ওয়েবডেস্ক: টেলিকমের বাজার সরগরম। জিওকে টেক্কা দিতে বাজারে নেমে পড়েছে এয়ারটেল ও বিএসএনএল। কয়েকদিন আগেই বাজারে এসে গেছে এয়ারটেল-কার্বন এ ফর্টি ইন্ডিয়ান স্মার্ট ফোন। শুক্রবার বাজারে আসছে বিএসএনএল-এর মাইক্রোম্যাক্স ভারত ওয়ান ফোরজি ফিচার ফোন। দুই সংস্থারই লক্ষ্য আরও বেশি বেশি মানুষের কাছে সস্তায় ইন্টারনেট পৌঁছে দিয়ে বাজার বাড়ানো।

কিন্তু আপনার জন্য কাদের অফারটি উপযুক্ত? এই নিবন্ধে দুটি সংস্থা কী কী অফার দিচ্ছে, তা বিস্তারে জানাচ্ছি আমরা। তারপর আপনি ঠিক করুন।

প্রথমেই আসি এয়ারটেলের কথায়

এয়ারটেল দিচ্ছে চার ইঞ্চি স্ক্রিনের একটি স্মার্ট ফোন। যার পেছনে ২ মেগাপিক্সেল এবং সামনে ০.৩ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা আছে। ১ জিবি র‍্যাম এবং ইন্টারন্যাল মেমোরি ৮ জিবি। এই মেমোরি এসডি কার্ড ব্যবহার করে ৩২ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। এছাড়া ওয়াইফাই, ব্লু টুথ ইত্যাদি যোগাযোগের সুবিধা তো রয়েছেই। ফোনটি অ্যান্ড্রয়েড চালিত। ব্যাটারি ১৪০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার। ডুয়াল সিম। নিতে খরচ হবে ২৮৯৯ টাকা। সঙ্গে একটি এয়ারটেল সিম। যদিও বলা হচ্ছে, গ্রাহকরা ১৫০০ টাকা ফেরত পাবেন। কিন্তু সেই টাকা যতদিন পরে এবং যে পদ্ধতিতে দেওয়া হবে, তাতে সেটা কতজন ফেরত নিতে পারবেন সন্দেহ আছে। যেমন- প্রথম ৫০০ টাকাটি মিলবে ১ বছর পর। বাকি ১০০০ টাকা মিলবে ৩ বছর পর। সেই টাকাও ঢুকবে এয়ারটেল পেমেন্ট ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে। তাছাড়া আমরা আমাদের অভিজ্ঞতা থেকে জানি, সেই টাকা হাতে পাওয়া যাবে না। কোনো একটি পণ্য কিনলে বা এয়ারটেলের পরিষেবা কিনবে, তাতে ওই পরিমাণ টাকা ছাড় মিলবে শেষ অবধি। তবে সেটা হলেও ২৮৯৯ টাকায় যে ফোর জি সেটটি পাওয়া যাচ্ছে সেটি ভালই।

২৮ দিন অন্তর গ্রাহককে ১৬৯ টাকা দিয়ে রিচার্জ করতে হবে। তাতে যত খুশি ফোন করা যাবে সারা দেশে। সঙ্গে দৈনিক ৫০০ এমবি ডাটা ব্যবহার করা যাবে। এই পরি‌মাণ টাকা দিয়ে এক বছর রিচার্ড করলে তবেই ৫০০ টাকা ফেরত পাওয়া যাবে। অথবা প্রথম ১৮ মাসে কম পক্ষে ৩০০০ টাকার রিচার্জ করতে হবে। তাতে ৫০০ টাকা মিলবে। পরবর্তী ১৮ মাসে আরও ৩০০০ টাকার রিচার্জ করতে হবে। তাতে পাওয়া যাবে বাকি ১০০০টাকা।

এবার বিএসএনএল

বিএসএনএল কিন্তু স্মার্ট ফোন দিচ্ছে না। এটা ফিচার ফোন। কিন্তু এতে ফোর জি নেট সংযোগ হবে। পেছনে ২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে। সামনে রয়েছে ভিজিএ শুটার। ২০০০ মিলি অ্যাম্পিয়ার ক্যামেরা। ৫১২ এমবি র‍্যাম এবং ইন্টারন্যাল মেমোরি ৪ জিবি। যা এসডি কার্ড ব্যবহার করে বাড়ানো যাবে। ডুয়াল সিম। নিতে খরচ হবে ২২০০ টাকা। তবে এটি অ্যান্ড্রয়েড চালিত নয়। ওপেরা মিনি ব্রাউজারে নেট সার্ফ করা যাবে। ফেসবুক করা যাবে। কিন্তু গুগল প্লে স্টোর না থাকায়, হোয়াটস অ্যাপ ডাউনলোড করা যাবে না।

মাসে মাত্র ৯৭ টাকা রিচার্জ করলে এই ফোন থেকে সারা দেশে যত খুশি ফোন করা যাবে। ‘যত খুশি’ নেট সার্ফও করা যাবে।

আসলে এই মাইক্রোম্যাক্স ভারত ওয়ান ফোনটির লক্ষ্যে ভারতের ৫০ কোটি মানুষকে নেট ব্যবহারের আওতায় নিয়ে আসা। যাদের স্মার্ট ফোন ব্যবহার করার সঙ্গতি নেই। অথবা শিশু ও বৃদ্ধ। তাদের নেট ব্যবহার করতে দেওয়ার জন্যই এই ফোন। বিনোদনের ব্যবস্থাও রয়েছে পর্যাপ্ত। জেঙ্গা টিভির সঙ্গে যৌথ ভাবে মাইক্রোম্যাক্স এই ফোনে দিচ্ছে বেশ কিছু লাইভ টিভি, ভিডিও ও মিউজিকের সুযোগ। থাকছে ইউটিউব অ্যাপও।

সব জানা হয়ে গেল। এবার সিদ্ধান্ত আপনার। আর হ্যাঁ। ২৮ দিন ধরে যত খুশি ফোন আর দৈনিক ৫০০ এমবি ডাটা ব্যবহার করার জন্য জিও ফোনের গ্রাহকদের রিচার্জ করতে হয় ১৫৩ টাকা।জিও ফোনটি কিন্তু মাইক্রোম্যাক্স ভারত ওয়ানেরই সমতুল্য।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here