hyundai

ওয়েবডেস্ক : গত এক বছরে নোটবন্দি এবং জিএসটি চালু হওয়ার পর বারবার আলোচ্য বিষয় হয়ে উঠেছে‌- এসবে কার লাভ আর কার ক্ষতি?

এ প্রশ্নের সঠিক উত্তর এখনই পাওয়া সম্ভব নয়। কিন্তু এ সবের পরে যে ছোটো যাত্রীবাহী গাড়ি বিক্রির বাজারে খুশির হাওয়া বইছে, সে কথা প্রমাণ হচ্ছে সদ্য শেষ হওয়া নভেম্বরে ভারতের গাড়ি নির্মাতা সংস্থাগুলির রিপোর্টে।

এদেশে গাড়ি নির্মাতা সংস্থাগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য মারুতি সুজুকি, মাহিন্দ্রা, হুন্ডাই, টাটা মোটরর্স, টয়োটা, হোন্ডা এবং ফোর্ড গত কালই প্রকাশ করেছে তাঁদের নভেম্বরের শেষ দিন পর্যন্ত গাড়ি বিক্রির পূর্ণাঙ্গ রিপোর্ট। সব মিলিয়ে দেখা গিয়েছে, গত বছরের তুলনায় এ বারে ওই একই সময় কালে বিক্রির পরিমাণ দু’সংখ্যার শতাংশ হারে বৃদ্ধি পেয়েছে।

আরো পড়ুন : গাড়ি বিক্রি বাড়ল মারুতি সুজুকি, ফোর্ডের

গত নভেম্বরে মারুতির বিক্রি বেড়েছে ১৪.৩ শতাংশ, মাহিন্দ্রার ক্ষেত্রে এই বৃদ্ধির হার ২১.৪৫ শতাংশ, হুন্ডাই ১০ শতাংশ, টাটা মোটরর্স ৩৫ শতাংশ, টয়োটা ১২.৬ শতাংশ, ফোর্ড ১৩.১ শতাংশ এবং হোন্ডা ৪৭.৫ শতাংশ বিক্রি বাড়াতে সক্ষম হয়েছে। ওই রিপোর্টে স্পষ্ট ভাবে উল্লেখ করা হয়েছে ঠিক কোন ধরনের গাড়ির বিক্রি কী হারে বেড়েছে। সবে সামগ্রিক ভাবে ওই রিপোর্টগুলি থেকে দেখা যাচ্ছে গত এক বছর সময়কালে ১৫.১২ শতাংশ বিক্রির হার বেড়েছে ছোটো যাত্রীবাহী গাড়ির।

বিশেষজ্ঞরা স্বীকার করছেন, নোটবন্দি বা জিএসটি এই ধরনের গাড়ির বাজারে নতুন করে প্রাণ সঞ্চার করেছে। যা আগামী দিনে গাড়িবাজারকে আরো চাঙ্গা করে তুলবে। সংস্থাগুলির জানিয়েছে, শহর ছাড়িয়ে গ্রামাঞ্চলেও তাদের বাজার দীর্ঘমাত্রায় প্রসারিত হয়েছে। গত বছর নভেম্বরে নোটবন্দির আবহে যে অস্থিরতার সৃষ্টি হয়েছিল তা কাটিয়ে উঠতে ভারতের গ্রামাঞ্চলের ক্রেতারাও আশারিক্ত সাড়া দিয়েছেন, তা নির্দ্বিধায় স্বীকার করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here