pensioners

ওয়েবডেস্ক: বয়সজনিত কারণে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আধার নম্বর সংযুক্ত না করলেও পেনশনভোগীদের কোনো সমস্যায় পড়তে হবে না বলে জানিয়ে দিল এমপ্লয়িজ প্রভিজেন্ট ফান্ড অর্গানাইজেশন (ইপিএফও)। এর আগে বলা হয়েছিল, পেনশনভোগীদের লাইফ সার্টিফিকেট জমা করার সময় আধার ভেরিফিকেশন এবং আঙুলের ছাপ পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট এখনও পর্যন্ত আধার সংযুক্তিকরণের বিষয়ে কোনো স্থির সিদ্ধান্তে না আসতে পারার জন্য ওই নিয়ম আপাতত রদ করা হল।

দেশের বিভিন্ন ব্যাঙ্ক এবং পোস্ট অফিসকে নির্দেশিকা পাঠিয়ে ইপিএফও জানিয়েছে, বারো সংখ্যার আধার নম্বর অ্যাকাউন্টের সঙ্গে সংযুক্তিকরণ না করার জন্য যেন পেনশন পেতে কোনো উপভোক্তার অসুবিধা না হয়। ‘লাইফ সার্টিফিকেট’  দাখিল করে যে ভাবে তাঁরা পেনশন তুলতেন, সেই একই প্রক্রিয়া জারি থাকবে।

এ ক্ষেত্রে প্রত্যেককে ‘জীবন প্রমাণ’ জমা করতে বলা হলেও তা আপাতত বাধ্যতামূলক নয়। ‘জীবন প্রমাণ’ হল একটি বারো সংখ্যার আধার ভিত্তিক শংসাপত্র। যা কোনো রাজ্য সরকার বা সরকারি দফতর থেকে আধার নম্বর ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে প্রদান করা হচ্ছে। কিন্তু যাঁদের এখনও পর্যন্ত আধার কার্ড মেলেনি, তাঁদের ক্ষেত্রে এই বিশেষ শংসাপত্র পাওয়া মুশকিল হয়ে যাচ্ছে। মূলত বয়:জনিত কারণেই অনেকে এখনও আধার কার্ড করাতে সক্ষম হননি। ইপিএফও জানিয়েছে, সেই সব ক্ষেত্রে কী ভাবে বয়স্ক পেনশনভোগীদের আধার কার্ড করানো যায়, তা নিয়েই চিন্তাভাবনা চলছে।

উল্লেখ্য, আধার (এনরোলমেন্ট অ্যান্ড আপডেট) রেজুলেশন-২০১৬ তে বলা হয়েছে বয়সের ভারে যাঁরা আধার সেন্টারে গিয়ে কার্ড করাতে পারবেন না, তাঁদের জন্য সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্ক বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here