ওয়েবডেস্ক: ক্লাসঘরে সারি সারি ডেস্কে তখন মন দিয়ে পরীক্ষা দিচ্ছে পড়ুয়ারা। এমন সময় স্কুল চত্বরে ঢুকে পড়ল দুই ‘বহিরাগত’। কি, রাজনীতির গন্ধ পাচ্ছেন? কিন্তু এ ঘটনা তার চেয়েও রোমহর্ষক। ক্রমশ ফুলে ফেঁপে ওঠা রাজনৈতিক দলের কোনও প্রভাবশালী নেতা তো নয়, বহিরাগতরা হলেন দুই বুনো শুয়োর, যাকে বলে বোয়ার। এদের মধ্যে একটি আবার সোজা চলে গেল ক্লাসে। কোনও অনুমতি ছাড়াই! অনুমতি দেওয়ার মতো অবস্থাতেও অবশ্য ছিলেন না শিক্ষকরা। খুদে পড়ুয়াদের তো আত্মারাম খাঁচা ছাড়া। জাপানের কিয়োতো শহরের এক স্কুলে গত সোমবার এমনটাই ঘটেছে।

স্কুলে সে সময় চলছে মিডটার্ম পরীক্ষা। পরীক্ষা হলের কাছাকাছি গিয়ে সে কী সাঙ্ঘাতিক হম্বিতম্বি তার। সঙ্গীটি ততক্ষণে আরাম করে গা ডুবিয়েছে স্কুলের সুইমিং পুলে। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যাচ্ছে ভয়ে ফ্যাকাশে হওয়া যাওয়া মুখগুলো ত্রস্ত পায়ে দৌড়চ্ছে স্কুলসুপারের কাছে। তবে সেদিনকার পরীক্ষায় অনাকাঙ্ক্ষিত বিরতি ঘটলেও, পরবর্তী পরীক্ষাগুলো সময় সূচি মেনেই হয়েছে, জানিয়েছে  জাপানের সংবাদমাধ্যম।

অবশেষে শুয়োর দু’টিকে বাগে আনতে বন্দুকের গুলি চালাতে হয়। গুলিতে মৃত্যু হয় দুই বুনো শুয়োরের।

‘হাইটেক সিটি’-র উন্নয়নের চাপে জাপানের বুনো শুয়োরদের চারণভূমি হারিয়ে যাচ্ছে ক্রমশ। বন জঙ্গল ধ্বংস করে উঠছে আকাশচুম্বি বহুতল। স্বভাবতই প্রায়শই শহরের রাস্তায় চলে আসতে হচ্ছে বোয়ারদের। সমস্যা রীতিমতো ভাবাচ্ছে জাপানের পরিবেশবিদদের।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here