sensex-china

বিশেষ প্রতিনিধি: সংশোধনের সমস্ত সিঁড়ি অতিক্রম করে ফেলেছে এ দেশের শেয়ার বাজার। গত জানুয়ারির শেষ দিকে যে পাহাড়ে চড়ার খেলার শুরু হয়েছিল, ফেব্রুয়ারির প্রথম দিনেই বাজেট পেশের আসরে তাতে ধস নামার সূচনা হয় গিয়েছিল। তার পর একে একে নীরব মোদী, ফেডারেল রিজার্ভ এবং আরবিআইয়ের সুদের হার, আমেরিকার নয়া বাণিজ্য নীতি এবং সর্বশেষ চিন-আমেরিকা প্রবল বাণিজ্য যুদ্ধের জেরে ভারতের শেয়ার বাজারে ধসের অন্ত নেই। তবে এ বার সম্ভবত সেই অবস্থার পরিবর্তন হতে চলেছে।

গত বুধবার ২০০ দিনের ডেলি মুভিং অ্যাভারেজ তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে ৫০ স্টকের সূচক নিফটির। এমনও হতে পারে আরও খাদে পৌঁছে যাওয়ার স্বাদ নিতে পারে। কিন্তু টেকনিক্যাল চার্টে তেমন কোনো আভাস মেলেনি। স্বাভাবিক ভাবেই নিফটির সংকোচনের পালা শেষ হয়ে এ বার হয়তো প্রসারণের পথে পা বাড়ানোর সময় এসেছে বলেই ধরে নেওয়া হচ্ছে।

মনে করা হচ্ছে, বৃহস্পতিবার নিফটির রেজিস্ট্যান্স থাকবে ১০,১৯০ এবং ১০,২৪৫ এবং সাপোর্ট হতে পারে ১০,০৮০ এবং ১০,০৪০-এর আশেপাশে। অ্রর্থাৎ, চিন-আমেরিকা আর আমেরিকা-চিনের গল্পে মশগুল না হয়ে ভারতের বাজার নিজস্ব ছন্দে ফিরতে পারেই বলে ধরে নেওয়া হচ্ছে। শুধু এই একটি দিন না ধরলেও আগামী ২-৩টি ট্রেডিং ডে-তে বাজার বেশ চাঙ্গা হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ বিশ্লেষণ বলছে, ২০০ দিনের মুভিং অ্যাভারেজ অতিক্রম করার পর বাজার সব সময়ই নিজেকে সংশোধনের সীমা বরাবর নিয়ে গিয়েছে বলেই ধরে নেওয়া হয়। স্বাভাবিক ভাবেই তেমন কোনো বড়োসড়ো ঘটনা না ঘটলে বাজার চাঙ্গা হতে বাধ্য। তবে শেয়ার বাজারে সীমা বলে একটা শব্দ থাকলেও শেষ সীমা বলে কিছু হয় না, সে কথাও মাথায় রাখতে হবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here