নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী যখন সম্পূর্ণ নগদহীন অর্থনীতির পক্ষে সওয়াল করে চলেছেন, তখন তাঁর উল্টোপথে হাঁটলেন অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। বৃহস্পতিবার তিনি স্পষ্টই জানালেন, নগদহীন অর্থনীতি কখনোই নগদে লেনদেনের সম্পূর্ণ বিকল্প হতে পারে না। নগদে লেনদেন আর নগদহীন অর্থনীতি, দুটি ব্যবস্থাই সমান্তরাল পথে চলবে।

অর্থ মন্ত্রকের অন্তর্গত পরামর্শদায়ক কমিটির মিটিং-এ জেটলি এ দিন বলেন, “নগদহীন ব্যবস্থা হচ্ছে আসলে কম নগদের অর্থনীতি, কারণ কোনো অর্থনীতিই সম্পূর্ণ ভাবে নগদহীন হতে পারে না।”  জেটলি এ দিন বলেন, কেন্দ্র আর রিজার্ভ ব্যাঙ্ক চেষ্টা করছে কী ভাবে ডিজিটাল লেনদেনের খরচা আরও কমানো যায়। তবে প্রধানমন্ত্রী নগদহীন অর্থনীতির বার্তা সাধারণ মানুষ স্বাগত জানিয়েছেন বলে জানান অর্থমন্ত্রী। নগদহীন ব্যবস্থায় সাইবার নিরাপত্তাজনিত কিছু সমস্যা দেখা যেতে পারে, সে প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, সাইবার নিরাপত্তা আরও আঁটোসাঁটো করার ব্যাপারে পদক্ষেপ নিচ্ছে কেন্দ্র।     

অন্য দিকে নোট বাতিল ইস্যুতে ফের একবার কেন্দ্রকে ভর্ৎসনা করল শীর্ষ আদালত। কী ভাবে কিছু লোকের থেকে নতুন নোটে বেশি টাকা উদ্ধার হচ্ছে যখন দেশের অধিকাংশ মানুষ ২৪ হাজার টাকা পর্যন্ত তুলতে পারছেন না, সে ব্যাপারে কেন্দ্রকে প্রশ্ন করে প্রধান বিচারপতি টিএস ঠাকুরের নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ।

শীর্ষ আদালতের এই প্রশ্নের উত্তরে কেন্দ্রের অ্যাটর্নি জেনারেল মুকুল রোহতগি জানান, কিছু কিছু ব্যাঙ্কের ম্যানেজার মুষ্টিমেয় কিছু মানুষের হাতে বেআইনি ভাবে বেশি পরিমাণে টাকা তুলে দিচ্ছেন। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলেও জানান অ্যাটর্নি জেনারেল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here