Sensex

ওয়েবডেস্ক: বুথ ফেরত সমীক্ষাই সব নয়। তা হলে আর ভোটগণনার কী দরকার। তবুও চাপা উৎকণ্ঠার বড়োসড়ো বিস্ফোরণ হয়ে গেল শেয়ার বাজারে। বুথ ফেরত সমীক্ষার গড় হিসাব তুলে ধরেছিল, যে পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা ভোট হয়েছে, তার মধ্যে বড়ো রাজ্যগুলির মধ্যে রাজস্থান হাতছাড়া হতে পারে কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপির।  অন্য দিকে মধ্যপ্রদেশে এবং ছত্তীসগঢ়ে মোদীর দলকে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের মুখে পড়ার স্পষ্ট ইঙ্গিত  দিয়েছে অধিকাংশ সমীক্ষা। যার জেরে গত শুক্রবার বাজার উঠে দাঁড়ানোর মানসিকতা দেখালেও সোমবার বাজার খোলার পর থেকেই শুধু লালে-লাল!

এই তিন রাজ্য ছাড়াও ভোটগ্রহণ হয়েছে তেলঙ্গনা ও মিজোরামে। সেগুলি নিয়েও বিজেপির খুব বেশি আশা নেই বলেই মনে করে সমীক্ষার গড়। তবে সমীক্ষা যাই বলুক, ভোটগণনার পরই পুরো বিষয়টা স্পষ্ট হবে। কিন্তু সেন্টিমেন্টে ভর দিয়ে চলা শেয়ার বাজার থেমে থাকতে চায় না এক মুহূর্ত। সোমবার বাজার খোলার সময় সেনসেক্স মুখ দেখায় ৪৬৮.৫৯ পয়েন্ট নীচে নেমে (শুক্রবার বন্ধ হয় ৩৫.৬৭৩.২৫ পয়েন্টে, সোমবার খোলে ৩৫,২০৪.৬৬ পয়েন্টে)।

Assembly Elections

বিশ্লেষকদের একাংশ অবশ্য় মনে করছেন, বিজেপির ফল ভালো হওয়ার ইঙ্গিতকে সামনে রেখে নীচে নামছে সূচক। আগামী কাল ফলাফল পরিষ্কার হতে শুরু করলে বাজার কয়েকগুণ চাঙ্গা হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে সোমবার বেলা বাড়তে থাকলে নীচে নামার পরিধি আরও গভীর হয়। এক সময় তো সাড়ে ছ’শো পয়েন্ট পড়ে যায় সেনসেক্স। আর এক সূচক নিফটি৫০-এর অবস্থাও একই। সেখানেও পতন ১ শতাংশের উপর।

তাই বলে কি নতুন স্টক কেনা যাবে না? অবশ্যই- তবে সেটা হওয়া চাই ‘আত্মরক্ষামূলক’!

বিস্তারিত পড়ুন উপরের লিঙ্ক ক্লিক করে।