ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নিয়ে ঘরেই অশান্তি। রিপাবলিকান দলের প্রায় ৫০ জন জাতীয় নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ট্রাম্পের প্রতি তাঁদের অনাস্থা জানিয়েছেন। তাঁরা মনে করেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হওয়ার কোনও যোগ্যতাই নেই তাঁর। এক খোলা চিঠিতে তাঁরা স্পষ্ট বলেছেন, ট্রাম্প নির্বাচিত হলে তিনিই হবেন আমেরিকার ইতিহাসে ‘সব চেয়ে হঠকারী প্রেসিডেন্ট’। স্বাক্ষরকারীদের মধ্যে প্রাক্তন সিআইএ ডিরেক্টর মাইকেল হেডেন রয়েছেন। এঁরা বলেছেন, “ চারিত্রিক গুণাবলী, নীতিবোধ ও অভিজ্ঞতার অভাব রয়েছে ট্রম্পের মধ্যে”।

ট্রাম্পও এর জবাবে চুপচাপ না থেকে পালটা দিয়েছেন। বলেছেন, “এঁরা ওয়াশিংটনের ব্যর্থ ক্ষমতাশালী একটা অংশ, যাঁরা ফের ক্ষমতাশালী হতে চান”।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের মনোনয়ন নিয়ে রিপাবলিকান দলে অসন্তোষ চরমে। দলের যে বিদেশনীতি, তার বিরুদ্ধে গিয়ে ট্রাম্প বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন মন্তব্য করেছেন। ন্যাটোর প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের যে দায়বদ্ধতা তা চালিয়ে যাওয়া নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ট্রাম্প, অত্যাচার সমর্থন করেছেন, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানকে পরমাণু অস্ত্রধর দেশ হিসাবে দেখতে চেয়েছেন।    

নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞদের চিঠিতে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধান, আইন, প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে মৌলিক জ্ঞানটুকু নেই ট্রাম্পের। পাশাপাশি ধর্মীয় সহনশীলতা, সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা ও স্বাধীন বিচারব্যবস্থার প্রতিও তিনি আস্থাশীল নন। মুক্ত বিশ্বের নৈতিক ‘অথরিটি’ হওয়ার যে অধিকার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রয়েছে তাকে দুর্বল করছেন ট্রাম্প। “তাই আমরা কেউই তাঁকে ভোট দেব না”।

এর আগে মার্চেও কিছু রিপাবলিকান নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এ রকম কথা বলেছিলেন। কিন্তু হিলারি ক্লিনটনের ই-মেল সার্ভার হ্যাক করার ব্যাপারে রাশিয়াকে উৎসাহ জুগিয়েছেন ট্রাম্প, এই খবর ছড়িয়ে পড়ার পরেই তাঁর বিরুদ্ধে প্রচার আরও জোরদার হয়। ট্রাম্প পরে বলেন, তিনি ‘মজা করে’ কথাটা বলেছিলেন।

নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞদের এই চিঠির পরেই রিপাবলিকান দলে অনেকেই ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মুখ খুলছেন। প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের তৎকালীন সহযোগী লেজলি ওয়েস্টাইন জানিয়ে দিয়েছেন তিনি হিলারি ক্লিনটনকে ভোট দেবেন। ফ্লোরিডায় রিপাবলিকান দলের প্রধান মুখপাত্র ওয়াদি গাইতান দল ছেড়ে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন।   

ট্রাম্প অবশ্য দমে যাওয়ার পাত্র নন। তিনি বলেছেন, কারা বিশ্বের এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতির জন্য দায়ী তা এই চিঠির সুবাদে দেশবাসীর সামনে উঠে এল।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here