Connect with us

আলিপুরদুয়ার

জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানে আগুন লাগল কী ভাবে? প্রকাশ্যে চাঞ্চল্যকর তথ্য

Published

on

মাদারিহাট (আলিপুরদুয়ার): সোমবার রাতে যখন আগুন লেগেছিল, তখনই মনে করা হচ্ছিল প্রাকৃতিক কারণে জঙ্গলে আগুন লাগেনি, বরং এটা মানুষই করেছে সে ইচ্ছাকৃত হোক বা অনিচ্ছাকৃত। প্রাথমিক তদন্তের পর সেই অবস্থানেই কিন্তু শিলমোহর পড়েছে।

জানা গিয়েছে, বিড়ির আগুন থেকে এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের সূচনা জলদাপাড়ায়। বন দফতরের আধিকারিকদের অনুমান, সোমবার রাতে তোর্সায় স্নান করতে অথবা মাছ ধরতে গিয়েছিলেন কয়েক জন। তাঁদের জ্বলন্ত বিড়ির অংশ তোর্সার চর সংলগ্ন তৃণভূমিতে পড়েই দাউদাউ আগুন জ্বলে ওঠে।

তবে কার ব্যবহৃত সেই বিড়ি আগুনের উৎস, তা নিয়ে চলছে বিস্তারিত তদন্ত। এ ধরনের অসতর্কতামূলক কাজ বন্ধে বন দফতরকে আরও উদ্যোগী হওয়ার দাবি তুলেছে পরিবেশপ্রেমী মহল।

উল্লেখ্য, সোমবার রাতে দাবানলের কবলে পড়ে উত্তরবঙ্গের জলদাপাড়া জাতীয় অভয়ারণ্যের মালঙ্গি বিট। তোর্সার তৃণভূমি থেকে আগুন লাগে প্রথমটায়। শুষ্ক জলবায়ুতে অরণ্যের শুকনো পাতা এবং খড়কুটোয় তাই আগুন ছড়িয়ে পড়তে বেশি সময় লাগেনি। আগুনের লেলিহান শিখায় আকাশ লাল হয়ে যায়।

আরও পড়ুন করোনাভাইরাসের আশঙ্কায় এ রাজ্যেও বাড়ল নজরদারি

কিছুক্ষণের মধ্যেই ভয়াবহ দাবানলের গ্রাসে চলে যায় ৮ বর্গ কিলোমিটার গভীর জঙ্গল। তবে মঙ্গলবার সকালেই আগুন নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। স্বস্তির খবর এই যে গণ্ডার, বাইসন, হাতির মতো বড়ো বন্যপ্রাণের প্রাণহানি হয়নি। তবে ছোটো প্রাণী কারও কারও মৃত্যু হতেও পারে।

তবে ভবিষ্যতে এই ধরনের অসতর্কতামূলক কাজ যাতে না হয়, সে কারণে বন দফতরকে আরও সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন পরিবেশপ্রেমীরা।

আলিপুরদুয়ার

এই প্রথম আলিপুরদুয়ার পুরভোটে জোট বাম-কংগ্রেসের

আলিপুরদুয়ার পুরভোটে এই প্রথম জোটবদ্ধ হয়ে লড়াইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেস।

Published

on

ওয়েবডেস্ক: চলতি বছরের শুরুর দিকেই জোট সম্ভাবনা প্রবল হয়ে উঠেছিল। সেই সম্ভাবনার রেশ ধরেই আসন্ন আলিপুরদুয়ার পুরভোটে বাম-কংগ্রেসের আসন সমঝোতাও পাকা হয়ে গেল।

২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে আলিপুরদুয়ার পুরসভার (Alipurduar Municipality) নির্বাচিত বোর্ডের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত নির্বাচন হয়নি। মেয়াদ শেষের তিন-চার মাসের মধ্যেই এই নির্বাচন হয়ে যাওয়ার কথা থাকলেও করোনাভাইরাস লকডাউন-সহ একাধিক কারণে তা থমকে যায়। তবে ফের প্রস্তুতি তুঙ্গে।

আসন সমঝোতা

আলিপুরদুয়ার পুরভোটে এই প্রথম জোটবদ্ধ হয়ে লড়াইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেস। সোমবার আলিপুরদুয়ার টাউনের বাবুপাড়ায় সিপিএমের দলীয় কার্যালয়ে একটি যৌথ সাংবাদিক বৈঠক করে জোট।

জোটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্থির হয়েছে, ২০ আসনের পুরসভায় সিপিএম (CPIM) লড়ূবে সাতটিতে, আরএসপি (RSP) পাঁচটিতে, সিপিআই (CPI) একটিতে এবং বাকি সাতটিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন কংগ্রেস (Congress) প্রার্থী।

সিপিএম– ওয়ার্ড নম্বর ১,৩,৪,১৩,১৬,১৭ এবং ১৮।

আরএসপি-ওয়ার্ড নম্বর ৫,৬,৭,১০ এবং ১১।

সিপিআই– ওয়ার্ড নম্বর ৮।

কংগ্রেস– ওয়ার্ড নম্বর ২,৯,১২,১৪,১৫,১৯ এবং ২০।

বোর্ড গঠনের প্রত্যাশা

আসন সমঝোতার পর কংগ্রেস নেতৃত্ব বলেন, “এর আগেই আমরা স্থির করেছিলাম, এ বারের পুরভোটে বামফ্রন্ট-কংগ্রেস জোটবদ্ধ হয়ে লড়বে। এখন আসন সমঝোতাও হয়ে গেল। আমরা আশাবাদী, আগামী পুরবোর্ড বামফ্রন্ট-কংগ্রেস জোটই গঠন করবে”।

অন্য দিকে সিপিএম নেতৃত্ব দাবি করেন, “আলিপুরদুয়ারের সাধারণ মানুষ আশা করেন, তাঁদের চাহিদা পূরণ করতে পারে একমাত্র আমাদের এই জোট। এটা শুধুমাত্র আসন সমঝোতা নয়, তার থেকেও বেশি কিছু”।

শেষ ভোটের পর…

শেষবার আলিপুরদুয়ার পুরসভায় নির্বাচন হয়েছে ২০১৩ সালে। যে নির্বাচনে লড়াই ছিল মূলত ত্রিমুখী। বাম, কংগ্রেস ও তৃণমূলের মধ্যে। নির্বাচনের ফল প্রকাশের পর দেখা যায়, মোট ২০টি ওয়ার্ডের মধ্যে বামেরা আটটিতে এবং কংগ্রেস ও তৃণমূল ৬টি করে ওয়ার্ডে জয়লাভ করে। বোর্ড গঠনের দিন কংগ্রেস কাউন্সিলররা অনুপস্থিত ছিলেন। ফলে সংখ্যাগরিষ্ঠতার বিচারে আলিপুরদুয়ারে পুরবোর্ড গঠন করে বামেরা। কিন্তু এক বছরের মধ্যেই কংগ্রেস কাউন্সিলররা দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন। ফলে এই পুরসভা তৃণমূলের দখলে চলে যায়।

Continue Reading

আলিপুরদুয়ার

বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পে আসছে তিনটে বাঘ

Published

on

আলিপুরদুয়ার: বক্সা ব্যাঘ্র প্রকল্পে (Buxa Tiger Reserve) তিনটে বাঘ নিয়ে আসা হচ্ছে। এর জন্য ১২ কোটি টাকা মঞ্জুর করেছে ন্যাশনাল টাইগার কনজারভেশন অথরিটি (NTCA)।

অসম থেকে বক্সায় বাঘ নিয়ে আসার ব্যাপারটি কয়েক মাস আগেই ঠিক করে ফেলেছিল বন দফতর। প্রতিবেশী রাজ্যের সঙ্গে এই বিষয়ে কথাও বহু দূর এগিয়ে গিয়েছিল। কিন্তু আচমকাই সব কিছুতে বাধ সাধে করোনা।

এরই মধ্যে কেন্দ্রীয় বাঘ সংরক্ষণকারী সংস্থার (এনটিসিএ) পক্ষ থেকে অর্থ মঞ্জুর হয়ে যাওয়ায়, বক্সায় নতুন করে বাঘের দেখা পাওয়াটা এখন শুধুই সময়ের অপেক্ষা।

এনটিসিএ-র নির্দেশিকা মেনে ইতিমধ্যেই বাঘেদের খাবার সুনিশ্চিত করতে বাইরের জঙ্গল থেকে প্রচুর চিতল হরিণ নিয়ে আসা হয়েছে। তাদের খাদ্যের জোগান বাড়াতে তৈরি করা হয়েছে বিস্তীর্ণ তৃণভূমি।

এর পর ছাড়া হবে সম্বর হরিণ। সব মিলিয়ে নতুন অতিথিদের স্বাগত জানাতে বক্সার জঙ্গল প্রায় প্রস্তুত বলে দাবি বন দফতরের।

প্রথম ধাপে এক সঙ্গে ছয়টি বাঘ আনার সবুজ সঙ্কেত দিয়েছিল এনটিসিএ। কিন্তু রাজ্যের বনকর্তারা পরীক্ষামূলক ভাবে তিনটি বাঘ এনেই পরিস্থিতি রেইকি করতে চাইছেন।

এই প্রসঙ্গে রাজ্যের মুখ্য বনপাল রবিকান্ত সিনহা বলেন, “প্রথমেই ছ’ টি বাঘের ঝুঁকি আমরা নিতে চাইছি না। তিনটি বাঘ এনে পরিস্থিতি যাচাই করা হবে। সব ঠিক থাকলে ধাপে ধাপে বাঘের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে।”

Continue Reading

আলিপুরদুয়ার

ফসল বাঁচাতে ফের নৃশংস হাতিনিধন, কেরলের পর এ বার আলিপুরদুয়ারে

Published

on

আলিপুরদুয়ার: নৃশংস ভাবে পূর্ণবয়স্ক একটি গর্ভবতী হাতিকে হত্যা করে কিছু দিন আগেই খবরের শিরোনামে এসেছিল কেরল (Kerala)। এ বার একই রকম ঘটনা ঘটল এ রাজ্যের আলিপুরদুয়ারে (Alipurduar)। বন দফতরের বক্তব্য, তড়িদাহত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তার।

জেলার কুমারগ্রাম ব্লকের কাঞ্চিবাজার এলাকায় মঙ্গলবার সকালে এই হাতিটিকে মৃত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। তার আনুমানিক বয়স ২০ থেকে ২২ বছরের মধ্যে। যাঁর খেতে এই হাতির মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। হাতিটির মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়।

ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে আসার আগে কোনো ভাবেই এটি স্বাভাবিক মৃত্যু বলে মানতে চাননি স্থানীয়রা।

আলিপুরদুয়ার নেচার ক্লাবের সভাপতি অম্লান দত্ত বলেন, “হাতির মৃতদেহটা যে ভাবে পড়ে ছিল, সেটা দেখেই বোঝা যাচ্ছে যে এটা স্বাভাবিক মৃত্যু নয়। বিদ্যুতের শক বা বিষ প্রয়োগ করে ওকে মারা হয়েছে।”

কিছু দিন আগেই বক্সার একটি গ্রামে একই রকম ভাবে পূর্ণবয়স্ক আরও একটি হাতির মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছিল। এক সপ্তাহের মধ্যে দ্বিতীয় বার এমন ঘটনা ঘটল।

বক্সার আশেপাশে গ্রামগুলিতে মানুষ বনাম হাতির লড়াই লেগেই থাকে। হাতিদের আটকানোর জন্য বিদ্যুতের তার দিয়ে ঘিরে রেখে নিজেদের চাষের জমিকে রক্ষা করা হয়। ধৃত ব্যক্তিও ফসল বাঁচানোর জন্য তার চাষের জমিতে বিদ্যুতের তার দিয়ে ঘিরে রাখে। সেখানেই তড়িদাহত হয়ে মারা যায় এই হাতিটি।

Continue Reading
Advertisement
Narendra Modi
দেশ6 hours ago

২০১৫ থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিদেশ সফরে খরচ হয়েছে প্রায় ৫১৮ কোটি টাকা

দেশ7 hours ago

অর্থনীতিতে নতুন হাতছানি বাংলাদেশ-ভারত পণ্যবাহী রেল চলাচল

IPL rajasthan Royals
ক্রিকেট7 hours ago

রানের বন্যা শেষে চেন্নাই-জয় রাজস্থান রয়্যালসের

Sherpa Ang Rita
অ্যাডভেঞ্চার10 hours ago

অক্সিজেন সিলিন্ডার ছাড়াই ১০ বার মাউন্ট এভারেস্ট বিজয়ী আং রিটা প্রয়াত

রাজ্য10 hours ago

পর পর তিন দিন দৈনিক মৃতের সংখ্যা ৬০-এর উপরে, তবে ঊর্ধ্বমুখী সুস্থতার হার

Currency
শিল্প-বাণিজ্য11 hours ago

জল জীবন মিশনের আওতায় ৫০ লক্ষ টাকা জেতার সুযোগ দিচ্ছে কেন্দ্র, তবে উৎরাতে হবে আইসিটি গ্র্যান্ড চ্যালেঞ্জে

কেনাকাটা12 hours ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

দেশ14 hours ago

এ বার আলু, পেঁয়াজ, চাল, ডাল, ভোজ্য তেল অত্যাবশ্যক পণ্য নয়, বিল পাশ রাজ্যসভায়

দেশ21 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৭৫০৮৩, সুস্থ ১০১৪৬৮

দেশ2 days ago

সোমবার থেকে স্কুল খোলা বাধ্যতামূলক নয়, দেখে নিন কোন রাজ্য কী সিদ্ধান্ত নিল

দেশ3 days ago

ব্যথার কারণ খুঁজতে হল এক্স-রে, বন্দির মলদ্বারে হদিশ মিলল চারটি মোবাইলের

coronavirus west bengal
দেশ20 hours ago

এই প্রথম ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ কোভিডরোগীর সংখ্যা এক লক্ষ ছাড়াল

রাজ্য3 days ago

জাতীয় গড়ের তুলনায় রাজ্যে সুস্থতার হার অনেকটাই বেশি, কেন্দ্রের প্রশংসা

mamata banerjee
রাজ্য3 days ago

সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উত্তরবঙ্গ সফর স্থগিত

corona
দেশ2 days ago

৫টি রাজ্যেই মোট সক্রিয় কোভিডরোগীর ৬০ শতাংশ!

coronavirus west bengal
রাজ্য2 days ago

রাজ্যের চার জেলার কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষ ভাবে উদ্বিগ্ন স্বাস্থ্য দফতর

কেনাকাটা

কেনাকাটা12 hours ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা4 days ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা6 days ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা2 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা2 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

কেনাকাটা4 weeks ago

ঘর সাজানোর ও ব্যবহারের জন্য সেরামিকের ১৯টি দারুণ আইটেম, দাম সাধ্যের মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ঘর সাজাতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু তার জন্য বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এ দোকান সে দোকান ঘুরে উপযুক্ত...

কেনাকাটা1 month ago

শোওয়ার ঘরকে আরও আরামদায়ক করবে এই ৮টি সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : সারা দিনের কাজের পরে ঘুমের জায়গাটা পরিপাটি হলে সকল ক্লান্তি দূর হয়ে যায়। সুন্দর মনোরম পরিবেশে...

kitchen kitchen
কেনাকাটা1 month ago

রান্নাঘরের এই ৮টি জিনিস কাজ অনেক সহজ করে দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আজকাল রান্নাঘরের প্রত্যেকটি কাজ সহজ করার জন্য অনেক উন্নত ব্যবস্থা এসে গিয়েছে। তা হলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কষ্ট...

care care
কেনাকাটা1 month ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

নজরে