NPA Loan

ওয়েবডেস্ক: ২০১৭-তে দু’চাকার জন্য বরাদ্দ ঋণ রেকর্ড গড়ল। ওই বছরে ঋণের পরিমাণ ৩২ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েচে। আর তার সঙ্গেই প্রকাশ পেল আরও একটি তথ্য। তা হল, দু’চাকায় এ মুহূর্তে অনাদায়ী ঋণের রাজ্যগুলির মধ্যে শীর্ষস্থানে রয়েছে গুজরাত।

সিআইআরএফ হাইমার্ক সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, রাজ্যওয়াড়ি তালিকার সর্বোচ্চ স্থানে যেমন রয়েছে গুজরাত তেমনই শহরভিত্তিক তালিকায় সব থেকে উপরে রয়েছে মহারাষ্ট্রের থানে। ওই রিপোর্ট থেকেই জানা গিয়েছে, এই ধরনের ঋণ নিয়ে পরিশোধ করার ব্যাপারে দেশের উত্তরাঞ্চলের রাজ্যগুলিতেই ব্যার্থতা অধিক মাত্রায়।

দু’চাকার ঋণ সাধারণত নন-ব্যাঙ্কিং আর্থিক সংস্থাগুলিই বেশি দিয়ে থাকে। যা আবার প্রত্যক্ষ ভাবে জড়িত রয়েছে বাইক নির্মাতা সংস্থাগুলির সঙ্গে। স্বাভাবিক ভাবেই এ ভাবে ঋণ নিয়ে পরিশোধ না করার জন্য ভুগতে হচ্ছে তাদের উভয়কেই। ওই সংস্থাটি জানিয়েছে, গত ডিসেম্বরে দু’চাকায় ঋণের পরিমাণ পৌঁছেছে ৩৯,১০০ কোটি টাকায়।

bike2

এমনিতে মহারাষ্ট্র সব থেকে বেশি দু’চাকা ঋণের গ্রহীতা। মোট ঋণের প্রায় .৫৫ শতাংশ দখলে রেখেছে তারা। আবার অনাদায়ী ঋণের ক্ষেত্রে থানের হার ৪.৪৬ শতাংশ। অন্য দিকে গুজরাতের অহমেদাবাদ এবং সুরাতের হার ৩.৮৪ এবং ৩.৬১ শতাংশ। যেখানে সারা দেশে দু’চাকায় অনাদায়ী ঋণের হার ২.০২ শতাংশ।

উল্লেখ্য, ২০১৭-১৮ সালে নির্মাতা সংস্থাগুলি যেখানে মোট দু’চাকা বিক্রির আনুমানিক সংখ্যা বেঁধে রেখেছিল ২ কোটিতে, সেখানে ওই বছরের প্রথম নয় মাসে বাইকে ফিনান্স করা হয়েছে প্রায় ৫০ লক্ষ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here