crorepati

ওয়েবডেস্ক: কৃপণদের নিয়ে আমরা হাসাহাসি করি বটে, কিন্তু তাঁরা একটা ব্যাপারে আমাদের জ্ঞানচক্ষু খুলে দেন! সেটা হল, সঞ্চয়ই ধনী হওয়ার একমাত্র মাধ্যম!

তা বলে চোখ-কান বুজে জীবনের সব শখ-আহ্লাদ বাদ দিয়ে পয়সা জমিয়ে যাওয়াটাও অর্থহীন! যদি নিজের স্বচ্ছন্দের জন্য খরচ করা না-ই যায়, তা হলে আর মাথার ঘাম পায়ে ফেলে অর্থ উপার্জন কেন!

investment

অতএব, সঞ্চয় আর ব্যয়- এই দুইয়ের মধ্যে একটা ভারসাম্য না রাখলেই নয়! এবং এই কাজটা জীবনযাত্রার মানকে এতটুকুও না নামিয়েই করা সম্ভব! স্রেফ এই ৭টি কাজ মাসে একবার করে করলেই হল! তা হলেই ব্যাঙ্ক ব্যালেন্স পৌঁছে যাবে কোটি টাকার অঙ্কে! দেখতে দেখতে, ২০ বছরের মধ্যেই!

১. রবিবারটা বাড়িতেই থাকুন

family

মাসে চারটে সপ্তাহ! তার মধ্যে রবিবারটা পরিবারের সবার সঙ্গে বাইরে গিয়ে নানা কারণে কিছু টাকা খরচ হয়েই যায়! এ বার তিনটে সপ্তাহ যা করছেন, তাই করুন! কিন্তু একটা সপ্তাহে রবিবার বাড়িতেই থাকুন! সে দিনটা একটু জমার হিসেব নিয়ে বসুন! না হোক হাজার খানেক টাকা সঞ্চয় হবেই! সেটা সিস্টেম্যাটিক ইনভেস্টমেন্ট প্ল্যান মারফত মিউচুয়াল ফান্ডে রাখলে ২০ বছরের মধ্যেই জমে যাবে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা!

২. সপ্তাহে একটা দিন গাড়ি ছাড়াই যাতায়াত করুন

bus

কে না জানে, গাড়ি থাকলে আসল খরচটা হয় জ্বালানি তেলের পিছনে! অতএব, মাসে একটা দিন গাড়ি ছাড়াই যাতায়াত করুন! এ ভাবে যদি হাজার খানেক সঞ্চয় করতে পারেন, সেটাও মিউচুয়াল ফান্ডের দৌলতে ২০ বছরের মধ্যে পৌঁছে যাবে আরও ১৫ লক্ষ টাকায়!

৩. মাসে একবার সিনেমায় যাওয়া ছাড়ুন

multiplex

আজকাল কেউই প্রায় সিঙ্গল স্ক্রিনে ছবি দেখতে যান না! গুণগত মানের সঙ্গে আপোস না করার জন্য মাল্টিপ্লেক্সই ভরসা! এ বার মাল্টিপ্লেক্সে গেলে টিকিটের দাম আর টুকিটাকি নিয়ে হাজারের কোঠায় খরচ হয়েই যায়! মাসে একবার সেটা বাদ দিয়ে টাকা জমালে ২০ বছরে মিউচুয়াল ফান্ডের মাধ্যমে অন্তত ২২ লক্ষ টাকা জমবেই!

৪. মাসে একবার বাইরে খাওয়া বন্ধ করুন

restaurant

পরিবারের সবাই মিলে কোথাও খেতে গেলে ট্যাক্স সমেত প্রায় হাজার দেড়েকের কাছাকাছি খরচ হয়েই যায়! সেটাও মাসে একবার জমাতে পারলেই ২০ বছরে মিউচুয়াল ফান্ড ২২ লক্ষ টাকা ফিরিয়ে দেবে!

৫. মাসে একবার বার-এ বসা বন্ধ

bar

কোটিপতি হতে হলে মদ্যপানের দিকেও মাসে একবার লাগাম টানতে হবে! বার-এ বসলেই তো হাজার খানেক কী দেড়েক বাঁধা খরচ! সেটা মাসে একবার বন্ধ রাখলে মিউচুয়াল ফান্ড ২০ বছরে আরও ২২ লক্ষ টাকা তুলে দেবে আপনার হাতে!

৬. অযথা কেনাকাটাতেও মাসে একবার রাশ টানুন

shopping

শখের জিনিস কিনবেন না কেন! কিন্তু মাসে একবার সেটা বন্ধ রাখতে পারলে দেখবেন, অন্তত হাজার দুয়েক টাকা সঞ্চয় হচ্ছেই! যা মিউচুয়াল ফান্ড মারফত ২০ বছরে ৩০ লক্ষ টাকা হয়ে ফেরত আসবে!

৭. খাবার নষ্ট করবেন না

dinner

অনেক পরিবারেই খাবার নষ্ট হয়! সেটা যদি একটু ভেবে-চিন্তে চলে আটকানো যায়, তা হলেও মাসে হাজার খানেক মতো টাকা বেঁচে যায়! যা মিউচুয়াল ফান্ড মারফত ২০ বছরে পরিণত হয় ১৫ লক্ষ টাকায়!

কী ভাবছেন? নিজেই এ বার গুণে দেখুন এই সমস্ত দিক থেকে সঞ্চয় আপনার কোটির ঘরে পৌঁছে যাচ্ছে কি না! তার জন্য একটু হিসেবি হওয়া আর ২০ বছর অপেক্ষা করা কি খুব সমস্যার ব্যাপার?

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here