NSE BSE SHARE MARKET SENSEX

ভারতীয় শেয়ার বাজারের সমস্ত সূচক এখন  প্রতি দিনই নিত্য নিতুন একটা রেকর্ড গড়ছে। অতি সতর্ক বিনিয়োগকারীরা অবশ্য সমগ্র বিষয়টাকে মোটের উপর ভালো চোখে দেখছেন না। যে ভাবে উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে বাজারের সূচক, তাতে অদূর ভবিষ্যতে বড়ো সড়ো পতনের আশঙ্কা করছেন তাঁরা। তবে আর যাই ঘটুক, উত্থান-পতন যেমন বাজারের স্বাভাবিক পদ্ধতি মেনেই হয়ে থাকে, এই মাত্রা ছাড়া ঊর্ধ্বগমনও তেমন স্বাভাবিক।

তা যাই হোক, আসা যাক কাজের কথায়-আজ কি কেনা যেতে পারে? মাছ-সবজির বাজারে যেমন পণ্যের দাম বাড়লে কিনতে অস্বস্তি হয় শেয়ার বাজারেও তেমন একটা ফ্যাক্টর কাজ করে থাকে। কিন্তু সামগ্রিক বিষয়ের দিকে নজর রেখে বেশ কয়েকটি স্টককে অবশ্যই ক্রয় তালিকায় ঠাঁই দেওয়া যায়। আজ হাতের সামনে রয়েছে তেমনই একটি দুর্ধর্ষ স্টক-স্টিল অথরিটি অব ইন্ডিয়া বা সেল। স্টকটির নামের আগে দুর্ধর্ষ কথাটি এই কারণেই জুড়তে হল কারণ, আগামী এক বছর সময় দিলে এই স্টক প্রায় একশো শতাংশেরও বেশি লাভের কড়ি আপনাকে রিটার্ন দিতে পারে। আপনি বলবেন, শেয়ার মার্কেটে তো কোনো ভবিষ্যদ্বাণী বলে কিছু হয় না! কিন্তু এই স্টকটি বলছে। একবার তাকিয়ে দেখুন ওর কর্মসূচির দিকে। এক দিকে রয়েছে গ্রামীণ আবাস নির্মাণের প্রয়োজনীয় ইস্পাতের বরাত অন্য দিকে রয়েছে মিশন২০২০ বা ২০২২-কে সামনে রেখে শিল্প ক্ষেত্রে ব্যাপক ইস্পাতের চাহিদা পূরণের লক্ষ্য। যা সেলের উৎপাদনে নতুন এক অধ্যায়ের সূচনা করেছে।

খাতায়-কলমে দেখা যাচ্ছে ২০২০ সালের মধ্যে এর ইবিআইডিটিএ প্রায় ১৫ শতাংশ বৃদ্ধি হতে পারে, যা মোট বিক্রয় রাশিকে পৌঁছে দিতে পারে ৭০০০০ কোটিতে।

২০১৪ সালে সেলের শেয়ারের দাম যা ছিল ঠিক তার কাছাকাছি আবার এগোচ্ছে ধীরে ধীরে। গত কালও সেল ১০০ টাকার সীমা টপকে গিয়েছিল। এ বছরেই সেলের লক্ষ্য ২০০ টাকা ছুঁয়ে ফেলা। যার ইঙ্গিত দিচ্ছে এর ডেইলি মুভিং অ্যাভারেজ থেকে শুরু করে হালকা গতিতে বেড়ে চলা ভলিউম ইত্যাদি। এখন সেলের দাম ৯৮-৯৯ টাকা। এক বছরে ডবলেও বেশি আয় করার বাসনা থাকলে পূরণ করতে পারে সেল।

ভাবুন, আপনি কী করবেন?

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন