karnataka mla assettss

বিশেষ প্রতিনিধি: টানা চার দিন পর শেয়ার বাজার খুলছে সোমবার বুধবার। বুধবার নিফটি বন্ধ হয়েছিল  ১০,১১৩.৭ পয়েন্টে। পিভট চার্ট অনুযায়ী, নিফটির সাপোর্ট ১০,০৮৭.৬৩ ও ১০,০৬১.৫৭ এবং রেজিট্যান্স ১০,১৪৯.০৩ এবং ১০,১৮৪.৩৭।

এ হিসাব খাতা-কলমের এর বাইরেও যেমন প্রত্যাশা রয়েছে তেমনই রয়েছে আশঙ্কাও। নিফটি ৯,৯৫১ পয়েন্টে ঘুরে এসেছে। তবে সেই নিম্নগমন যে ৯,৭০০-এর কাছাকাছি আরও এক বার যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করবে না সে বিষয়ে কোনো গ্যারান্টি নেই। অর্থাৎ নতুন আর্থিক বছরের শুরুর দিনটা যেহেতু ছিল রবিবার, তাই তার আগামী মতিগতি কেমন হতে চলেছে তা জানার জন্য দেখতে হবে সোমবারের শেয়ার বাজার চাল-চলন।

বৃহৎ করকাঠামোয় দু-তিনটি পরিবর্তন  চালু হয়ে গিয়েছে ১ এপ্রিল থেকেই। যেমন লং টার্ম ক্য়াপিটাল গেইন্স ট্যাক্স বা এলটিসিজিটি এবং জিএসটি নিয়ন্ত্রিত ই-ওয়েবিল। এ ছাড়া আর্থিক ক্ষেত্রে রয়েছে আরও বেশ কয়েকটি পরিবর্তন। যা বহু আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছে বাজেট ঘোষণার পর থেকেই। স্বাভাবিক ভাবেই সোমবারের বাজার থাকবে দোলনায় চেপে। তবে আর যাই হোক, শর্ট টার্মের বিনিয়োগকারীদের জন্য য খুশির খবর আপাতত নেই, তা এক প্রকার নিশ্চিত। এই মুহূর্তের বাজারে এক মাত্র বিনিয়োগের ক্ষেত্রটি হল লংটার্মের। দীর্ঘ দিনের জন্য বিনিয়োগই এক মাত্র ভরসা।

অর্থাৎ যে স্টকেই টাকা ঢালুন না কেন, তা থেকে চটজলদি লক্ষ্মীলাভের আশা করা হয়তো বৃথা হতে পারে। কিন্তু বাজার যে দিকে এগোচ্ছে তাতে লম্বা দৈর্ঘের বিনিয়োগ কিন্তু অনেকটাই নিরাপদ। ২৯ জানুয়ারির পর থেকে যে ভাবে বাজার নীচের দিকে নামছে তা বিশ্লেষণ করে দেখা গিয়েছে, দীর্ঘ মেয়াদী ভাবে সেল, ভারতী এয়ারটেল, অরবিন্দ ফার্মা বা এসবিআই এবং টেক মাহিন্দ্রাতে বিনিয়োগ করলে হতাশ হওয়ার হওয়ার কোনো কারণ দেখা যাচ্ছে না।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন