avijit-bose

ওয়েবডেস্ক: ক্যালিফোর্নিয়ার বাইরে এই প্রথম কোনো দেশে আলাদা টিম তৈরি করল হোয়াটসঅ্যাপ। যে টিমের দায়িত্বে থাকবেন বাঙালি অভিজিত বসু। গুরুগ্রামে হবে এই নয়া টিমের দফতর।

ভারতে কেন হঠাৎ আলাদা দফতর তৈরি করতে উদ্যোগী হল ফেসবুকের মালিকাধীন এই সংস্থাটি?

এর উত্তরে দু’টি বিষয় উঠে আসছে। ভারতের ডিজিট্যাল অর্থনীতিতে জোরালো ভাবে অংশ নিতে চাইছে তারা। এ বছর ফেব্রুয়ারি মাসে অনলাইন টাকা ট্রান্সফারের সুবিধা চালু করেছিল হোয়াটসঅ্যাপ। সেই ব্যবস্থাকেই আরও বড় করে বাজারে আনার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। মূলত সে কারণেই অভিজিত বসুকে ভারতে সংস্থার প্রধান করা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

ইতিমধ্যেই গুগুল পেমেন্ট অ্যাপ বাজারে এনেছে। অভিজিতবাবু অনলাইন পেমেন্ট প্ল‌্যাটফর্ম ইজেট্যাপের প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রাক্তন সিইও। ২০১১ সালে সংস্থাটি ভারতে কাজ শুরু করে। সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপের চিফ অপারেটিং অফিসার ম্যাট ইডেমা জানিয়েছেন, ‘‘হোয়াটসঅ্যাপ ভারতের প্রতি দায়বদ্ধ। ক্রমবর্ধমান ডিজিট্যাল অর্থনীতিতে অংশ নিতে এবং সহায়তা করতে আমরা নানা ধরনের প্রোডাক্ট তৈরি করছি।’’ এই মুহূর্তে ভারতে প্রায় ২০ কোটিরও বেশি হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারী রয়েছে।

আরও পড়ুন : শেষ ১৪৫ দিনের সর্বনিম্ন দামে পৌঁছাল কলকাতার পেট্রোল

তবে ভারতে আলাদা দফতর করার পিছনে আরও একটি যুক্তি উঠে আসছে। ভুয়ো খবর এবং বার্তা নিয়ে কেন্দ্র ও বিরোধী দলের চাপে আলাদা দফতর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংস্থাটি। সংস্থাটিকে কেন্দ্র অনুরোধ করে ভুয়ো খবর এবং বার্তাকে নিয়ন্ত্রণ করা এবং যেখান থেকে আসছে, তাকে চিহ্নিত করার জন্য ব্যবস্থা তৈরি করতে। সেই অনুরোধ মেনেই সম্প্রতি কমল লাহিড়ি নামে সংস্থার এক আধিকারিককে এই ধরনের অভিযোগ শোনার জন্য এবং ব্যবস্থা নেওয়ার দায়িত্বও দেওয়া হয়েছে। এই ব্যবস্থাটিকেও যাতে আরও ভালো করে কার্যকরী করা যায় সেই জন্য এই উদ্যোগ বলে মনে করা হচ্ছে।

অনলাইন পেমেন্ট প্ল‌্যাটফর্ম ইজেট্যাপের হয়ে যা বলেছিলেন অভিজিত বসু।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here