Connect with us

শিল্প-বাণিজ্য

কী এই আরসিইপি বাণিজ্য চুক্তি, যেখান থেকে বেরিয়ে এলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী?

Published

on

rcep

ওয়েবডেস্ক: রিজিওনাল কম্প্রিহেনসিভ ইকনমিক পার্টনারশিপ বা আরসিইপি-তে যোগ দেবে না ভারত। গত সোমবারই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়ে দিয়েছেন আরসিইপি নিয়ে ভারতের সিদ্ধান্তের কথা।

এশিয়ার ১৬টি দেশের প্রস্তাবিত এই আরসিইপি চুক্তি কী?

আঞ্চলিক বিস্তৃত অর্থনৈতিক অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে ১৬টি দেশের প্রস্তাবিত একটি বাণিজ্য চুক্তি হল আরসিইপি। দক্ষিণ এশিয়ার আসিয়ান অন্তর্ভুক্ত ১০টি দেশ এবং তাদের সঙ্গে মুক্ত বাণিজ্য চুক্তিতে আবদ্ধ ছ’টি দেশকে নিয়ে একটি “সংহত বাজার” তৈরি করার প্রস্তাব করা হয়েছিল ওই চুক্তিতে। এর মধ্যে থাকার কথা ছিল ভারত, চিন, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড। আরসিইপি এই অঞ্চল জুড়ে স্বাক্ষরকারী দেশগুলির পণ্য ও পরিষেবাদিগুলির ব্যবসা-বাণিজ্য সহজতর করে তোলার কথা বলা হয়েছিল। তবে ভারত এই চুক্তি থেকে বেরিয়ে যায়।

কী কারণে চুক্তিতে স্বাক্ষর করবে না ভারত?

এটি ভারতের বেশ কিছু শিল্পের কাছেই একটি সুসংবাদ হতে পারত। কিন্তু দুগ্ধ খামার থেকে শুরু করে ক্ষুদ্র ব্যবসা, ক্ষুদ্র ও ছোটো উদ্যোক্তা থেকে তামা উৎপাদক অথবা সাইকেল প্রস্তুতকারী, ই-কমার্স বিপণকারী থেকে ডেটা সার্ভিস প্রোভাইডারকে ভবিষ্যতে এই জাতীয় ‘মেগা প্যাক্ট’ থেকে সুবিধা দিতে জন্য দেশে আগে সংস্কারের প্রয়োজন। তবে চুক্তিতে স্বাক্ষর না করার কারণ হিসাবে প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, “দেশের মানুষের কথা ভেবেই এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করার কথা ভেবেছিলাম। কিন্তু কোনো সদর্থক উত্তর আমি পাইনি”।

একই সঙ্গে মোদী বলেন, “আরসিইপি আলোচনার সাত বছরের সময় কালে আজ আমরা যখন চারপাশ ঘুরে দেখি, তখন দেখতে পাই বিশ্ব অর্থনৈতিক ও বাণিজ্য পরিস্থিতি-সহ অনেক কিছুই বদলেছে”।

আরসিইপির সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে আশঙ্কা

অনেকের মতে, আরসিইপি গ্লোবাল ভ্যালু চেইন (জিভিসি)-এ উৎপাদন করতে কিছু সুযোগ এনে দিতে পারে। তবে বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, এটিও পরিকাঠামোগত অভাবের কারণে একবগ্গা হয়ে উঠত। জিভিসি উৎপাদন বড়ো সংস্থাগুলিকে স্বল্প দামে শ্রম প্রাপ্তির সুবিধার সঙ্গে একাধিক দেশে এটিকে বিস্তৃত করার অনুমতি দেয়। চিনে শ্রমের ব্যয় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ওই সংস্থাগুলি পণ্য তৈরিতে ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম, থাইল্যান্ড এবং ভারতের মতো নতুন অঞ্চলের দিকে তাকাচ্ছে।

[ আরও পড়ুন: প্রিমিয়ামের টাকা দিতে না পারায় অচল হয়েছে এলআইসি পলিসি? ফের চালু করা যাবে ]

তবে ভারতে এমনও আশঙ্কা ছিল যে, চিনা সংস্থাগুলি তাদের উৎপাদিত পণ্যের বাজার ধরতে এ দেশকেই ব্যবহার করবে।। গত তিন বছরে, চিনা কোম্পানির বিরুদ্ধে ভারতের অ্যান্টি-ডাম্পিং শুল্ক যে কোনও দেশের বিরুদ্ধে সর্বাধিক ছিল।

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

শিল্প-বাণিজ্য

জল জীবন মিশনের আওতায় ৫০ লক্ষ টাকা জেতার সুযোগ দিচ্ছে কেন্দ্র, তবে উৎরাতে হবে আইসিটি গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জে

প্রথম স্থান অধিকার করলে একক বা দলগত ভাবে ৫০ লক্ষ টাকা জেতা যাবে।

Published

on

Currency
আর্থিক পুরস্কার মিলবে দ্বিতীয় স্থানাধিকারীরও। প্রতীকী ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: উদ্ভাবনী শক্তিকে কাজে লাগিয়ে ৫০ লক্ষ টাকা জয়ের সুযোগ করে দিল কেন্দ্রীয় সরকার। এই পুরস্কার মূল্য জেতার জন্য কোনো ব্যক্তিকে একটি আইসিটি গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জে (ICT Grand Challenge)-এ অংশ নিতে হবে। এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে ‘উন্নত জল সরবরাহ পরিমাপ ও নিরীক্ষণ ব্যবস্থা’র জন্য একটি উদ্ভাবনী এবং সাশ্রয়ী সমাধান পদ্ধতি তৈরি করতে হবে। যোগ্য পদ্ধতিগুলিই পরবর্তীতে গ্রামাঞ্চলে প্রতিস্থাপন করা হবে।

কেন্দ্রের বিদ্যুতিন এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক (MeitY)-এর সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে এই প্রতিযোগিতা চালু করেছে জল জীবন মিশন (JMM)। ভারতের স্টার্ট-আপ, ক্ষুদ্র-ছোটো-মাঝারি উদ্যোগ (MSME) এবং অন্য়ান্য ভারতীয় সংস্থা এই উন্নত জল সরবরাহ পরিমাপ এবং নিয়ন্ত্রণ সিস্টেমের উদ্ভাবনী প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে।

কার জন্য পুরস্কার মূল্য কত?

আইসিটি গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জে অংশ নিয়ে প্রথম স্থান অধিকার করলে একক বা দলগত ভাবে ৫০ লক্ষ টাকা জেতা যাবে।

দ্বিতীয় স্থানাধিকারী জিততে পারবে ২০ লক্ষ টাকা।

সফল অংশগ্রহণকারীরা কাজ সম্পূর্ণ করতে মন্ত্রকের অধীনে ইনকিউবেটর / সিআই-তে যোগদানেরও সুযোগ পাবে। এটি স্বনির্ভর ভারত, ডিজিটাল ইন্ডিয়া এবং মেক-ইন-ইন্ডিয়ার হয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্যোগের প্রচার করবে।

কী ভাবে আবেদন জানানো যাবে?

আইসিটি গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জ সম্পর্কে আরও বিশদ তথ্য জানতে https://jjm.gov.in/ ওয়েবসাইটটি দেখতে হবে।

জল জীবন মিশন কী?

২০২৪ সালের মধ্যে দেশে সমস্ত গ্রামীণ পরিবারে পানীয় জলের সংযোগ পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্য নিয়েছে কেন্দ্র।

পর্যবেক্ষণ এবং আরও ভাল মানের পরিষেবা সরবরাহ করার জন্য স্বয়ংক্রিয় তথ্য সংগ্রহ এবং বিশ্লেষণ করা হবে। সম্পূর্ণ জল সরবরাহ ব্যবস্থার ডিজিটালাইজ করলে একাধিক সমস্যা দূর করবে। জল জীবন মিশন প্রকল্পটি সারা দেশে ১০০টি গ্রামে প্রাথমিক ভাবে চালু করা হবে। সেখানে এর সাফল্য পাওয়ার পরে এটি অন্যান্য গ্রামগুলিতেও বাস্তবায়িত হতে পারে।

Continue Reading

শিল্প-বাণিজ্য

জিএসটি ক্ষতিপূরণ: ২১টি রাজ্য বেছে নিল প্রথম বিকল্প, দ্বিতীয়টি পছন্দ নয় কারও

ঋণ নেওয়ার বিকল্প পথ- কার কী পছন্দ?

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: জিএসটি আদায়ের ক্ষেত্রে ক্ষতিপূরণ মেটানোর জন্য রাজ্যগুলিকে বাজার থেকে ধার করার দু’টি বিকল্প প্রস্তাব দিয়েছিল কেন্দ্র। জানা গিয়েছে, সেই বিকল্পগুলির মধ্যে প্রথমটিকে বেছে নিয়েছে দেশের ২১টি রাজ্য। কিন্তু দ্বিতীয়টি এখনও পর্যন্ত কার পছন্দের তালিকায় উঠে আসেনি।

ইকনোমিক্স টাইমস এক সরকারি আধিকারিকের মন্তব্য উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, এক মাত্র মণিপুর দ্বিতীয় পথটি বেছে নিয়েছিল। কিন্তু পরক্ষণেই তারাও নিজেদের মত পরিবর্তন করে এক নম্বরেই ফিরে আসে।

ওই আধিকারিক জানিয়েছেন, আরও কয়েকটি রাজ্য দু’-এক দিনের মধ্যে তাদের ঋণ নেওয়ার বিকল্প পথ সম্পর্কে কেন্দ্রকে নিজেদের মতামত জানাতে পারে।

গত ২৭ আগস্ট জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠকে দুটি বিকল্প দেয় কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। যা নিয়ে তুমুল হইচই শুরু হয়েছে। কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছে একাধিক রাজ্য। এরই মধ্যে জানা গেল অধিকাংশ রাজ্যই নিজেদের সুবিধাজনক বিকল্পটি বেছে নিয়েছে।

ঋণ নেওয়ার প্রস্তাবিত বিকল্প পথ

প্রথম পথ: রাজ্যগুলি আরবিআইয়ের সঙ্গে শলাপরামর্শ করে ৯৭ হাজার কোটি টাকা ধার করুক, যাতে সুদের ওপর ০.৫ শতাংশ ছাড় মিলবে।

দ্বিতীয় পথ: জিএসটি ক্ষতিপূরণ ও করোনার মহামারির জেরে ঘাটতি হওয়া ২.৩৫ লক্ষ কোটি টাকা আরবিআইয়ের কাছ থেকে ধার করা। সেখানে অবশ্য কোনো ছাড়ের কথা বলা হয়নি।

প্রথমটি পছন্দ যে ২১টি রাজ্যের

যে ২১টি রাজ্য প্রথম বিকল্পটি বেছে নিয়েছে, সেগুলি হল অন্ধ্রপ্রদেশ, অরুণাচলপ্রদেশ, অসম, বিহার, গোয়া, গুজরাত, হরিয়ানা, হিমাচলপ্রদেশ, জম্মু ও কাশ্মীর, কর্নাটক, মধ্যপ্রদেশ, মণিপুর, মেঘালয়, মিজোরাম, নাগাল্যান্ড, ওড়িশা, পুদুচেরি, সিকিম, ত্রিপুরা, উত্তরাখণ্ড, উত্তরপ্রদেশ।

তবে ঝাড়খণ্ড, কেরল, মহারাষ্ট্র, দিল্লি, পঞ্জাব, রাজস্থান, তামিলনাড়ু, তেলঙ্গানা এবং পশ্চিমবঙ্গের মতো অ-বিজেপি রাজনৈতিক দল শাসিত রাজ্যগুলি জিএসটি ক্ষতিপূরণের ঘাটতি পূরণে জিএসটি কাউন্সিলের প্রস্তাবে এখনও সাড়া দেয়নি বলেই জানা গিয়েছে।

একই সঙ্গে জানা গিয়েছে, এই বাকি রাজ্যগুলি যদি ৫ অক্টোবর জিএসটি কাউন্সিলের নির্ধারিত বৈঠকের আগে তাদের পছন্দের কথা না জানায়, তবে তাদের বকেয়া পাওয়ার জন্য ২০২২ সালের জুন মাস পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তবে শর্ত হিসেবে থাকবে,২০২২ সালের পরেও জিএসটি কাউন্সিলের শুল্ক সংগ্রহের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্তটি।

Continue Reading

শিল্প-বাণিজ্য

এসবিআই এটিএমে টাকা তোলার নিয়ম বদলে গেল! দেখে নিন ওটিপি-ভিত্তিক পদ্ধতির খুঁটিনাটি বিষয়

এসবিআই এটিএম থেকে ১০ হাজার টাকার বেশি তুলতে গেলে সঙ্গে রাখতে হবে মোবাইল

Published

on

এসবিআই এটিএম। প্রতীকী ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: দেশের বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক স্টেট ব্য়াঙ্ক অব ইন্ডিয়া (SBI) নিজের এটিএম থেকে ১০ হাজার টাকার বেশি নগদ তোলার নিয়মে বদল নিয়ে এল।

এমনিতে এসবিআই এটিএম (ATM) থেকে ১০ হাজার টাকা বা তার বেশি নগদ তুলতে গেলে গ্রাহককে ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড বা ওটিপি (OTP)-ভিত্তিক পরিষেবা নিতে হয়। তবে ওই পরিষেবা এত দিন শুধুমাত্র সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্তই পাওয়া যেত। একটি বিজ্ঞপ্তিতে এসবিআই জানিয়েছে, ওই পরিষেবা এ বার দিনের ২৪ ঘণ্টাই নিতে পারেন কোনো গ্রাহক। যা শুরু হল ১৮ সেপ্টেম্বর থেকে।

নতুন নিয়ম

১৫ সেপ্টেম্বর জারি করা বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, এই উদ্যোগের অন্যতম লক্ষ্য গ্রাহকদের জালিয়াতি থেকে রক্ষা করা এবং অননুমোদিত লেনদেন হ্রাস করা।

এসবিআই বলেছে, “১০ হাজার টাকা বা তার বেশি নগদ তোলার জন্য এসবিআইয়ের ডেবিট কার্ডধারীদের এখন প্রতিবার তাঁদের ডেবিট কার্ড পিনের সঙ্গেই নিজের রেজিস্টার্ড মোবাইল নম্বরে পাওয়া ওটিপি দিতে হবে”।

ফলে গ্রাহকরা যেন দ্রুত নিজের সঠিক মোবাইল নম্বরটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে নথিভুক্ত করিয়ে নেন।

কী ভাবে পাওয়া যাবে সুবিধা?

কোনো গ্রাহক টাকা তুলতে গিয়ে টাকার পরিমাণ লেখার পরই এটিএম স্ক্রিন জানতে চাইবে তিনি নিজের মোবাইলে ওটিপি পেতে ইচ্ছুক কি না? উত্তর ‘হ্যাঁ’ হলে মোবাইলে চলে আসবে ওই ওটিপি।

মনে রাখতে হবে, এই পরিষেবা এসবিআই গ্রাহকরা শুধুমাত্র এসবিআই এটিএমেই পাবেন। অন্য ব্যাঙ্কের এটিএমে গ্রাহক শুধুমাত্র ১০ হাজার টাকা পর্যন্তই নগদ তুলতে পারবেন।

কেন নিয়ম বদল?

এটিএম থেকে ২৪X৭ ওটিপি-ভিত্তিক নগদ তোলার পদ্ধতি চালু করার মূল লক্ষ্য গ্রাহকদের প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা করা। এর ফলে এটিএম জালিয়াতি রোধ করা সম্ভব হবে।

আগে এই পরিষেবা মাত্র ১২ ঘণ্টার জন্য পাওয়া গেলেও তার মেয়াদ বাড়ানোয় এক দিকে যেমন দিনের যে কোনো সময় গ্রাহক এই পরিষেবা পাবেন, তেমনই কার্ড স্কিমিং, কার্ড ক্লোনিং থেকে সুরক্ষিত থাকবেন তাঁরা।

ব্যালেন্স এসএমএস

এসবিআই সম্প্রতি এই নতুন পরিষেবাটি চালু করেছে। কোনো গ্রাহক যখনই এটিএমে গিয়ে নিজের অ্যাকাউন্টের ব্যালেন্স পরীক্ষা করবেন, তখনই তিনি মোবাইলে একটি এসএমএস পাবেন।

আরও পড়তে পারেন: এসবিআই গ্রাহকরা কী ভাবে নিজেই ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন?

Continue Reading
Advertisement
bangladesh foreign minister
বাংলাদেশ25 mins ago

সৌদিতে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দিতে বাংলাদেশকে চাপ

ক্রিকেট34 mins ago

বুমরাহ-বোল্টের দাপটে বিধ্বস্ত কেকেআর, লজ্জার হার দিয়ে আইপিএল যাত্রা শুরু

দেশ2 hours ago

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক মজবুত গাঁথুনির উপরে দাঁড়িয়ে, বললেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান

রাজ্য4 hours ago

দৈনিক সংক্রমণ, মৃতের সংখ্যা প্রায় অপরিবর্তিত, সার্বিক ভাবে আশাপ্রদ রাজ্যের করোনা-পরিস্থিতি

কলকাতা4 hours ago

কলকাতার সিংহভাগ অভিভাবক চাইছেন না এখনই স্কুল খুলুক: অনলাইন সমীক্ষা

Currency
রাজ্য6 hours ago

রাজ্য সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডিএ মেটাতে ফের সময়সীমা বেঁধে দিল স্যাট

LPG
দেশ6 hours ago

বিনামূল্যে এলপিজি সিলিন্ডার খুঁজছেন? মাত্র এক সপ্তাহ বাকি! প্রধানমন্ত্রী উজ্জ্বলা যোজনার আওতায় কী ভাবে পাবেন, জেনে নিন

দঃ ২৪ পরগনা7 hours ago

সুন্দরবনে ম্যানগ্রোভ রোপণে এ বার পরিবেশ-বান্ধব ‘জিও-জুট’ পদ্ধতি

কেনাকাটা

কেনাকাটা1 day ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা4 days ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা1 week ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা2 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা2 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা4 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা1 month ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

kitchen kitchen
কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই ৮টি জিনিস কাজ অনেক সহজ করে দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজকাল রান্নাঘরের প্রত্যেকটি কাজ সহজ করার জন্য অনেক উন্নত ব্যবস্থা এসে গিয়েছে। তা হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কষ্ট...

care care
কেনাকাটা1 month ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

নজরে