Connect with us

বিদেশ

মার্কিন পথে কুয়েতও, কর্মহীন হয়ে দেশছাড়া হতে পারেন ৮ লক্ষ ভারতীয়

বর্তমানে কুয়েতে যত বিদেশি রয়েছেন, তাঁদের মধ্যে ভারতীয়দের সংখ্যাই সবচেয়ে বেশি।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের দেখানো পথে এ বার হাঁটতে চলেছে কুয়েতও (Kuwait)। সে দেশে কর্মহীন হয়ে দেশ ছাড়ার আশঙ্কায় ৮ লক্ষ ভারতীয়।

প্রবাসী কোটা বিলের খসড়া তৈরি করেছে কুয়েত সরকার। দেশের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে ইতিমধ্যে তা মঞ্জুরও হয়ে গিয়েছে। ওই বিলটি আইনে পরিণত হলে, প্রায়  ৮ লক্ষ ভারতীয়কে কুয়েত ছেডে় বেরিয়ে যেতে হবে।

ভারতীয়রা যাতে কোনো ভাবেই সে দেশের মোট জনসংখ্যার ১৫ শতাংশ অতিক্রম করতে না পারে, সেই কথাই বলা হয়েছে ওই কুয়েতে। বিলটিকে খুব শীঘ্র সংসদে প্রবাসী জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ কমিটির কাছে পাঠানো হবে। সেখানে যে সিদ্ধান্ত গৃহীত হবে, সেই মতোই এগোবে কুয়েত সরকার।

কুয়েতে কত ভারতীয় রয়েছেন

এই মুহূর্তে কুয়েতের মোট জনসংখ্যা প্রায় ৪৩ লক্ষ। এর মধ্যে মাত্র ১৩ লক্ষ কুয়েতি নাগরিক। বাকি ৩০ লক্ষই বিভিন্ন দেশ থেকে সেখানে গিয়েছেন। এর প্রবাসী জনসংখ্যার ১৪ লক্ষ ৫০ হাজার আবার ভারতীয়।

অর্থাৎ বর্তমানে কুয়েতে যত বিদেশি রয়েছেন, তাঁদের মধ্যে ভারতীয়দের সংখ্যাই সব চেয়ে বেশি। তাই বিলটি আইনে পরিণত হলে সবার আগে সেখানে বসবাসকারী ভারতীয়দের উপরই বিপদ নেমে আসবে।

এই মুহূর্তে কুয়েতে নার্স, ইঞ্জিনিয়ার এবং বিজ্ঞানী মিলিয়ে প্রায় ২৮ হাজার ভারতীয় সরকারি চাকরিতে নিযুক্ত রয়েছেন। বেসরকারি সংস্থায় নিযুক্ত প্রায় ৫ লক্ষ ২৩ হাজার মানুষ।

তাঁদের পরিবার-পরিজন মিলিয়ে আরও ১ লক্ষ ১৬ হাজার ভারতীয় রয়েছেন সেখানে। কুয়েতের ২৩টি ভারতীয় স্কুলে প্রায়  ৬০ হাজার ভারতীয় পড়ুয়া পাঠরত। এ ছাড়াও ব্যবসা-বাণিজ্যে যুক্ত রয়েছেন বহু মানুষ।

বিদেশি হঠানোর দাবি উঠছে

তেলের দামে ক্রমশ পতন আর করোনার কারণে প্রবল অর্থসঙ্কট। এই দুই পরিস্থিতি সামাল দিতে বেশ কিছু দিন ধরেই বিদেশি হটানোর দাবি উঠছে কুয়েতে। মন্ত্রী আমলারা তো বটেই, গত মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ সাবাহ্ আল খালিদও এমনই দাবি তোলেন। দেশে প্রবাসী জনসংখ্যা ৭০ শতাংশ থেকে ৩০ শতাশে নামিয়ে আনার প্রস্তাব দেন তিনি।

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

বিদেশ

১২ আগস্ট বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাকসিন খাতায়-কলমে নথিভুক্ত করছে রাশিয়া

চিকিৎসাকর্মী এবং প্রবীণ নাগরিকদের প্রথম টিকাকরণ করা হবে।

তৃতীয় তথা শেষ ধাপে রয়েছে গামালেই ন্যাশনাল রিসার্চ সেন্টারের ভ্যাকসিন।

মস্কো: কে আগে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিন বাজারে আনবে, তা নিয়েই চলছে অলিখিত প্রতিযোগিতা। এরই মধ্যে রাশিয়ার (Russia) স্বাস্থ্যমন্ত্রী ওলেগ গ্রিদনেভ (Oleg Gridnev) দাবি করেছেন, আগামী ১২ আগস্ট তাঁরা নিজেদের প্রথম করোনা ভ্যাকসিনটির নিবন্ধন করতে চলেছেন।

এই ভ্যাকসিনটি যৌথ ভাবে তৈরি করছে গামালেই ন্যাশনাল রিসার্চ সেন্টার ফর এপিডিমিওলজি অ্যান্ড মাইক্রোবায়োলজিও (Gamalei National Research Center for Epidemiology and Microbiology) এবং রাশিয়ান প্রতিরক্ষামন্ত্রক (Russian Defence Ministry) । রাশিয়ার সেনাবাহিনী এই টিকার পরীক্ষামূলক প্রয়োগ ইতিমধ্যেই শুরু করেছে।

গত শুক্রবার একটি ক্যানসার কেন্দ্রের উদ্বোধনে উপস্থিত হয়ে গ্রিদনেভ সাংবাদিকদের সামনে বলেন, “গামালেই সেন্টারের তৈরি ভ্যাকসিনটি আগামী ১২ আগস্ট রেজিস্টার হতে চলেছে। ভ্যাকসিনটির পরীক্ষামূলক প্রয়োগ বর্তমানে তৃতীয় তথা শেষ পর্যায়ে রয়েছে। আমরা দেখেছি যে, এই ভ্যাকসিনটি নিরাপদ হওয়া উচিত। এটির মাধ্যমে চিকিৎসাকর্মী এবং প্রবীণ নাগরিকদের প্রথম টিকাকরণ করা হবে”।

মন্ত্রীর মতে, একটা বড়ো অংশের জনসংখ্যার প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হওয়ার পরে ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা বিচার করা হবে।

গত ১৮ জুন এই ভ্যাকসিনটির ক্লিনিক্য়াল ট্রায়াল শুরু হয়। ৩৮ জন স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে এটি প্রয়োগ করা হয়। প্রত্যেকের শরীরেই অনাক্রম্যতার বিকাশ হয়েছে বলে দাবি করেছেন গবেষকরা। ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে অংশ নেওয়া প্রথম দলটিকে গত ১৫ জুলাই এবং দ্বিতীয় দলটিকে গত ২০ জুলাই ছেড়ে দেওয়া হয়। তার পর থেকেই তাঁদের উপর পর্যবেক্ষণ চলছে।

করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন আপডেট: যাবতীয় খবর পড়ুন এখানে ক্লিক করে

মস্কো আগেই জানিয়েছিল যে, সে দেশে আলাদা আলাদা ভাবে করোনাভাইরাসের (Coronavirus) ৫০টি টিকার ওপরে কাজ চলছে। গামালেই-এর পাশাপাশি রাশিয়ার সেচনেভ বিশ্ববিদ্যালয়ের (Sechnov University) গবেষকরাও গত জুলাই মাসে দাবি করেন, মানবদেহে করোনার টিকা প্রয়োগের প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করে ফেলেছে তাঁরা। এই ভ্যাকসিনগুলিই (Vaccines) আপাতত প্রতিযোগিতায় এগিয়ে রয়েছে।

Continue Reading

বিদেশ

টিকটকের পেরেন্ট সংস্থার সঙ্গে আর্থিক লেনদেনে নিষেধাজ্ঞা ডোনাল্ড ট্রাম্পের

আগামী ৪৫ দিনের মধ্যেই এই নিয়ম বলবৎ হবে।

Donald Trump

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভারতের পর এ বার চিনের ওপরে ডিজিটাল স্ট্রাইক চালাল আমেরিকা। জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ টিকটকের (Tiktok) পেরেন্ট ফার্ম, অর্থাৎ যার মালিকানাধীন এই টিকটক, সেই সংস্থার সঙ্গে কোনো রকম আর্থিক লেনদেনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আগামী ৪৫ দিনের মধ্যেই এই নিয়ম বলবৎ হবে।

ট্রাম্পের কথায়, “জাতীয় নিরাপত্তার জন্য টিকটকের মালিকের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ করা প্রয়োজন। সেটাই করছে আমেরিকা।”

দক্ষিণ কালিফোর্নিয়ায় চিনা কোম্পানি বাইটডান্স, অর্থাৎ যার মালিকানাধীন এই টিকটক, তাদের মার্কিন হেডকোয়ার্টার রয়েছে। মার্কিন মুলুকে প্রায় ১৭৫ মিলিয়ন বার ডাউনলোড করা হয়েছে এই ভিডিও তৈরির টিকটক অ্যাপ। সংখ্যাই বলে দিচ্ছে সে দেশে কতখানি জনপ্রিয় অ্যাপটি।

আমেরিকার দাবি, টিকটকের মাধ্যমে চিনের কাছে যে তথ্য পৌঁছে যাচ্ছে। এর ফলে মার্কিন মুলুকের সরকারি কর্মচারীদের অবস্থান, কর্মকাণ্ড জেনে নিয়ে তাঁদের ব্ল্যাকমেল করার রাস্তা তৈরি হয়ে যাচ্ছে।

করোনাভাইরাস (Coronavirus) নিয়ে চিনের বিরুদ্ধে একাধিকবার তোপ দেগেছেন ট্রাম্প। এ বার নিজের দেশের ডিজিটাল সুরক্ষার জন্য আমেরিকায় কোণঠাসা করা হল চিনকে। ট্রাম্পের এ দিনের এই পদক্ষেপের ব্যাপারে চিন কী প্রতিক্রিয়া দেয় সেটাই দেখার।

তবে এরই মধ্যে টিকটক কিনে নেওয়ার ব্যাপারে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে মাইক্রোসফট। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে এই অ্যাপটি কিনে নিতে পারে তারা।

Continue Reading

বিদেশ

‘ভাসমান বোমার’ হুমকিকে উপেক্ষা, ক্ষোভে ফুঁসছে বেইরুট

ছ’মাস আগেই গুদামটি পরিদর্শন করে আধিকারিকরা জানিয়েছিলেন, এটা যদি সরিয়ে না যাওয়া হয় তা হলে “পুরো বেইরুট উড়ে যাবে।”

বেইরুট: ক্ষোভ আর আতঙ্ক বাড়ছে লেবাননের রাজধানী বেইরুটে (Beirut)। প্রশাসনের থেকে জানানো হয়েছে মঙ্গলবারের ভয়াবহ বিস্ফোরণে এখনও পর্যন্ত শহরে ১৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহতের সংখ্যা প্রায় পাঁচ হাজার।

ক্ষোভ বাড়ছে কারণ ‘ভাসমান বোমার’ ব্যাপারে প্রশাসনকে বারবার সতর্ক করা হলেও বিশেষ কোনো পদক্ষেপ কোনো দিনই করেনি তারা। বেইরুট বন্দরের গুদামে ২৭৫০ টন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট মজুত করা ছিল ২০১৪ থেকে। মঙ্গলবার সেটাই বিস্ফোরিত হয় পর পর দু’ বার।

ছ’ মাস আগেই গুদামটি পরিদর্শন করে আধিকারিকরা জানিয়েছিলেন, এটা যদি সরিয়ে না নেওয়া হয় তা হলে “পুরো বেইরুট উড়ে যাবে।”

লেবাননের (Lebanon) সরকারের বিরুদ্ধে এমনিতেই ক্ষোভ বাড়ছে মানুষের। দেশে আর্থিক সংকট ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। এর ফলে মোট জনসংখ্যার অর্ধেকই এখন দারিদ্রসীমার নীচে চলে গিয়েছে। এর ওপরে আবার যোগ হয়েছে এই বিস্ফোরণের হুমকিকে বার বার উপেক্ষা করার মতো সরকারি গাফিলতি।

বেইরুটের বর্তমান পরিস্থিতি

বুধবার বিকেলে লেবানন সরকার জানিয়েছে যে তদন্তের কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত গৃহবন্দি করা হচ্ছে বেইরুট বন্দরের আধিকারিকদের। তবে কত জন আধিকারিককে বন্দি করা হয়েছে সে ব্যাপারে কোনো তথ্য সরকার দেয়নি।

পাশাপাশি, বেইরুটে দু’ সপ্তাহের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করেছে সরকার। যার অর্থ, লেবাননের রাজধানীতে সেনাবাহিনীর ওপরে এখন পূর্ণ ক্ষমতা।

মৃত এবং আহতের সংখ্যা যেমন বাড়ছে তেমনই বাড়ছে ঘরবাড়ি ভয়াবহ ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া মানুষের সংখ্যাও। প্রশাসনের হিসেব অনুযায়ী শহরের তিন লক্ষ বাসিন্দার বাড়ি ভয়াবহ ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বুধবার সকাল থেকে নতুন লড়াইয়ে নামতে হয় বেইরুটবাসীদের। নিজেদের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়িগুলিকে নতুন করে সাজিয়ে তোলার লড়াই। যে বাড়িগুলো সাংঘাতিক ভাবে ক্ষতির মুখে পড়েনি, সেখানেও জানলার কাচ ভেঙেছে, ভেঙে পড়েছে বৈদ্যুতিন ফিটিং।

কী ভাবে বিপুল পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট মজুত হল

বেইরুটবাসীর স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন এই অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট বন্দরে মজুত হল কী ভাবে?

২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে এক রুশ ব্যক্তির মালিকানাধীন মালদোভার পতাকাবাহী একটি কার্গো জাহাজে করে লেবাননে পৌঁছোয় এই বিপুল পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট। শিপ ট্র্যাকিং সাইট ফ্লেটমোনের তথ্য অনুযায়ী জাহাজটি জর্জিয়া থেকে মোজাম্বিক যাচ্ছিল।

কারিগরি ত্রুটির কারণে জাহাজটিকে বেইরুটের জেটিতে ভিড়তে বাধ্য করা হয়। লেবাবন কর্তৃপক্ষ জাহাজটিকে আটকেই রাখে। বাজেয়াপ্ত করা হয় এই বিপুল পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট। এর পর ওই জাহাজকে বেইরুট বন্দরে রেখেই মালিক ও কর্মীরা চলে যায়।

পরে জাহাজ থেকে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট নামানো হয়। রাখা হয় বন্দরের ১২ নম্বর হ্যাঙ্গারে। হ্যাঙ্গারটি মূল শহরে ঢোকার জন্য ব্যস্ততম সড়কের ঠিক ধারেই অবস্থিত।

এর পর ২০১৪-এর ২৭ জুন লেবানন কাস্টমসের পরিচালক শাফিক মেরহি দ্রুত বিষয়টি নিষ্পত্তি করার জন্য একটি চিঠি পাঠান। এর পরের তিন বছরে আরও পাঁচটি চিঠি দেওয়া হয়।

অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট-সংক্রান্ত এই ব্যাপারটি সমাধানের জন্য মূলত তিনটে প্রস্তাব দেওয়া হয় এই কার্গো জাহাজের মালিকের কাছে। প্রস্তাবগুলি হল, ১. নাইট্রেট সরিয়ে নেওয়া, ২. লেবাননের সেনাবাহিনীর কাছে হস্তান্তর করা, ৩. লেবাননের বেসরকারি বিস্ফোরক কোম্পানির কাছে বিক্রি করে দেওয়া।

কিন্তু এই চিঠিগুলোর কোনো জবাব আসেনি কখনও। ছ’মাস আগে গুদামের সেই ১২ নম্বর হ্যাঙ্গার পরিদর্শন করে আধিকারিকদের মত ছিল, ‘ভাসমান বোমা’ মজুত রয়েছে বেইরুটে।

বিস্ফোরণ হল কী ভাবে

কিন্তু এখনও যেটা নিশ্চিত করা যাচ্ছে না, সেটা হল এই অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটে বিস্ফোরণ হল কী ভাবে। সাধারণত, এতে বিস্ফোরণ হতে গেলে চরম তাপের প্রয়োজন।

তবে একটা ধারণা করা হচ্ছে যে সম্ভবত কাছাকাছি কোনো জায়গায় আগুন লাগার ঘটনা ঘটেছিল। মঙ্গলবারই বেইরুট পুরসভার নির্দেশে বন্দরের কাছেই একটি জায়গায় যায় দমকলবাহিনী। তার পর থেকেই তাদের আর কোনো খোঁজ নেই। এটাই ইঙ্গিত যে আগুন থেকেই ভয়াবহ এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

বসবাসের অযোগ্য

বেইরুটের পূর্বাংশের একটা বড়ো অংশ এখন বসবাসের পুরোপুরি অযোগ্য হয়ে পড়েছে। টায়ারের দোকানের ম্যানেজার ইসাম নাসির বলেন, “আমি জানি না, এই দুর্যোগ কী ভাবে কাটিয়ে উঠব, আপনাদের কী মনে হয় যে হিরোশিমার ঘটনা এর থেকেও ভয়াবহ ছিল?”

কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ নয়, কোনো জঙ্গি যোগও নেই। শুধুমাত্র প্রশাসনের তরফে চূড়ান্ত একটা গাফিলতির ফলে বিশ্বের ইতিহাসে অন্যতম ভয়ংকর ঘটনা ঘটে গেল মঙ্গলবার। সরকারের ওপরে ক্ষোভ যে বাড়বেই তা তো বলাই বাহুল্য।

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
দেশ4 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৬২০৬৪, সুস্থ ৫৪৮৫৯

দেশ2 days ago

বিমান দুর্ঘটনা লাইভ: উদ্ধার ব্ল্যাক বক্স, উদ্ধারকারীদের কোয়ারান্টাইনে যাওয়ার নির্দেশ শৈলজার

কলকাতা2 days ago

ঢাকায় পথদুর্ঘটনায় নিহত পর্বতারোহী, শোকস্তব্ধ কলকাতার পাহাড়প্রেমীরা

দেশ2 days ago

“দুর্ঘটনা নয়, পরিকল্পিত খুন”, কোড়িকোড়ের ঘটনা নিয়ে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ এয়ার সেফটি এক্সপার্টের

খেলাধুলো3 days ago

জাতীয় দলের অধিনায়ক-সহ পাঁচ ভারতীয় হকি খেলোয়াড় করোনা পজিটিভ

রাজ্য3 days ago

১১-১২ বছর ধরে ভাত খান না বিমান বসু, তা হলে কী খান?

বিনোদন2 days ago

২৮ দিন পর করোনা মুক্ত অভিষেক বচ্চন

দেশ3 days ago

কোড়িকোড়ে ১৯১ জন যাত্রী নিয়ে পিছলে গিয়ে দু’টুকরো এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের বিমান, মৃত পাইলট-সহ ১১

রবিবারের খবর অনলাইন

কেনাকাটা

কেনাকাটা4 days ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা4 days ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা5 days ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা1 week ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা2 weeks ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা2 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা3 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা3 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা4 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

laptop laptop
কেনাকাটা4 weeks ago

ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ২৫ হাজার টাকার মধ্যে এই ৫টি ল্যাপটপ

খবরঅনলাইন ডেস্ক : কোভিভ ১৯ অতিমারির প্রকোপে বিশ্ব জুড়ে চলছে লকডাউন ও ওয়ার্ক ফ্রম হোম। অনেকেই অফিস থেকে ল্যাপটপ পেয়েছেন।...

নজরে

Click To Expand