sensex,Nikkei 225,Dow Jones Industrial Average

বিশেষ প্রতিনিধি: চড়াই-উৎরাইয়ের পথ ধরে চলতে থাকা ভারতীয় শেয়ার বাজার কি তা হলে আবার প্রাণ ফিরে পেল? বাজারের সাম্প্রতিক পতনের একাধিক কারণ তো খুঁজে পাওয়া গিয়েছেল, কিন্তু কী এমন ঘটল যে বাজার ফের সবুজে সবুজ?

না, তেমন কোনো জোরালো তথ্য তুলে ধরতে পারছেন না ট্রেড পণ্ডিতরা। যা কিছু এদিক-ওদিক শোনা যাচ্ছে, তাও বেশ ঠুনকো। স্বাভাবিক ভাবেই বিনিয়োগকারীরা আটকে পড়েছেন শাঁখের করাতে। যাঁরা বিনিয়োগ করেছেন, একটু চড়া দামে কি শেয়ার বিক্রি করে দেবেন? না কি যাঁরা উপরে কিনে ফেঁসে গিয়ে হাত কামড়াচ্ছিলেন তাঁরা ফের বিনিয়োগ করবেন? এমন নানান প্রশ্নের দোলাচলে ভুগতে থাকা বিনিয়োকারীদের উদ্দেশে বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, তেমন কিছু না ঘটলে বিনিয়োগ করা যেতে পারেই। অন্তত যাঁরা ১ ফেব্রুয়ারি কেন্দ্রের বাজেট পেশের আগে কোনো স্টকে বিনিয়োগ করেছিলেন, তাঁরা আবার ওই একই স্টকে বিনিয়োগ করলে মোটের উপর মন্দ হবে না।

অর্থাৎ, যাঁরা একটু উপরের দামে সপ্তাহ দুয়েক আগে কোনো স্টক কিনেছিলেন তাঁরা অপেক্ষাকৃত নীচু দরে পুনরায় ওই একি স্টকে বিনিয়োগ করুন। যাতে গড় দাম কিছুটা হলেও নামিয়ে নিয়ে আসা যায়।

এ ক্ষেত্রে উদাহরণ হিসাবে বলা যেতে পারে সেঞ্চুরি প্লাইয়ের কথা। বাজেট পেশের আগে ৩৪০ টাকার উপরে যাঁরা এই স্টকে বিনিয়োগ করেছিলেন তাঁরা ৩২৫-৩২৭ টাকায় যদি আরও একবার ধরতে পারেন, তা হলে গড় দাম ৩৩৫ টাকায় নামিয়ে নিয়ে আসতে পারবেন। এই স্টকের ভলিউম খুব একটা ভালো জায়গায় দাঁড়িয়ে নেই। তবুও গ্রাফ আগামী কয়েক দিনের মধ্যে ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার পুরো সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রথমত, সর্বকালের সেরা উচ্চতা ৩৬৩ টাকার শিখর ছুঁয়ে এসে সংকুচিত হওয়ার পালা প্রায় শেষের দিকে। দ্বিতীয়ত, ২০০ দিনের মুভিং অ্যাভারেজ শক্ত সাপোর্ট তৈরি করার দিকেই এগোচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here