oil

বিশেষ প্রতিনিধি: ডিজেল ও পেট্রোলের দাম আর যাতে না বাড়ে, সে দিকে লক্ষ্য রেখেই বিশেষ পদক্ষেপ নিল কেন্দ্র সরকার। বৃহৎ ওয়েল মার্কেটিং সংস্থাগুলিকে নিজেদের লভ্যাংশ থেকে লিটার প্রতি ১ টাকা কমানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। গত বুধবার কেন্দ্রের এমন নির্দেশের পরেই শেয়ার বাজারে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলির অবনমন শুরু হয়ে যায়। কিন্তু ভবিষ্যতের জন্য এই ঘটনা অনেকটাই ইতিবাচক ভূমিকা নিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে যাওয়াতেই যে ভারতের বাজারে ডিজেল-পেট্রোলের দাম লাগাম ছাড়া হয়ে উঠেছে, সে কথা আগেই জানানো হয়েছিল। কিন্তু এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণের অন্য কোনো উপায় না দেখে শেষে কেন্দ্র ওই সংস্থাগুলির লভ্যাংশে কোপ বসাতে উদ্যত হয়েছে। মাত্র ছ’মাসের মধ্যে এই ধরনের ঘটনা দু’বার ঘটায় সংস্থাগুলিও যথেষ্ট লোকসানের সম্মুখীন হয়ে চলেছে। যে কারণে শেয়ার বাজারের বিনিয়োগকারীরা হু-হু করে ওই স্টকগুলি বিক্রি করতে শুরু করে দেন। অযথা ঝুঁকির রাস্তায় না গিয়ে সেফ সাইড খেলার চিন্তাভাবনা থেকেই এমন সিদ্ধান্ত।

আগামী দিনে এই পরিস্থিতির বদল ঘটাটাই স্বাভাবিক। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, আমেরিকা-চিনের বাণিজ্য যুদ্ধে থেকেই অপরিশোধিত তেলের বাজারে অনিশ্চয়তার স‌ৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু এটা মোটেই দীর্ঘস্থায়ী নয়। শীঘ্রই পরিস্থিতি বদলাবে। তা ছাড়া বিপুল পরিমাণে শেয়ার বিক্রির হিড়িকে পড়ার পর স্টকগুলিও নতুন ক্রেতার সন্ধান করবে। তখন আবার ধীরে ধীরে নিজের জায়গায় ফিরতে চাইবে স্টকগুলি।

গত বুধবার ভারত পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের শেয়ার পড়েছে ৭.৫০ শতাংশ (৩৩.৮৫ টাকা), ইন্ডিয়ান ওয়েল কর্পোরেশন ৬.৬৬ শতাংশ (১১.৯৫ টাকা) এবং হিন্দুস্তান পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন ৭.৬৬ শতাংশ (২৭.৯৫ টাকা)।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন