Currency

ওয়েবডেস্ক: হাতে আর মাত্র কয়েকটা দিন, কয়েকটা রাত। তার পরেই চলে আসবে নতুন আর একটা বছর। কিন্তু এই কটা দিনের মধ্যেই সেরে ফেলতে এমনই পাঁচটি আর্থিক কাজ, যা বছর পার হওয়ার পর কোনো মতেই করা সম্ভব নয়।

১. বিলেটেড আয়কর দাখিল

যাঁরা আয়কর দফতরের বেঁধে দেওয়া নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে ইনকাম ট্যাক্স ফাইল করেননি, তাঁদের জন্য এটাই শেষ সুযোগ। চলতি মাসের মধ্যেই আয়কর দফতরের বিশেষ পরিষেবা বিলেটেড ইনকাম ট্যাক্স রিটার্নের সুবিধা নিয়ে তা করা যেতে পারে। নইলে মোটা অঙ্কের আর্থিক শাস্তি খাড়া মাথার উপর ঝুলতেই পারে।

২. ইএমভি ডেবিট এবং ক্রেডিট কার্ড

২০১৫ সালের ২৭ আগস্ট রিজার্ভ ব্যাঙ্ক সমস্ত ব্যাঙ্কগুলিকে নির্দেশ দিয়েছিল ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৮-র মধ্যে সমস্ত ডেবিট এবং ক্রেডিট কার্ড ম্যাগস্ট্রিপে রূপান্তর করতে হবে। অর্থাৎ সেগুলিতে যুক্ত হবে চিপ। যা ইএমভি বা ইউরোপে, মাস্টারকার্ড এবং ভিসার সংক্ষিপ্ত রূপ। যদি এখনও পর্যন্ত চিপ লাগানো কার্ড না পেয়ে থাকেন, অবিলম্বে নিজের শাখা ব্যাঙ্কে যোগাযোগ করুন।

৩. নন-সিটিএস চেক বই বাতিল

রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নির্দেশ মতোই নন-সিটিএস চেক গ্রাহ্য হবে না আগামী ৩১ ডিসেম্বরের পর থেকে। অর্থাৎ, যাঁদের কাছে এখনও পর্যন্ত নন-সিটিএস চেক পড়ে রয়েছে,তাঁরা হাতে থাকা সময়ের মধ্যে যোগাযোগ করুন নিজের শাখায়। সেখান থেকেই নিতে হবে সিটিএস-২০১০ চেকবই। গত ১ সেপ্টেম্বর থেকেই অবশ্য নন-সিটিএস চেক নিয়ে পদক্ষেপ নিয়েছে ব্যাঙ্কগুলি।

৪. নেট ব্যাঙ্কিংয়ে মোবাইল নম্বর

ডিসেম্বর মাসের ১ তারিখ থেকেই এই নতুন নিয়ম চালু করে দিয়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া (এসবিআই)। যাঁদের মোবাইল নম্বর সংযুক্ত নেই, তাঁরা বঞ্চিত হচ্ছেন নেট ব্যাঙ্কিং পরিষেবা থেকে। এ ব্যাপারে এসবিআই আগেই জানিয়েছিল, ৩০ নভেম্বরের মধ্যে নেট ব্যাঙ্কিং পরিষেবা পাওয়ার জন্য নিজের মোবাইল নম্বর নথিভুক্ত করতে হবে।

৫. এসবিআই বাডির টাকা ফেরত

গত ৩০ নভেম্বর থেকেই এসবিআই বন্ধ করে দিয়েছে নিজেদের এসবিআই বাডি পরিষেবা। এই মোবাইল ওয়ালেটে বিল পেমেন্ট, রিচার্জ বা মানি ট্রান্সফার করা যেত। এমনই একটি পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ওই মোবাইল ওয়ালেটে যদি এখনও পর্যন্ত কিছু টাকা পড়ে থাকে, তা হলে অবিলম্বে নিজের শাখা ব্যাঙ্কে গিয়ে যোগাযোগ করতে হবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here