aadhaar

কলকাতা: কয়লা মন্ত্রকের নির্দেশে বেতন আটকে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গে ইস্টার্ন কোলফিল্ডস লিমিটেড (ইসিএল)-এর বহু কর্মী। ২০১৬-র নভেম্বর মাসে কয়লা সচিব মন্ত্রকের আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠকে বসার পর স্থির হয়, সংস্থার কর্মীদের স্যালারি অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আধার নম্বর যোগ করতে হবে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত বহু কর্মী অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আধার নম্বর যোগ করাতে না পারায়, তাঁদের বেতন আটকে যায়।

আধার লিঙ্ক নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ মামলা চলছে সুপ্রিম কোর্টে। একাধিক আবেদনের কিনারা করতে দেশের শীর্ষ আদালত এখনও নির্দিষ্ট সিদ্ধান্তে আসতে পারেনি। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে কোল ইন্ডিয়ার মতো রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা কী ভাবে কর্মীদের বেতন আটকে দেয়, সে প্রশ্ন তুলেছেন খোদ কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সম্বুদ্ধ চক্রবর্তী।

বিচারপতি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট যেখানে আধার বাধ্যতামূলক কি না, সেই মামলার নিষ্পত্তি এখনও পর্যন্ত করেনি, সেখানে একটি মন্ত্রকের সচিব কী করে এমন নির্দেশিকা জারি করলেন?

জানা গিয়েছে, গত অক্টোবর মাসেও বহু কর্মীর বেতন আটকে যায় অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আধার লিঙ্ক না থাকায়। তবে কলকাতা হাইকোর্টে মামলার পর তাঁরা বেতন পাচ্ছেন বলে একটি সূত্রে দাবি করা হয়েছে।

মামলাকারীর আইনজীবী জানিয়েছেন, আদালত কয়লা মন্ত্রকের কাছে এ ব্যাপারে কৈফিয়ত তলব করেছে। কিসের ভিত্তিতে এই নির্দেশিকা জারি করা হল, সে কথাই উচ্চ আদালতের কাছে জানাতে হবে কয়লা মন্ত্রককে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here