Connect with us

পরিবেশ

বিষবাষ্পে জেরবার দিল্লি, ফের স্কুল বন্ধের নির্দেশ

toxic smog in delhi

ওয়েবডেস্ক: বিষ-ধোঁয়াশায় আবার ঢেকে যাচ্ছে রাজধানী দিল্লির আকাশ। বায়ুদূষণে ফের জেরবার হচ্ছে দিল্লি। তাই আগামী ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত রাজ্যের সমস্ত স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছ সুপ্রিম কোর্টের প্যানেল।

সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত দূষণরোধী কর্তৃপক্ষ ‘এনভায়রনমেন্ট পলিউশন (প্রিভেনশন অ্যান্ড কনট্রোল) অথরিটি’ (ইপিসিএ) বুধবার এক নির্দেশনামা জারি করে বলেছে, শহরে দূষণের মাত্রা ‘জরুরি অবস্থা’র স্তরে পৌঁছে যাওয়ায় শুক্রবার ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত দিল্লি-এনসিআর-এ (ন্যাশনাল ক্যাপিটাল রিজিয়ন) সমস্ত স্কুল বন্ধ রাখতে হবে।

বাইরে না বেরিয়ে যতটা সম্ভব বাড়ি থেকে কাজ করার জন্য্য রাজধানীর বাসিন্দাদেরও পরামর্শ দিয়েছে ইপিসিএ।

সরকারি এবং বেসরকারি, দু’ ধরনের স্কুলই আগামী দু’ দিন বন্ধ রাখার জন্য দিল্লির শিক্ষা অধিকর্তাও নির্দেশ জারি করেছেন।

আরও পড়ুন: উত্তর ভারত থেকে নামছে বিষ-ধোঁয়াশা, কলকাতা-সহ গোটা রাজ্যে ফের দূষণ সতর্কতা

বুধবার সকাল সাড়ে ১১টায় দিল্লিতে বাতাসের মান সংক্রান্ত সূচক (একিউআই) ছিল ৪৫৪। এই একিউআই ‘অত্যন্ত খারাপ অবস্থা’ বলে চিহ্নিত। সাধারণ ভাবে একিউআই ২০০ পেরিয়ে গেলেই তা বিপজ্জনক বলে চিহ্নিত হয়, মানুষের শরীরে তার প্রভাব পড়ে।

সকালে বিষবাষ্পে পুরো ছেয়ে গিয়েছিল দিল্লি। সব চেয়ে দূষিত এলাকা ছিল জাহাঙ্গিরপুরী এবং রোহিণী এলাকা – এই দুই এলাকায় একিউআই ছিল ৪৮৩। এর পরেই ছিল মুন্দকা ও বাওয়ানা (৪৭৯)।

সাংঘাতিক ভাবে দূষিত এলাকাগুলির মধ্যে ছিল নয়ডা (৪৬৯), গাজিয়াবাদ (৪৬৮), গ্রেটার নয়ডা (৪৫৯), গুরগাঁও (৪৫০) এবং ফরিদাবাদ (৪৩৬)।

বাতাসের মান নজরদারি সংক্রান্ত সরকারি সংস্থা ‘সফর’ জানিয়েছে, ১৬ নভেম্বর থেকে দিল্লির অবস্থা কিঞ্চিৎ ভালো হতে পারে। আশা করা যায়, সে দিন থেকে একিউআই ‘অত্যন্ত খারাপ অবস্থা’ থেকে ‘খুব খারাপ অবস্থা’য় পৌঁছোতে পারে।

পরিবেশ

একুশ শতকে প্রথম মুক্ত অবস্থায় ঘুরে বেড়াতে দেখা গেল সোনালি বাঘকে

ওয়েবডেস্ক : অসমের কাজিরাঙা অভয়ারণ্যে দেখা মিলল ‘গোল্ডেন টাইগার’ বা ‘সোনালি বাঘ’-এর। একুশ শতকে এই প্রথম মুক্ত অবস্থা ঘুরে বেড়াতে দেখা গেল সোনালি বাঘকে।

রয়েল বেঙ্গল টাইগারের সঙ্গে সাদৃশ্য থাকলেও গায়ের রঙ একেবারেই আলাদা। হলদে নয়, গায়ের রঙে রয়েছে সোনালি আভা আর রয়েছে লালচে খয়েরি ডোরাকাটা দাগ।

সোনালি বাঘের ছবি

বাঘটির ছবি টুইটারে শেয়ার করেছেন আইএফএস অফিসার প্রবীণ কাসওয়ান। তিনি লিখেছে, ‘‘ আপনি কি জানেন আমাদের দেশে সোনালি বাঘও আছে। ২১ শতকে দেখা পাওয়া একমাত্র এই প্রজাতির ‘বিগ ক্যাট’’’।

তিনি জানিয়েছেন, ছবিটি তুলেছেন, ওয়াইল্ড লাইফ ফটোগ্রাফার ময়ূরেশ হেন্ড্রে।

ওই বন আধিকারিক আরও জানিয়েছেন, এই প্রজাতির কয়েকটি বাঘকে চিড়িয়াখানায় দেখা যায়। এই শতকে এখনও পর্যন্ত জঙ্গলে এর দেখা মেলেনি। এই প্রথম মুক্তস্থানে সোনালি বাঘকে ঘুরে বেড়াতে দেখা গেল।

Continue Reading

পরিবেশ

পর্যটকদের গুলিতে মরার জন্য সাউথ আফ্রিকায় ১২ হাজার সিংহ প্রতিপালিত হচ্ছে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সাউথ আফ্রিকার পর্যটনশিল্প নিয়ে এক মর্মান্তিক ঘটনা প্রকাশ করলেন বিখ্যাত ব্যবসায়ী ও মানবদরদী লর্ড অ্যাশক্রফট্‌। শুধুমাত্র পর্যটকরা গুলি করে মারবে বলে কী ভাবে ১২ হাজার সিংহকে সেখানে প্রতিপালন করা হচ্ছে, সে ঘটনাই তাঁর বই এবং তাঁর ফিল্মে প্রকাশ করেছেন তিনি।

‘ল্যাড বাইবেল’-এর এক রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে, হাড় নিয়ে ব্যবসা করা বা শিকার করে ট্রফি জেতার উদ্দেশ্যে হত্যা করার জন্য দক্ষিণ আফ্রিকায় (South Africa) কী ভাবে এই প্রাণী বড়ো করা হয়, লর্ড অ্যাশক্রফট্‌ (Lord Ashcroft) তাঁর বই ‘আনফেয়ার গেম: অ্যান এক্সপোজ অব সাউথ আফ্রিকা’স ক্যাপটিভ-ব্রেড লায়ন ইন্ডাস্ট্রি’-তে (Unfair Game: An Expose Of South Africa’s Captive-bred Lion Industry) তা প্রকাশ করে দিয়েছেন।

ওই বইয়ের অংশবিশেষ প্রকাশ করেছে দ্য ডেলি মেল। ওই বইয়ে মানবদরদী অ্যাশক্রফট্‌ বর্ণনা করেছেন, কী ভাবে বন্দি অবস্থায় প্রতিপালিত সিংহগুলির অপব্যবহার করা হয় দক্ষিণ আফ্রিকায়।

“প্রতি বছর হাজার হাজার সিংহ খামারে প্রতিপালন করা হয়। জন্মের দু’ এক দিনের মধ্যেই সিংহশাবকগুলোকে তাদের মায়ের কাছ থেকে কেড়ে নেওয়া হয়। আর তাদের পর্যটন শিল্পে বোড়ে হিসাবে ব্যবহার করা হয়। তার পর ‘শিকারের’ নামে হত্যা করা হয় অথবা তাদের হাড় ও শরীরের নানা অংশের জন্য কেটে ফেলা হয়। এশিয়ার তথাকথিত ওষুধ-বাজারে সিংহের হাড় আর শরীরের অংশের নাকি ব্যাপক চাহিদা। যত দিন তারা বেঁচে থাকে তত দিন তাদের খুব কম খাবারদাবার দেওয়া হয়, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে গাদাগাদি করে রেখে দেওয়া হয় আর খদ্দেরদের খুশি করতে না পারলে বেধড়ক মারধর করা হয়” – তাঁর বইয়ে লিখছেন অ্যাশক্রফট্‌।

বইয়ে আরও লেখা হয়েছে, “দক্ষিণ আফ্রিকায় সকলের চোখের সামনেই এই নোংরা ব্যবসাটি ক্রমশ ছড়িয়ে পড়েছে। পশুজগতের এই রাজকীয় প্রাণীটির উপর যে কী পরিমাণ অত্যাচার চলছে তা কল্পনা করা যায় না।”

‘অপারেশন সিমবা’ (Operation Simba) ও ‘অপারেশন চ্যাসটাইজ’ (Operation Chastise) নামে দু’টি অভিযান গোপনে দু’ বছর ধরে চালিয়ে এই জঘন্য ঘটনা প্রকাশ্যে আনতে পেরেছেন লর্ড অ্যাশক্রফট্‌।

অভিযান চলাকালীন অ্যাশক্রফটের টিম দেখেছে কী ভাবে সিংহশাবকগুলোকে বড়ো করা হয় এবং কী ভাবে হত্যা করা হয়।

একটি ভিডিও-তে দেখা গিয়েছে, কী ভাবে একজন লজ-মালিক একটা গাছে বসা সিংহীকে হত্যা করল এবং তার পর যন্ত্রণায় ছটফট করা আরও একটি সিংহীকে মেরে ফেলল।

লর্ড অ্যাশক্রফট্‌ দাবি করেছেন, সাউথ আফ্রিকায় যে ভাবে ‘লায়ন ফার্মিং’ চলে তাতে যে কোনো মুহূর্তে করোনাভাইরাসের মতো আরও একটি অতিমারি ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

Continue Reading

দেশ

গিরের সিংহ নিয়ে ‘দু’টি খুব ভালো খবর’ শেয়ার করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: গির অরণ্যে (Gir Forest) সিংহের সংখ্যা বেড়েছে। বেড়েছে তাদের বসবাসের এলাকাও। এই সুসংবাদ শুনিয়েছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)।

বুধবার সন্ধ্যায় সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট শেয়ার করে প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, “দু’টি খুব ভালো খবর। গুজরাতের গির অরণ্যে বাস করা রাজসিক এশিয়াটিক সিংহের সংখ্যা ২৯ শতাংশ বেড়েছে। আর ভৌগোলিকগত দিক থেকে তাদের ছড়িয়ে থাকার এলাকাও বেড়েছে ৩৬ শতাংশ।”

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর রাজ্য গুজরাতেই গির অরণ্য অবস্থিত। বিশ্বে এশিয়াটিক সিংহের একমাত্র ও শেষ আবাসভূমি হল এই অরণ্য। রাজ্যের বন দফতর জানিয়েছে, গিরে সিংহের সংখ্যা প্রায় ২৯ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ৬৭৪।

প্রাণীজগতের যে সদস্যটি এক সময়ে বিলুপ্ত হওয়ার মুখে চলে গিয়েছিল, সেই প্রাণীটির সংখ্যা বৃদ্ধিতে যাঁদের উদ্যোগ রয়েছে তাঁদের এবং সামগ্রিক ভাবে গুজরাতের জনগণকে প্রধানমন্ত্রী ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

গিরের সিংহের ৪টি ছবি শেয়ার করে প্রধানমন্ত্রী লিখেছেন, “যাঁদের প্রচেষ্টায় এই অনবদ্য কৃতিত্ব অর্জন করা সম্ভব হয়েছে তাঁদের সকলকে এবং গুজরাতের জনগণকে সম্মান জানাই।”

গুজরাত সরকার যে তথ্য প্রকাশ করেছে, তা থেকে জানা যাচ্ছে, বর্তমানে ৬৭৪টি এশিয়াটিক সিংহ গির অরণ্যে বাস করে। প্রতি পাঁচ বছর অন্তর সিংহের গণনা হয়। শেষ গণনা হয়েছিল ২০১৫ সালের মে মাসে। সেই গণনায় সিংহের সংখ্যা ছিল ৫২৩।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের জেরে লকডাউনের জন্য এ বছর মে মাসে সিংহগণনা সম্ভব হয়নি। তার পরিবর্তে ৫ ও ৬ জুন রাতে সিংহগণনা করা হয়। সেই সময় পূর্ণিমা ছিল।

সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘পুনম অবলোকন-এ (পূর্ণিমায় গণনাকাজ)’ দেখা গিয়েছে, সিংহের সংখ্যা ৬৭৪ হয়েছে, ২৮.৮৭% বৃদ্ধি। আজ পর্যন্ত এটাই সিংহের সংখ্যাবৃদ্ধির সর্বোচ্চ হার।

Continue Reading
Advertisement
football2
ফুটবল55 mins ago

কোভিড-পরিস্থিতিতে আসন্ন আই লিগের সব ম্যাচই কলকাতায় করার ভাবনা

দেশ1 hour ago

বিজেপিতে যাচ্ছি না, বললেন সচিন পায়লট

দেশ1 hour ago

প্রবল বর্ষণে সিকিমে ভয়াল রূপ তিস্তার, হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ল প্রাক্তন সাংসদের বাড়ি

উঃ দিনাজপুর2 hours ago

বিজেপি বিধায়কের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, পরিবারের দাবি খুন

রাজ্য2 hours ago

উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির দাপট কিছুটা কমলেও স্বস্তি দিচ্ছে না আগামী তিন দিনের পূর্বাভাস

দেশ3 hours ago

দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যায় রেকর্ড, তবে মৃত্যুহারে উল্লেখযোগ্য পতন

দেশ3 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৮৭০১, সুস্থ ১৮৮৪৯

বিদেশ3 hours ago

কমদামী ও সহজলভ্য দুই ওষুধের সংমিশ্রণেই কমছে করোনার মারণ ক্ষমতা?

দেশ3 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ২৮৭০১, সুস্থ ১৮৮৪৯

দুর্গা পার্বণ2 days ago

আজও ভিয়েন বসিয়ে হরেক রকম মিষ্টি তৈরি হয় চুঁচড়ার আঢ্যবাড়ির দুর্গাপুজোয়

ফুটবল3 days ago

এটিকে-মোহনবাগানের নতুন লোগো প্রকাশিত, জার্সির রঙ সবুজমেরুনই

কলকাতা2 days ago

সক্রিয় রোগীর নিরিখে এই মুহূর্তে কলকাতার অবস্থান কত নম্বরে?

শিক্ষা ও কেরিয়ার3 days ago

প্রকাশিত হল আইসিএসই এবং আইএসসি ফলাফল, মিলল না মেধা তালিকা!

দেশ3 days ago

শারীরিক দুরত্ব ভেঙে মানবিক দায়িত্ব পালন

Shaktikanta Das
দেশ2 days ago

কোভিড-১৯ স্বাস্থ্য এবং অর্থনীতির সামনে শেষ একশো বছরের সব থেকে বড়ো সংকট: আরবিআই গভর্নর

Harsh Vardhan
দেশ3 days ago

করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় আমরা উদ্বিগ্ন নই: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

কেনাকাটা

কেনাকাটা18 hours ago

হ্যান্ডওয়াশ কিনবেন? নামী ব্র্যান্ডগুলিতে ৩৮% ছাড় দিচ্ছে অ্যামাজন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস বা কোভিড ১৯ এর সঙ্গে লড়াই এখনও জারি আছে। তাই অবশ্যই চাই মাস্ক, স্যানিটাইজার ও হ্যান্ডওয়াশ।...

কেনাকাটা4 days ago

ঘরের একঘেয়েমি আর ভালো লাগছে না? ঘরে বসেই ঘরের দেওয়ালকে বানান অন্য রকম

খবরঅনলাইন ডেস্ক : একে লকডাউন তার ওপর ঘরে থাকার একঘেয়েমি। মনটাকে বিষাদে ভরিয়ে দিচ্ছে। ঘরের রদবদল করুন। জিনিসপত্র এ-দিক থেকে...

কেনাকাটা6 days ago

বাচ্চার জন্য মাস্ক খুঁজছেন? এগুলোর মধ্যে একটা আপনার পছন্দ হবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিউ নর্মালে মাস্ক পরাটাই দস্তুর। তা সে ছোটো হোক বা বড়ো। বিরক্ত লাগলেও বড়োরা নিজেরাই নিজেদেরকে বোঝায়।...

কেনাকাটা7 days ago

রান্নাঘরের টুকিটাকি প্রয়োজনে এই ১০টি সামগ্রী খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে আনলক হলেও খুব দরকার ছাড়া বাইরে না বেরোনোই ভালো। আর বাইরে বেরোলেও নিউ নর্মালের সব...

নজরে