আসল না কি নকল ক্রিসমাস ট্রি– কোনটা বেশি ভালো?

ওয়েবডেস্ক: আসল না কি নকল গাছ, বড়োদিনের জন্য কোনটা বেশি ভালো? প্রশ্নটি শুনেই আপাতদৃষ্টিতে মনে পড়ে যেতে পারে, নিশ্চয় এর পরিবেশগত প্রভাবের কথা বলা হচ্ছে। তবে বিষয়টা সাধারণ হলেও কয়েকটি পৃথক সমস্যার কথা আলোচনায় চলেই আসে।

প্রথমেই দেখে নেওয়া যেতে পারে নকল ক্রিসমাস ট্রি কী দিয়ে তৈরি হয়? রঙিন কাগজের টুকরো দিয়ে বাড়িতে বসেই ক্রিসমাস ট্রি তৈরি করা যায়। অনেকে করেন। তবে বেশির ভাগই বাজার থেকে রঙিন গাছ কিনে ছোটোদের হাতে তুলে দিতে বেশি স্বস্তি বোধ করেন।

এর প্রধান উপাদান প্লাস্টিক। এগুলি প্লাস্টিক থেকে তৈরি হয় এবং বেশির ভাগই সাধারণত চিনে উৎপাদিত হয়। একটি প্রকৃত গাছের তুলনায় কোনো কৃত্রিম গাছ উৎপাদন করতে যে ধরনের উপাদানগুলি ব্যবহার করা হয়ে থাকে, তা মোটেই পরিবেশের জন্য সুখকর নয়। দিনের পর দিন রাস্তা, সেখান থেকে আবর্জনার স্তূপে অথবা অন্যত্র পড়ে থাকে। এগুলো পুনর্ব্যবহারযোগ্য নয়, তাই বছরের পর বছর ধরে পরিবেশের অঙ্গে ক্ষতের সৃষ্টি করতে অব্যর্থ।

অন্য দিকে আসল গাছগুলির কথা ভাবুন। সেগুলো স্থানীয় নার্শারি অথবা ফেরিওয়ালার কাছ থেকে কেনা যেতে পারে। নিয়মিত পরিচর্যার মাধ্যমে নিজের মতো করেই সেগুলোকে বড়ো করে তোলা যেতে পারে। খোলা জায়গায় হতে পারে। হতে পারে বাড়ির টবে। প্রকৃত গাছগুলো হয়তো একাধিক বছরের বড়োদিনে ব্যবহার করা যেতে পারে।

এটাও প্লাস্টিকের তৈরি। তবে অন্য উদ্ভাবনী

কিন্তু মনে রাখা ভালো, গাছ কাটার ধারণাটা মোটেই পরিবেশ বান্ধব নয়। ফলে আসল গাছ কেটে, তার ডালপালা দিয়ে ক্রিসমাস ট্রি তৈরির চিন্তা ছুড়ে ফেলা উচিত। আমাদের এখানে বেশ কিছু জায়গায় গাছের ডাল ভেঙে রথ সাজানোর রেওয়াজ এমনিতেই রয়েছে। ফলে একই সঙ্গে যদি প্লাস্টিকের হাত থেকে বাঁচতে আসল গাছের ডাল কেটে বড়োদিন উদ্‌যাপন করা হয়, সেটা মোটেই মঙ্গলের হবে না।

তবে ক্রিসমাসের জন্য যদি আপনি আসল গাছ বাড়িতে কিনে নিয়ে আসেন, তা হলে দায়িত্ব কিন্তু অনেকটাই বেড়ে যায়। উৎসব তখন এক দিন বা এক সপ্তাহ নয়, মেয়াদ ক্রমশ বিস্তৃত হতে পারে। স্বাভাবিক ভাবেই আসল গাছ কেনার সময় দীর্ঘ সফরের ব্যাপারে স্থির হতে হবে। গাছটির সমস্ত রকমের পরিচর্যা করে সেটাকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। এ ব্যাপারে একটা মজার বিদেশি উদাহরণ না দিলেই নয়।

সত্যিকারেরর ক্রিসমাস ট্রি!!!!

একটি বিদেশি সমীক্ষা বলেছে, যে পরিবার পর পর পাঁচবছর প্রতিটি বড়োদিনে একটা করে আসল গাছ কিনে উৎসব পালন করেন, কিন্তু পরিচর্যার অভাবে সেগুলি মরে যায়, তাদের থেকে যে পরিবার একটি মাত্র প্লাস্টিকের ক্রিসমাস ট্রি দিয়ে উৎসব উদ্‌যাপন করে সেটিকে পরের বছরের জন্য সযত্নে তুলে রেখে দেন, তাঁরাই বেশি পরিবেশ-বান্ধব পদ্ধতি নিয়েছেন।

অর্থাৎ, আসল গাছটি পুনর্ব্যবহার করা জরুরি, যাতে সেটা অচিরেই মৃত্যুমুখে না পড়ে। আবার আপনি এমন কিছু গাছকে ক্রিসমাস ট্রি হিসাবে ব্যবহার করতে পারেন, যা একবর্ষজীবী। ছোট্ট টবে রাখা যায়। শীতের সময় কিছু মরশুমি ফুলের গাছকে ট্রাই করে দেখা যেতে পারে। যদিও যাই করা হোক না কেন, আপনাকে সেগুলির যত্ন ভালো ভাবেই নিতে হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.