বেজিং: দলাই লামা অরুণাচল সফরে গেলে ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে ব্যাপক প্রভাব পড়বে, এই বলে আগেই সতর্ক করেছিল চিন। সেই কথামতো এ বার একতরফা ভাবে অরুণাচল প্রদেশের কয়েকটি জায়গার নাম বদলে ফেলল তারা। সেই সঙ্গে অরুণাচল প্রদেশকে তারা ‘দক্ষিণ তিব্বত’ নামে অভিহিত করেছে।

এই নামকরণের ফলে তারা ভারতকে বুঝিয়ে দিতে চায়, যে দক্ষিণ তিব্বত অর্থাৎ অরুণাচল প্রদেশ চিনেরই অংশ, এবং ভারত সেই অঞ্চলটি বেআইনি ভাবে দখল করে রেখেছে, এমনই দাবি করেছে চিনা রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম। তাদের দাবি, “১৪ এপ্রিল দক্ষিণ তিব্বতের (অরুণাচল) ছ’টি জায়গার নতুন নাম রেখেছে চিনের গৃহমন্ত্রক। এই জায়গাগুলি আদতে চিনের অংশ, কিন্তু ভারত বেআইনি ভাবে নিজেদের দখলে রেখেছে।”

চিনের তরফ থেকে যে নামগুলি রাখা হয়েছে তা হল, ও’গিয়াইংলিং, মিলা রি, কোইদ এনগার্বো, মাইনকুকা, বি মোলা এবং নামকাপাব রি।

উল্লেখ্য, গত ১২ এপ্রিল অরুণাচল সফর শেষ করেন দলাই। তাঁর সফর চলাকালীন ভারতকে সতর্ক করে চিন জানিয়েছিল, “নিজেদের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।” চিনকে আরও ক্ষিপ্ত করে তোলে অরুণাচলের মুখ্যমন্ত্রী পেমা খান্দুর একটি বক্তব্য, যেখানে তিনি বলেছিলেন, “চিন নয়, অরুণাচলের সীমানা তিব্বতের সঙ্গে।” কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী তথা অরুণাচলজাত কিরেন রিজিজু বলেন, “অরুণাচল ভারতের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ, ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে চিনের মাথা গলানোর কোনো দরকার নেই।”

এর প্রত্যুত্তরে চিনের গণমাধ্যমটি বলেছে, অরুণাচল প্রদেশকে কখনও সরকারি স্বীকৃতি দেয়নি চিন সরকার।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here