ওয়াশিংটন: ফোর্বস এবং ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল। দুটি অত্যন্ত জনপ্রিয় মার্কিন পত্রিকা। এবং দুটিই মুক্ত বাজার অর্থনীতির পৃষ্ঠপোষক। সম্প্রতি নরেন্দ্র মোদীর নোট বাতিল নীতির বিরুদ্ধে সরব হয়েছে দুটি সংস্থাই। দেশের নগদ অর্থনীতির শতকরা ৮৫ ভাগ বিমুদ্রাকরণের সিদ্ধান্তকে ‘অনৈতিক’ এবং ‘অসুস্থ’ বলে ব্যাখ্যা করেছে ওই দুই সংস্থা।

ফোর্বস-এর এডিটর-ইন-চিফ স্টিভ ফোর্বসের মত, “ব্যক্তিগত জীবনে হস্তক্ষেপ করে মানুষের ওপর জোর করে সরকারের সিদ্ধান্তকে চাপিয়ে দেওয়াই এর মূল উদ্দেশ্য”। তিনি আরও বলেন, সরকার প্রত্যেকটা মানুষের জীবন নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছে। ওয়ালস্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত হওয়া ‘ইন্ডিয়া’জ বিজারে ওয়ার অন ক্যাশ’ নিবন্ধেও কড়া সমালোচনা করা হয় ভারতের বিমুদ্রাকরণ নীতির। নিবন্ধে বলা হয়েছে, সরকারি আমলা এবং মন্ত্রীরা ইচ্ছেমতো ক্ষমতার ব্যবহার করছে।

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর দেশকে ‘ক্যাশলেস ইকনমি’ তে বদলে ফেলার ঘোষিত স্বপ্ন নিয়েও ব্যঙ্গ করতে ছাড়েননি স্টিভ ফোর্বস। বলেছেন, “মুক্ত বাজার অর্থনীতির সমর্থন ছাড়া নগদহীন অর্থনীতি অর্জন করা ভারতের একার পক্ষে সম্ভব নয়। মোদীর এই জনবিরোধী নীতি রাজনীতিকে দূষিত করছে এবং নষ্ট হচ্ছে ভবিষ্যত বিনিয়োগের সম্ভাবনা। পাশাপাশি সারা বিশ্বের সামনে এক ভয়াবহ দৃষ্টান্ত স্থাপন করলে ভারতের সরকার। একই সুরে ওয়ালস্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত হওয়া নিবন্ধে নগদহীন অর্থনীতির তীব্র সমালোচনা করে লেখা হয়েছে, এই ধরনের অর্থনীতি সাধারণ মানুষের পক্ষে বেশি ক্ষতিকারক। এই অর্থনীতির দিকে এগোলে, ভারতে আমলাতন্ত্রের আগ্রাসী চরিত্র সাধারণ মানুষের অর্থনৈতিক স্বাধীনতা পুরোপুরি কেড়ে নেবে বলেই মনে করছে ওয়ালস্ট্রিট।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here