sensex bse

আজ নিফটি

পিভট পয়েন্ট – ১০৮১৭সাপোর্ট- ১০৬৮১, ১০৫৬৫রেজিট্যান্স- ১০৮৯৭ , ১০৯৮৫

বিশেষ প্রতিনিধি: সমস্ত হিসাবকেই ভুল প্রমাণ করল শেয়ার বাজারের আশ্চর্যজনক পতন। আশ্চর্যজনক এই কারণেই যে গত দু-তিন বছরে একদিনে আড়াই শতাংশ পতনের নজির নেই সেনসেক্সের। অন্য দিকে নিফটির ক্ষেত্রে সম শতাংশের পতন ভেঙে দিল সমস্ত প্রতিরোধককেই।

বাজেট যতই খারাপ হোক না কেন, নিফটি ১০৮৩০ পয়েন্টের মধ্যে আটকে থাকবে বলেই সূচকটির গতিপ্রকৃতি বলে দিয়েছিল। কিন্তু বাজেট পেশের দিন তেমন কোনো প্রভাব দেখা না গেলেও সেই নিফটি ১০৮৩০-এর অনেকটাই নীচে ১০৭৩৬ পয়েন্টে নেমে এসেছে গত শুক্রবার। অর্থাৎ আনুমানিক পতনের যে মাপকাঠি আমরা তৈরি করেছিলাম তার থেকেও ৯৪ পয়েন্ট নীচে নেমেছে এই সূচক। এ বার কি উঠবে না আরও নামতেই থাকবে?

হ্যাঁ, নিফটির আরও পতন ঘটতেই পারে। লং টার্ম ক্যাপিট্যাল গেইন্স ট্য়াক্স অথবা রাজস্ব ঘাটতির যে ঘোষণা কেন্দ্র করেছে তাতে আরও পড়লেও পড়তে পারে নিফটি-সেনসেক্স। আবার আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি রয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নীতি ঘোষণার দিন। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক বাজেটের দিকে তাকিয়ে বা বাজেটের সঙ্গে সাজুয্য রাখতে ঠিক কী ধরনের নীতি নিতে চলেছে, তার প্রভাব পড়বে শেয়ার বাজারে। নিফটির নিম্ন গমন পৌঁছতে পারে ১০৩০০-তে। অর্থাৎ এখন যেখানে দাঁড়িয়ে রয়েছে তার থেকে আরও সাড়ে চারশো পয়েন্ট নামতে পারে নিফটি তবে তা এক দিনে তো নয়-ই, এক টানাও নয়।

তবে খুশির খবর লুকিয়ে রয়েছে গ্রামীণ, শিক্ষা, স্বাস্থ্য়,পরিকাঠামো ক্ষেত্রে বরাদ্দ বৃদ্ধি এবং কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টির পরিকল্পনায়। এই সব ক্ষেত্রগুলি এ বার চাঙ্গা করবে বাজারকে। নিফটির আগের নির্ধারিত সম্ভাব্য লক্ষ্যমাত্রা ১২০০০ পয়েন্ট তাই অপরিবর্তিতই থাকছে। অযথা আতঙ্কিত না হয়ে ধৈর্য্যের পরীক্ষা দেওয়াটাই তাই একজন বুদ্ধিমান বিনিয়োগকারীর সঠিক পরিচায়ক হয়ে উঠতে পারে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন