ওয়েবডেস্ক: ১২ অক্টোবর থেকে দিওয়ালি ধন ধনা ধন অফার ঘোষণা করার সময়ই জিও-র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল ১৯ অক্টোবর অর্থাৎ বৃহস্পতিবার থেকে টারিফে নানা পরিবর্তন করছে তারা। তেমনই হল। গত ৬ মাস ধরেই ডাটা ব্যবহারের খরচ বাড়াচ্ছে জিও। সেই পথ ধরেই বাড়ল ৩৯৯ প্যাকের খরচ।

জিও-র ৩৯৯ টাকার প্যাকে এতদিন পাওয়া যেত ৮৪ দিন সীমাহীন কল ও মেসেজ এবং প্রতিদিন ১ জিবি করে ফোর জি ডাটা ব্যবহারের সুযোগ। সেই সব পরিষেবা একই রেখে বাড়ানো হয়েছে পরিষেবার খরচ। এখন এই সুযোগ নিতে হলে ৪৫৯ টাকার প্যাক ভরাতে হবে। অর্থাৎ খরচ বাড়ল ৬০ টাকা।

তবে ৩৯৯ টাকার প্যাকটি তুলে দেওয়া হয়নি। মেয়াদ কমানো হয়েছে। ওই প্যাকে এতদিন যা যা পরিষেবা পাওয়া যেত, এখনও সবই মিলবে। শুধু ৮৪ দিনের বদলে তা হয়ে যাবে ৭০ দিন।

১৪৯ টাকার প্যাক

পরিবর্তন এসেছে ১৪৯ টাকার প্যাকেও। এতদিন এই প্যাকে ২৮ দিনে ২ জিবি ফোর জি ডাটা ব্যবহার করা যেত। এখন তার পরিমাণ বাড়িয়ে করা হল ৪.২ জিবি। যদিও প্রতিদিন হাই স্পিড ডাটা ব্যবহারের সীমা ১৫০ এমবি।

অন্যান্য প্যাক

জিও ৩০৯ টাকার প্যাকটি তুলে দেওয়া হল। এই প্যাকে ৫৬ দিন যত খুশি ফোন এবং রোজ ১ জিবি করে ফোর জি ডাটা ব্যবহার করা যেত। পরিবর্তন করা হল ৫০৯ টাকার প্যাকেও। এই প্যাকে যতখুশি ফোন ও এসএমএস-এর সুযোগ ছিল। রোজ ২ জিবি করে ফোর জি ডাটা ব্যবহার করা যেত। সেই সব এক রেখে পরিষেবার মেয়াদ কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। ৫৬ দিন থেকে কমে এই পরিষেবার মেয়াদ হয়েছে ৪৯ দিন।

এ সবের সঙ্গেই একটা গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন করা হয়েছে জিও-র সামগ্রিক পরিষেবায়। এতদিন সব প্ল্যানেই দৈনিক ডাটা ফোর জি ডাটা ব্যবহারের সীমা পেরিয়ে গেলে গ্রাহকরা যে সীমাহীন ডাটা ব্যবহার করতে পারতেন, তার স্পিড ছিল ১২৮ কেবিপিএস। এখন থেকে তার পরিমাণ কমে হল ৬৪ কেবিপিএস। অর্থাৎ সীমা পেরিয়ে গেলে স্পিড এতটাই কমে যাবে, যে তাতে নেট ব্যবহার অত্যন্ত কঠিন হয়ে পড়বে। গ্রাহকরা বাধ্য হবেন বেশি টাকার প্যাকে যেতে বা টপআপ ভরাতে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here