Connect with us

শিল্প-বাণিজ্য

হোয়াটসঅ্যাপ গোপনীয়তা নীতি: চ্যাটের একদম উপরে আসবে ছোট্ট ব্যানার, ব্যবহারকারীর কাছে সময়সীমা ১৫ মে পর্যন্ত

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: নতুন ভাবে প্রচার অভিযান শুরু করে ভারতে তাদের নতুন গোপনীয়তা নীতি (Privacy policy) রূপায়ণ করার জন্য উঠে পড়ে লাগছে হোয়াটসঅ্যাপ (WhatsApp)। ফেসবুকের (Facebook) মালিকানাধীন এই মেসিজিং অ্যাপ এখনও পর্যন্ত বিষয়টি নিয়ে খুব একটা হইচই করছে না। এ ব্যাপারটি গ্রহণ করা বা না-করার জন্য তারা তাদের ব্যবহারকারীদের যথেষ্ট সময় দিতে প্রস্তুত।

নতুন অভিযানের একটা অংশ হল, চ্যাট লিস্টের মাথায় একটা ছোট্ট ব্যানার আসা। এবং ওখানেই একটা অপশন আসা ‘ট্যাপ টু রিভিউ’ (‘Tap to review’)।

Loading videos...

হঠাৎ করে গোপনীয়তা নীতি পরিবর্তনের কথা ঘোষণা করে গত মাসে হোয়াটসঅ্যাপ ঝড়ের মুখে পড়েছিল। গোপনীয়তা নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়ে গিয়েছিল ভারতে। এই বিতর্ক অবশ্য বেশি দিন চলেনি। কিন্তু তার মধ্যেই ‘টেলিগ্রাম’ (Telegram) ও ‘সিগন্যাল’ (Signal) ডাউনলোড করা অনেক বেড়ে গিয়েছিল। এ সবের জেরেই এই নতুন প্রচার অভিযান শুরু করেছ হোয়াটসঅ্যাপ।  

উল্লেখ্য, সিগন্যাল অ্যাপ যে কোম্পানির সেই সিগন্যাল ফাউন্ডেশনের একজিকিউটিভ চেয়ারম্যান হলেন হোয়াটসঅ্যাপ-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা ব্রায়ান অ্যাকটন। এই সিগন্যাল অ্যাপ সেই সময়ের মধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপ-সহ বেশ কিছু অ্যাপকে পিছনে ফেলে ভারতে ফ্রি অ্যাপগুলির মধ্যে শীর্ষে চলে গিয়েছিল।

আগের বার হোয়াটসঅ্যাপ-এর তাড়াহুড়োয় ঘাবড়ে গিয়েছিলেন এর ব্যবহারকারীরা। সেই সময়ে অ্যাপে একটা বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে নতুন নীতি মেনে নিতে এক প্রকার বাধ্য করেছিল এই মেসিজিং অ্যাপ।

এ বার আর সেই ভুল করছে না হোয়াটসঅ্যাপ। এ বার তারা নতুন পরিবর্তনগুলি সম্পর্কে ব্যবহারকারীদের অবহিত করতে চায় এবং তা পড়ার জন্য ও গ্রহণ করার জন্য যথেষ্ট সময় দিতে তারা প্রস্তুত।

পরিবর্তিত গোপনীয়তা নীতি ঘোষণা করে গত জানুয়ারিতে হোয়াটসঅ্যাপ যে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল তাতে মেনে নেওয়ার (accept) কোনো অপশন ব্যবহারকারীদের দেওয়া হয়নি। হোয়াটসঅ্যাপ বলেছে, তারা এ থেকে শিক্ষা নিয়েছে এবং ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে অনেক ফিডব্যাক পেয়েছে।

কী করে ব্যবহারকারীদের সব কিছু অবহিত করে তা গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করবে হোয়াটসঅ্যাপ?

এর জন্য হোয়াটসঅ্যাপ ইতিমধ্যেই ‘স্টেটাস’ (Status) ব্যবহার করছে। ২০০ কোটিরও বেশি ব্যবহারকারীর কাছে পৌঁছে যাওয়ার ক্ষেত্রে এই মেসিজিং অ্যাপটির এটাই হল সব চেয়ে জনপ্রিয় বৈশিষ্ট্য। এক বিবৃতিতে কোম্পানি বলেছে, কতগুলি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জানানোর জন্য তারা এই ‘স্টেটাস’ ব্যবহার করে। গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি হল, যেমন “হোয়াটসঅ্যাপ আপনার ব্যক্তিগত কথোপকথন পড়তে বা শুনতে পারে না কারণ গোপন রাখার জন্য এই কথোপকথন আগাগোড়াই সাংকেতিক ভাবে লিপিবদ্ধ (end-to-end encrypted)” অথবা “একটা বিষয় যেটা নতুন নয় তা হল আপনার গোপনীয়তা রক্ষা করতে আমরা দায়বদ্ধ।”

হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের উপরে একটা ছোট্ট ব্যানার আসবে

হোয়াটসঅ্যাপ যেটা করবে, সেটা হল চ্যাটের একদম উপরে একটা ছোট্ট ব্যানার আসবে। এটা আগেই বলা হয়েছে। কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই এই ব্যানার দেখা যাবে। নতুন করে যে নীতিগত বদল হচ্ছে তা দেখে নেওয়ার জন্য ব্যবহারকারীদের বলা হবে। পুরো স্ক্রিন জুড়ে এটা আসবে। তার পর নতুন শর্তাবলি এবং গোপনীয়তা নীতি পর্যালোচনা করে গ্রহণ করার জন্য ব্যবহারকারীদের বলা হবে।

নানা উদ্বেগ এবং হোয়াটসঅ্যাপ-এর স্পষ্ট জবাব

গত মাসে পরিবর্তিত গোপনীয়তা নীতি ঘোষণা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ইন্টারনেটে নানা রকম ভুল তথ্য ছড়িয়ে পড়ে। তার মধ্যে একটা হল হোয়াটসঅ্যাপ-এ ব্যক্তিগত কথোপকথন ফেসবুকে শেয়ার করা হবে। এটা সত্যি নয়। হোয়াটসঅ্যাপ পরিষ্কার বলে দিয়েছে, ব্যক্তিগত কথোপকথন সংক্রান্ত গোপনীয়তা নীতিতে কোনো পরিবর্তন হচ্ছে না। এর অর্থ হল আপনার চ্যাট আগের মতোই আগাগোড়াই সাংকেতিক ভাবে লিপিবদ্ধ থাকবে এবং সেই কথোপকথন মূল কোম্পানি অর্থাৎ ফেসবুকে শেয়ার করা হবে না।

নতুন গোপনীয়তা নীতি কার্যকর হওয়ার সময়

এর আগে হোয়াটসঅ্যাপ-এর নতুন গোপনীয়তা নীতি কার্যকর করার দিন ধার্য করা হয়েছিল ২০২১-এর ৮ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু দেশ জুড়ে বিতর্ক সৃষ্টি হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে কোম্পানি নতুন ডেডলাইন ঠিক করেছে এ বছরের ১৫ মে। অর্থাৎ ১৫ মে থেকে হোয়াটসঅ্যাপ-এর নতুন গোপনীয়তা নীতি কার্যকর হবে। এর মধ্যে যাঁরা এই নীতি মেনে নেবেন না, তাঁরা আর হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন না।

সূত্র: ইন্ডিয়া টুডে

শিল্প-বাণিজ্য

জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠক অবিলম্বে ডাকা হোক, নির্মলা সীতারমনকে চিঠি অমিত মিত্রের

প্রতি তিন মাস অন্তর জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠক হওয়ার কথা। কিন্তু গত ছ’মাস এই বৈঠক করেনি কেন্দ্র। কেন করছে না?

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠক নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে নিয়ম লঙ্ঘনের অভিযোগ তুললেন পশ্চিমবঙ্গের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র (Amit Mitra)। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমনকে (Nirmala Sitharaman) কড়া চিঠিতে তিনি দাবি করেছেন, অবিলম্বে জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠক ডাকা হোক।

নিয়মানুযায়ী, প্রতি তিন মাস অন্তর জিএসটি কাউন্সিলের বৈঠক হওয়ার কথা। কিন্তু ২০২০ সালের অক্টোবরে শেষবার এই বৈঠক হয়েছিল। তার পর থেকে গত ছ’মাস এই বৈঠক করেনি কেন্দ্র।

Loading videos...

বৃহস্পতিবারই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর উদ্দেশে চিঠি পাঠিয়েছেন অমিত। তিনি লিখেছেন, ২০২০-র ৫ অক্টোবর শেষ এই বৈঠক হয়েছিল। তার পর থেকে এখনও পর্যন্ত জিএসটি কাউন্সিলের কোনো বৈঠক হয়নি। এই ঘটনাকে যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামোর পরিপন্থী হিসেবেই উল্লেখ করেছেন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী।

তিনি চিঠিতে স্পষ্ট করেই সংবিধানের ২৭৯এ এবং ২৭৯এ (৮) অনুচ্ছেদের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন। জানিয়েছেন, “প্রতিটি অর্থবর্ষে অন্তত ত্রৈমাসিক সময়কালে এক বার করে বৈঠকে বসবে পরিষদ”। অবিলম্বে জিএসটি কাউন্সিলের ভার্চুয়াল বৈঠক ডাকার অনুরোধ করে তিনি জানিয়েছেন, তা না করলে সেটা যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামোর নীতিবরুদ্ধ।

অমিত লিখেছেন, রাজ্যগুলির প্রাপ্য জিএসটি ক্ষতিপূরণ খাতে ঘাটতি চলতি অর্থবর্ষে ১.৫৬ লক্ষ কোটি অনুমান করা হয়েছিল। তবে করোনা সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউয়ে তা আরও বেড়ে গিয়েছে। চিঠির শেষাংশে তিনি উল্লেখ করেছেন, রাজ্যগুলির উদ্বেগজনক আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে অবশ্যই আলোচনা হওয়া উচিত।

আরও পড়তে পারেন: DigiLocker: কী এই ডিজিলকার এবং এটা কী কাজে লাগে? সম্পর্কিত প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর জানুন

Continue Reading

দেশ

দু’ দিন বিরতি দিয়ে পেট্রোল-ডিজেলের দাম আবার বাড়ল

রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছে গেল জ্বালানি তেলের দাম।

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সপ্তাহান্তে দু’ দিন দাম বৃদ্ধি বন্ধ ছিল। কাজের দিন দিয়ে সপ্তাহ শুরু হতেই ফের বাড়ল জ্বালানি তেলের দাম।

গত সপ্তাহে মঙ্গলবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত টানা বেড়ে গিয়েছে পেট্রোল-ডিজেলের দাম। তার পর শনি ও রবিবার দামবৃদ্ধিতে থাকদমা ছিল। ফের সোমবার আবার বাড়ল। তবে এ দিনের বৃদ্ধি খুব একটা বেশি না হলেও রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছে গেল জ্বালানি তেলের দাম।

Loading videos...

চার মেট্রো শহরে কত হল জ্বালানি তেলের দাম –

কলকাতা

পেট্রোল প্রতি লিটার ৯১.৬৬ টাকা

ডিজেল প্রতি লিটার ৮৪.৯০ টাকা

দিল্লি

পেট্রোল প্রতি লিটার ৯১.৫৩ টাকা

ডিজেল প্রতি লিটার ৮২.০৬ টাকা

মুম্বই

পেট্রোল প্রতি লিটার ৯৭.৮৬ টাকা

ডিজেল প্রতি লিটার ৮৯.১৭ টাকা

চেন্নাই

পেট্রোল প্রতি লিটার ৯৩.৩৮ টাকা

ডিজেল প্রতি লিটার ৮৬.৯৬ টাকা

দিন কয়েক আগে রাজস্থান ও মধ্যপ্রদেশের কিছু জায়গায় পেট্রোলের দাম লিটারপ্রতি ১০০ টাকা পেরিয়ে গিয়েছিল। এই তালিকায় যুক্ত হল মহারাষ্ট্রের পরভানি। সেখানে পেট্রোলের দাম দাঁড়িয়েছে ১০০.২০ টাকা। দেশের মধ্যে পেট্রোলের সর্বোচ্চ দর চলছে রাজস্থানের শ্রীগঙ্গানগর জেলায়। সেখানে পেট্রোলের দাম এখন লিটারপ্রতি ১০২.৪২ টাকা। এর পরেই রয়েছে মধ্যপ্রদেশের অনুপপুর। সেখানে পেট্রোলের দাম লিটারপ্রতি ১০২.১২ টাকা।

আরও পড়ুন: Corona Update: একাধিক রাজ্যে সংক্রমণ কমার জের, দেশে দৈনিক সংক্রমণে ব্যাপক পতন, বাড়ল সুস্থতার হার

Continue Reading

শিল্প-বাণিজ্য

Bandhan Bank: ব্যবসা বৃদ্ধি বন্ধন ব্যাঙ্কের

শেষ ত্রৈমাসিকে ব্যাঙ্কের নেট লাভ ১০৩ কোটি টাকা। পুরো ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষের জন্য নেট লাভ ২২০৫ কোটি টাকা।

Published

on

Bandhan Bank

খবর অনলাইন ডেস্ক: দেশের অন্যতম বেসরকারি ব্যাঙ্ক, বন্ধন ব্যাঙ্ক ৩১ মার্চ, ২০২১-এ শেষ হওয়া ত্রৈমাসিক এবং আর্থিক বর্ষের ফলাফল প্রকাশ করেছে। ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষের শেষে ব্যাঙ্কের মোট ব্যবসা (আমানত এবং অগ্রিম) ২৮% বৃদ্ধি পেয়ে ১.৬৫ লক্ষ কোটি টাকা হয়েছে।

চালু হওয়ার ষষ্ঠ বছরে থাকা এই ব্যাঙ্ক ১১৪৯ শাখা এবং ৫৩৭১টি আউটলেটের মাধ্যমে ২.৩৭ গ্রাহককে পরিষেবা দিচ্ছে (৩০ এপ্রিল, ২০২১-এর হিসাব অনুযায়ী)। ৩১ মার্চ, ২০২১ পর্যন্ত বন্ধন ব্যাঙ্কের মোট কর্মী সংখ্যা ৪৯,৪৪৫।

Loading videos...

গত এক বছরে অর্থনীতি ক্রমশ ঘুরে দাঁড়ানোর ফলে ব্যাঙ্কের আমানত আগের বছরের এই ত্রৈমাসিকের তুলনায় ৩৭% বৃদ্ধি পেয়েছে। মোট আমানত এখন ৭৭,৯৭২ কোটি টাকা। গত অর্থবর্ষের তুলনায় কাসা (কারেন্ট অ্যাকাউন্ট সেভিংস অ্যাকাউন্ট) আমানত ৬১% হারে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং মোট আমানতের মধ্যে এখন কাসা অনুপাত হল ৪৩.৪%।

আগের বছরের এই ত্রৈমাসিকের তুলনায় ব্যাঙ্কের অগ্রিম বৃদ্ধি পেয়েছে ২১%। এখন মোট অগ্রিমের পরিমাণ ৮৭,০৫৪ কোটি টাকা। ব্যাঙ্কের স্থিতিশীলতার সূচক ক্যাপিটাল অ্যাডেকোয়েসি রেশিও (সিএআর) এখন ২৩.৫%, যা প্রয়োজনীয় পরিমাণের চেয়ে বেশি।

৩১ মার্চ, ২০২১-এ শেষ হওয়া ত্রৈমাসিকে ব্যাঙ্কের নেট লাভ ১০৩ কোটি টাকা। পুরো ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষের জন্য নেট লাভ ২২০৫ কোটি টাকা।

এই ফলাফল নিয়ে বন্ধন ব্যাঙ্কের এমডি এবং সিইও চন্দ্রশেখর ঘোষ বলেন, “গত এক বছরে অর্থনীতি ক্রমশ ঘুরে দাঁড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে আমরা চতুর্থ কোয়ার্টারে এবং ২০২০-২১ আর্থিক বর্ষে ব্যবসার ভালো উন্নতি দেখতে পেয়েছি। দেশ একটা কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। এই সময় আমরা আমাদের মূল্যবান গ্রাহকদের যতরকম ভাবে সম্ভব সাহায্য করতে বদ্ধপরিকর। বন্ধন ব্যাঙ্কের উপর বিশ্বাস রেখে যাওয়ার জন্য আমরা তাঁদের ধন্যবাদ জানাই।”

আরও পড়তে পারেন: জীবন বিমা পলিসি কত রকমের হয়? কেনার সময় নিজের প্রয়োজনীয়তার কথা মাথায় রাখুন

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
দেশ15 mins ago

অমিত শাহকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না? দিল্লি পুলিশে ‘নিখোঁজ ডায়েরি’

ক্রিকেট1 hour ago

ভারতের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে হার কেন? অদ্ভুত যুক্তি দিলেন টিম পেইন

মুর্শিদাবাদ1 hour ago

অনাস্থার আগেই মুর্শিদাবাদের জেলা সভাধিপতির পদ থেকে পদত্যাগ শুভেন্দু-ঘনিষ্ঠর

রাজ্য2 hours ago

কোভিডে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত মরণোত্তর দেহ ও অঙ্গদান আন্দোলনের পথিকৃৎ ব্রজ রায়

Coronavirus Delhi
দেশ2 hours ago

Coronavirus Second Wave: সংক্রমণের হার ১৪ শতাংশে, সংক্রমণ নামল ১০ হাজারে, অভাবী রাজ্যগুলিকে অক্সিজেন দিয়ে সাহায্য করতে চায় দিল্লি

delhi pollution
পরিবেশ2 hours ago

পরিবেশগত ভাবে সব থেকে ঝুঁকিপূর্ণ বিশ্বের ২০ শহরের মধ্যে ১৩টি ভারতে

ধর্মকর্ম3 hours ago

Religious Places in Bengal: কালীক্ষেত্র কালীঘাট

দেশ4 hours ago

Corona Lockdown: বিহারে লকডাউনের মেয়াদ বেড়ে ২৫ মে, ঘোষণা নীতীশ কুমারের

Madhyamik examination west bengal
শিক্ষা ও কেরিয়ার2 days ago

Madhyamik 2021: আপাতত সম্ভব নয় মাধ্যমিক পরীক্ষা, সরকারের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় পর্ষদ

বিজ্ঞান2 days ago

জানেন কি, কোভিড থেকে সুস্থ হওয়ার পর অ্যান্টিবডিগুলি কত দিন পর্যন্ত রক্তে থেকে যায়

দেশ2 days ago

Covid Crisis: সংক্রমণের ধার কমাতে একটি বিশেষ ওষুধে ছাড়পত্র দিল গোয়া, খেতে হবে সবাইকে

বিজ্ঞান2 days ago

রক্তের গ্রুপের উপর কি কোভিড আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে, গবেষণায় জানাল সিএসআইআর

প্রযুক্তি2 days ago

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কোভিড অ্যাপ, সহজে জানা যাবে যাবতীয় তথ্য

শরীরস্বাস্থ্য1 day ago

করোনার এই দুঃসহ সময়ে অক্সিজেন বিপর্যয়ের সহজ সমাধান দিলেন বিজ্ঞানী ড. বিজন কুমার শীল

দেশ2 days ago

Corona Update: দৈনিক সংক্রমণকে ছাপিয়ে গেল সুস্থতা, দু’মাস ধরে টানা বৃদ্ধির পর অবশেষে কমল সক্রিয় রোগী

বিনোদন2 days ago

‘রাধে’র বক্স অফিস কালেশন হতো ‘জিরো’, হল মালিকদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী সলমন খান

ভিডিও

কেনাকাটা

কেনাকাটা2 months ago

বাজেট কম? তা হলে ৮ হাজার টাকার নীচে এই ৫টি স্মার্টফোন দেখতে পারেন

আট হাজার টাকার মধ্যেই দেখে নিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু ফিচারের স্মার্টফোনগুলি।

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজোর পোশাক, ছোটোদের জন্য কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সরস্বতী পুজোয় প্রায় সব ছোটো ছেলেমেয়েই হলুদ লাল ও অন্যান্য রঙের শাড়ি, পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে। তাই ছোটোদের জন্য...

কেনাকাটা3 months ago

সরস্বতী পুজো স্পেশাল হলুদ শাড়ির নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই সরস্বতী পুজো। এই দিন বয়স নির্বিশেষে সবাই হলুদ রঙের পোশাকের প্রতি বেশি আকর্ষিত হয়। তাই হলুদ রঙের...

কেনাকাটা4 months ago

বাসন্তী রঙের পোশাক খুঁজছেন?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সামনেই আসছে সরস্বতী পুজো। সেই দিন হলুদ বা বাসন্তী রঙের পোশাক পরার একটা চল রয়েছে অনেকের মধ্যেই। ওই...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরদোরের মেকওভার করতে চান? এগুলি খুবই উপযুক্ত

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘরদোর সব একঘেয়ে লাগছে? মেকওভার করুন সাধ্যের মধ্যে। নাগালের মধ্যে থাকা কয়েকটি আইটেম রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার...

কেনাকাটা4 months ago

সিলিকন প্রোডাক্ট রোজের ব্যবহারের জন্য খুবই সুবিধেজনক

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী এখন সিলিকনের। এগুলির ব্যবহার যেমন সুবিধের তেমনই পরিষ্কার করাও সহজ। তেমনই কয়েকটি কাজের সামগ্রীর খোঁজ...

কেনাকাটা4 months ago

আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজ রইল আরও কয়েকটি ব্র্যান্ডেড মেকআপ সামগ্রী ৯৯ টাকার মধ্যে অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন লেখার সময় যে দাম ছিল...

কেনাকাটা4 months ago

রান্নাঘরের এই সামগ্রীগুলি কি আপনার সংগ্রহে আছে?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরে বাসনপত্রের এমন অনেক সুবিধেজনক কালেকশন আছে যেগুলি থাকলে কাজ অনেক সহজ হয়ে যেতে পারে। এমনকি দেখতেও সুন্দর।...

কেনাকাটা4 months ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা4 months ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

নজরে