অবশেষে স্বস্তির বৃষ্টি, এ ভাবেই আনন্দে মেতে উঠলেন দহন-দাবানল জর্জরিত অস্ট্রেলিয়ার এক কৃষক

    আরও পড়ুন

    ওয়েবডেস্ক: দাবানল বিধ্বস্ত অস্ট্রেলিয়ায় অবশেষে দেখা মিলল স্বস্তির বৃষ্টি। আর তা দেখে নিজের আনন্দ চেপে রাখতে পারলেন না এক কৃষক। বৃষ্টিতে ভিজতে ভিজতে নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করলেন। সেই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট হতেই নিমেষের মধ্যে তা ভাইরাল।

    শুধু ওই কৃষকই নয়, ভাইরাল হয়েছে এক শিশুর উচ্ছ্বাসও। বৃষ্টি দেখে এক দৌড়ে বাড়ি থেকে বাইরে বেরিয়ে আসে একরত্তি। বৃষ্টিতে গা ভিজিয়ে নাচতে শুরু করেছে সে। সোশ্যাল মিডিয়ায় খুদের কীর্তির ভিডিও শেয়ার করেন তাঁর মা।

    Loading videos...

    গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকেই জ্বলছে অস্ট্রেলিয়া। দাবানলে পুড়ে ছাই বিস্তীর্ণ বনাঞ্চল। অসহায়ের মতো প্রাণ হারিয়েছে বহু বন্যপ্রাণী। নষ্ট হয়ে গিয়েছে একরের পর একরের জমি। দমকলকর্মীদের অক্লান্ত পরিশ্রমেও আগুন নিয়ন্ত্রণে সময় লেগে গিয়েছে অনেক। দাবানল-বিধ্বস্ত অস্ট্রেলিয়া যেন এখন মৃত্যুপুরী। থমথমে বিস্তীর্ণ এলাকা।

    - Advertisement -

    অস্ট্রেলিয়ার ইতিহাসে সব থেকে ভয়ংকরতম দাবানলে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২৯ জনের। এ ছাড়া প্রায় লক্ষাধিক বন্যপ্রাণী মারা গিয়েছে। আগুন এখনও জ্বলছে অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসের বিভিন্ন জঙ্গলে। দমকলকর্মীদের পরিশ্রম সত্ত্বেও দরকার ছিল ঝেঁপে বৃষ্টির।

    বৃহস্পতিবারই সেই বৃষ্টি নামে নিউ সাউথ ওয়েলসে। দীর্ঘ দহন কাটিয়ে নামা সেই বৃষ্টি কিন্তু এখনও চলছে। আর আগামী বেশ কয়েক দিন সেই বৃষ্টি চলতে পারে।

    নিউ সাউথ ওয়েলসের কারুয়াহতে বৃষ্টি হল প্রায় দেড় বছর পর। আর তাই সেই বৃষ্টি দেখে নিজের উচ্ছ্বাস চেপে রাখতে পারেননি এক কৃষক।

    Karuah famer celebrates rain

    YEE-HA! ?? Glorious rain after 18 months of drought. This is one happy farmer at Karuah, NSW. ?: jesschaps2 via Reddit

    Posted by Australian Story on Thursday, January 16, 2020

    ঠিক যেমন, আঠারো মাসের খুদে সুনি ম্যাকেঞ্জিও বাড়ির বাইরে বেরিয়ে এল বৃষ্টিতে ভিজতে। ওই খুদের মা টিফানি ম্যাকেঞ্জি তাঁর সন্তানের নাচের ভিডিও স্মার্টফোনবন্দি করেন।

    আরও পড়ুন সোমবার শীতের প্রত্যাবর্তন, কিন্তু…

    ভিডিওটি শেয়ার করেন আইএফএস আধিকারিক সুশান্ত নন্দা। তিনি লিখেছেন, “দাবানলে বিধ্বস্ত অস্ট্রেলিয়ায় একটু স্বস্তি দিচ্ছে এই ভারী বৃষ্টি। আর জীবনে প্রথম বার বৃষ্টি থেকে আনন্দে নেচে উঠেছে ১৮ মাসের ছোট্ট সুনি। সত্যি এত দিন পর বৃষ্টি আসার অনুভূতি অস্ট্রেলিয়াবাসীর কাছে স্বর্গীয়।”

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here

    This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

    - Advertisement -

    আপডেট খবর