ওয়েবডেস্ক : তুরস্কের মধ্য কায়সেরি প্রদেশ থেকে ৪০০০ বছরের পুরোনো একটা ফলক আবিষ্কার হয়েছে। এটা একটা বিবাহচুক্তি। যেখানে বন্ধ্যাত্বের সমাধান সূত্র বের করা হয়েছে। সে দিক থেকে বলা যেতেই পারে বন্ধ্যাত্ব নিয়ে এটাই প্রথম পথনির্দেশ বা প্রতিকার। এই ফলকে বলা হয়েছে, বিয়ের দু’ বছরের মধ্যে দম্পতির কোনো সন্তান না হলে স্ত্রী তাঁর স্বামীকে অনুমতি দেবে এক জন মহিলা ক্রীতদাস ভাড়া করার জন্য। এই মহিলা ক্রীতদাস হবেন দম্পতির জন্য ‘সারোগেট মাদার’।

আবিষ্কার হওয়া ফলকটি মাটির। আক্কাডিয়ান ভাষার একটা ভাগ প্রাচীন আসৃয়ান উপভাষা, তাতেই লেখা এই ফলক। এটা একটা স্থানীয় ভাষা। ফলকটা শঙ্কু আকৃতির। এটা ইস্তানবুলের ‘আর্কিওলজিক্যাল মিউজিয়ম’-এ রাখা আছে। এটাই মানুষের বন্ধ্যাত্বের বিষয়ে প্রথম সমাধান, প্রথম প্রমাণ হিসেবে পরিচিত।

এই গবেষক দলের প্রধান আহমেদ বেরকিজ তুরপ। তিনি বলেছেন, ফলকে বলা হয়েছে, ওই মহিলা ক্রীতদাস একটা পুত্রসন্তানের জন্ম দিলে তাকে মুক্তি দেওয়া হবে। এ ব্যাপারে নিশ্চিত হতে হবে যে, পরিবারটি আর সন্তানহীন রইল না।

গাইনোকোলজিক্যাল এন্ডোক্রিনোলজি এই পত্রিকায় এই আবিষ্কারের ব্যাপারে জানানো হয়েছে। তুরস্কের কুলটেপে এলাকায় খনন কার্য করার সময় এটা আবিষ্কার হয়েছে। এখানে ২১০০ থেকে ১৮০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে পুরোনো অ্যাসিরিয়ান সাম্রাজ্যের বাণিজ্যিক উপনিবেশ আর বসতি ছিল। এখান থেকেই ১৯২৫ সালে ১০০০টা পুরোনো অ্যাসিরিয়ান ফলক আবিষ্কার হয়েছিল। এগুলো কাপ্পাডিসিয়ান ফলক নামে পরিচিত।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here