ওয়েবডেস্ক: সব মিলিয়ে প্রায় ৩ হাজার কেজি কঠিন বর্জ্য উদ্ধার হল এভারেস্ট শৃঙ্গের সাফাইয়ে। রীতিমতো আবর্জনার স্তূপে পরিণত হওয়া এভারেস্ট শৃঙ্গের এই সাফাই অভিযানের উদ্যোক্তা নেপাল। এপ্রিল মাসে শুরু হওয়া এই সাফাই অভিযানের মেয়াদ ৪৫ দিন।

গত ১৪ এপ্রিল নেপালের সোলুখুম্বু জেলার খুম্বু পাসাংলেহমু পুরসভার উদ্যোগে এই অভিযান শুরু হয়। এই দীর্ঘ সময়ে ১০ হাজার কেজি আবর্জনা উদ্ধারের লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হলেও কয়েক দিনের মধ্যেই ৩ হাজার কেজি আবর্জনা উদ্ধারে সফল হয়েছে পুরসভা।

নেপালের পর্যটন বিভাগের ডিরেক্টর জেনারেল দান্ডুরাজ ঘিমিরে সাংবাদিক বৈঠকে জানান, ইতিমধ্যেই সব মিলিয়ে ৩ হাজার কেজি আবর্জনা সংগ্রহ করা হয়েছে। এর মধ্যে ২ হাজার কেজি আবর্জনা পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে ওখালদুঙ্গায়। বাকি ১ হাজার কেজি কাঠমাণ্ডুতে নিয়ে আসা হয়েছে। কী রয়েছে সেই আবর্জনার তালিকায়?

উত্তরটা হতে পারত- কী নেই সেই আবর্জনার তালিকায়? সেখানে পাওয়া গিয়েছে মানুষের ব্যবহৃত যে কোনো ধরনের সামগ্রীর অংশবিশেষ। আবার প্রচুর অক্সিজেন সিলিন্ডার, অভুক্ত, ফেলে দেওয়া খাবারের প্যাকেট, বিয়ারের বোতল, মানবদেহের বর্জ্য, কোনো কিছুরই অভাব নেই হিমালয়ের উপর ওই আবর্জনার পাহাড়ে।

এ ব্যাপারে অবশ্য ঘিমিরে জানিয়েছেন, “আবর্জনার তালিকায় কী রয়েছে, সেটা বড়ো কথা নয়। কারণ,
যাই পাওয়া যাক না কেন, সমস্ত কিছুই আমরা সাফাই করব৷ এভারেস্ট শৃঙ্গ বিশ্বের মুকুটের মতো৷ সেটাকে স্বচ্ছ এবং শুভ্র রাখাই আমাদের কর্তব্য”৷

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here