পরিসংখ্যানে ভোডাফোন আইডিয়ে ২১.৭০% খুইয়ে ৪.৭০ টাকায় অবস্থান করছে।

বিএসইতে ভোডাফোন আইডিয়ার শেয়ারগুলি যখন ৩৯ শতাংশ ডুব দিয়ে সর্বনিম্ন ৩.৬৬ টাকায় দাঁড়ায়, তখন ভারতী ইনফ্রেটেল ৯ শতাংশ হ্রাস পেয়ে ২২০ টাকায় গিয়ে ঠেকে। তবে, এই শিল্পে আরও একীকরণের ক্ষেত্রে বাজারে অংশীদারিত্ব প্রসারিত হওয়ার আশায় ভারতী এয়ারটেল ৩.৯৯ শতাংশ বাড়িয়ে ৪৯৩.৮০ টাকায় উন্নীত হয়।

আরও পড়ুন: সুপ্রিম কোর্টে বিরাট ধাক্কা খেল ভোডাফোন, এয়ারটেল, রিলায়েন্স

প্রসঙ্গত, সুপ্রিম কোর্টের কাছে আবেদনটি ভোডাফোন আইডিয়া, ভারতী এয়ারটেল এবং টাটা টেলিকমিউনিকেশন দায়ের করেছিল। শীর্ষ আদালতের রায়ের ফলে তিনটি টেলিকম সংস্থা অতিরিক্ত লাইসেন্স ফি, স্পেকট্রাম ব্যবহারের চার্জ (এসইউসি), জরিমানা এবং সুদ সম্মিলিভাবে ১.০২ লক্ষ কোটি টাকারও বেশি বকেয়া মেটনোর নির্দেশের সম্মুখীন হয়েছে।

তবে বাজার বিশ্লেষকদের মতে, এখন ভোডাফোন আইডিয়াকে এগিয়ে যাওয়ার পথটি খুঁজে বের করতে হবে, কারণ টেলিকম শিল্পের সামনে নিজেকে আরও সংহত করার সম্ভাবনা রয়েছে।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন