Connect with us

পরিবেশ

অ্যান্টার্কটিকার ইতিহাসে উষ্ণতম দিন, তাপমাত্রা জানলে চমকে যাবেন

Published

on

ওয়েবডেস্ক: তাপমাত্রা উঠে গিয়েছে ১৮ ডিগ্রির ওপরে। এ রকম পারদ আগে কখনও কুমেরু মহাদেশ। ফলে জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে প্রবল আশঙ্কায় বিজ্ঞানীরা।

বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থা (ডব্লিউএমও) জানিয়েছে, এই মহাদেশের উত্তরে এসপাঞ্জা বেস-এ পারদ রেকর্ড করা হয়েছে ১৮.৩ ডিগ্রিতে। গত বৃহস্পতিবার এই তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

সংস্থার মুখপাত্র ক্লেয়ার নালিস বলেছেন, “গরম কালেও এই ধরনের পারদ কুমেরুতে দেখা যায়নি কখনও। ২০১৫ সালে একবার এখানে তাপমাত্রা উঠেছিল সাড়ে ১৭ ডিগ্রিতে। এ বার সেই রেকর্ডকেও টপকে গেল।”

Loading videos...

তিনি আরও যোগ করেন, “আমরা সুমেরু নিয়েও কথা বলি, কিন্তু কুমেরুতে বরফ গলার পরিমাণ অনেক বেশি।”

আরও পড়ুন আরও পাঁচ বছর কেজরিওয়াল, না কি গেরুয়া চমক? সিদ্ধান্ত নিচ্ছে দিল্লিবাসী

যে হারে বরফ গলছে তাতে আগামী একশো বছরের মধ্যে কুমেরুতে দশ ফুট পর্যন্ত সমুদ্রের জল বাড়তে পারে বলেও জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

তবে একটা রেকর্ড এখনও অক্ষত রয়েছে। সেটি হল কুমেরু বৃত্তের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। ১৯৮২ সালে কুমেরু বৃত্তের মধ্যে থাকা দক্ষিণ আর্জেন্তিনার একটি জায়গায় পারদ রেকর্ড করা হয়েছিল ১৯.৮ ডিগ্রি। বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, যে হারে তাপমাত্রা বাড়ছে তাতে এই রেকর্ডও অচিরেই ভেঙে যেতে পারে।

পরিবেশ

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে নৈহাটিতে ফ্রাইডে ফর ফিউচারের প্রতীকী ধর্মঘট

শারীরিক দুরত্ব বজায় রেখে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে সুইডিশ পার্লামেন্টের সামনে প্রতিবাদ জানালেন গ্রেটা থুনর্বাগ ও তার সঙ্গী পড়ুয়ারা।

Published

on

গ্রেবাল ক্লাইমেট স্ট্রাইক

নিজস্ব প্রতিনিধি : বিশ্বজুড়ে আবহাওয়া পরিবর্তনের বিরুদ্ধে ধর্মঘটে সামিল হলো নৈহাটির পড়ুয়া ও শিক্ষকরা। শুক্রবার এই ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল ‘ফ্রাইডে ফর ফিউচার’ নামে পরিবেশবাদী সংস্থা। গ্রেটা থুনবার্গ যার পথিকৃৎ।

এ দিন নৈহাটি পুরসভার সমানে প্রতীকী ধর্মঘটে সামিল হয় ‘ফ্রাইডে ফর ফিউচার (FFF)’ -এর নৈহাটি শাখা। পড়ুয়াদের সঙ্গে যোগ দেন শিক্ষক-শিক্ষিকারাও।

পোস্টার-প্ল্যাকার্ড নিয়ে বেশ খানিকক্ষণ তারা পুরসভার সামনে অবস্থান করেন। এর পর একটি মিছিল করে বিভিন্ন পথ পরিক্রমা করেন তারা। স্টেট ব্যাঙ্কের নৈহাটি প্রধান শাখার সামনে একটি পথসভার মধ্যে দিয়ে তাঁদের কর্মসূচি শেষ হয়।

Loading videos...

করোনা বিধি মেনে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে থুনবার্গের প্রতিবাদ

Greta Thunberg
সুইডিশ পার্লামেন্টের সামনে গ্রেটা ও তার সহযোগীদের প্রতিবাদ

শারীরিক দুরত্ব বজায় রেখে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে সুইডিশ পার্লামেন্টের সামনে প্রতিবাদ জানালেন গ্রেটা থুনবার্গ ও তার সঙ্গী পড়ুয়ারা।

সাংবাদিকদের থুনবার্গ বলেন, ‘‘ আশা সবসময়ই আছে। জনমতের উপর প্রভাব ফেলার জন্য এই প্রতিবাদ। আশা করা যায় তারা আরও সচেতন হতে শুরু করবেন।’’

আর পড়তে পারেন

আদানিদের কয়লা প্রকল্প থেকে জার্মান সংস্থাকে সরে দাঁড়ানোর আহ্বান গ্রেটা থুনবার্গের

Continue Reading

পরিবেশ

জলবায়ু পরিবর্তনের ব্যাপারে বিজ্ঞান কিছুই জানে না! আজব দাবি করলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

বেশ কিছুদিন ধরে কালিফোর্নিয়ার জঙ্গলে দাবানলের জন্য পরিস্থিতি খুব ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে।

Published

on

Donald Trump
বার বার হাসির খোরাক হন, তবুও তাতে বিশেষ হেলদোল থাকে না ডোনাল্ড ট্রাম্পের।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ডোনাল্ড ট্রাম্প (Donald Trump) আছেন ডোনাল্ড ট্রাম্পেই। তাঁর বিতর্কিত এবং হাস্যকর মন্তব্যের জন্য বার বার হাসির খোরাক হন তিনি। কিন্তু তাতেও তাঁর কোনো ভ্রূক্ষেপ হয় না।

সোমবার ফের তার প্রমাণ পাওয়া গেল। জলবায়ু পরিবর্তন সম্পর্কে তিনি যা জানেন বিজ্ঞান তার কিছুই খবর রাখে না বলে মন্তব্য করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তাঁর এই আজব দাবির কথা শুনে ফের একবার হাসির রোল উঠেছে নেটদুনিয়ায়।

বেশ কিছু দিন ধরে কালিফোর্নিয়া (California)-এর জঙ্গলে দাবানলের জন্য পরিস্থিতি খুব ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। এর জেরে এখনও পর্যন্ত পর্যন্ত পাঁচ লক্ষের বেশি মানুষ ঘরছাড়া হয়েছেন আর মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ২২ জনের। পরিস্থিতি এখনও পর্যন্ত নিয়ন্ত্রণে না আসায় বিষয়টি নিয়ে চিন্তায় রয়েছেন বিজ্ঞানী ও পরিবেশবিদরা। এর মাঝেই বিজ্ঞান ও বিজ্ঞানীদের দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

Loading videos...

কালিফোর্নিয়া পরিস্থিতি সম্পর্কে ওয়াকিবহাল মহল আরও বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছেন, দাবানলের কারণে পরিবেশ ক্রমশ উত্তপ্ত হয়ে উঠবে বলে জানাচ্ছে তারা। ঠিক তখনই উলটো সুর শোনা গেলে মার্কিন প্রেসিডেন্টের গলায়। পরিবেশ ক্রমশ ঠান্ডা হবে বলে দাবি করলেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “ফরেস্ট ডিপার্টমেন্টের অদক্ষতার জন্যই ক্যালিফোর্নিয়ার জঙ্গলে দাবানল (wildfire) -এর সৃষ্টি হয়েছে। আসলে জলবায়ুর পরিবর্তন সম্পর্কে আমি যা জানি বিজ্ঞান তা-ও জানে না। দাবানলের ফলে পরিবেশ গরম হয়ে উঠবে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। কিন্তু, আমার মনে হয় খুব তাড়াতাড়ি পরিবেশ ঠান্ডা হয়ে উঠবে।”

এর আগে একাধিক বার বিভিন্ন বিষয়ে আজব দাবি করেন ট্রাম্প। গত মার্চে যখন আমেরিকায় করোনার প্রকোপ বাড়ছে, তখন তিনি বলেছিলেন এপ্রিলের গরমেই দাপট কমে যাবে এই ভাইরাসের। তা করোনাভাইরাসের দাপট কমল না কি বাড়ল সেটা তো আমরা দেখতেই পাচ্ছি!

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

নতুন আক্রান্তের সংখ্যা নামল ৮৩ হাজারের ঘরে, সংক্রমণের হার ৮ শতাংশের কম

Continue Reading

দেশ

নতুন নতুন ধস-অঞ্চল সৃষ্টি হচ্ছে চার ধাম সড়কে, বলছেন বিশেষজ্ঞরা

ভারতের জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ (NHAI) সড়কের প্রস্থ সাত মিটার করার সুপারিশ করে। সুপ্রিম কোর্টের উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কমিটি তার বদলে ওই সড়কের প্রস্থ সাড়ে পাঁচ মিটার করার প্রস্তাব দেয়। কমিটির সেই প্রস্তাব বহাল রাখে সুপ্রিম কোর্ট।

Published

on

widening of char dham road
চার ধাম রুটে রাস্তা চওড়া করার কাজ চলছে।

খবরঅনলাইন ডেস্ক: কেদারনাথ, বদরীনাথ, গঙ্গোত্রী ও যমুনোত্রী – এই চার ধামে (Char Dham) বছরের সব সময় যাওয়ার উপযুক্ত সড়ক তৈরি হচ্ছে। ৯০০ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কের নির্মাণকাজ চার বছর আগেই শুরু হয়েছে। এই কাজ শুরু হওয়ার পর থেকেই উত্তরাখণ্ডে (Uttarakhand) পরিবেশগত ভাবে সংবেদনশীল অঞ্চলগুলিতে নতুন করে ধস-অঞ্চল সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

হিন্দুস্তান টাইমস-এর খবর, বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, চিনের সীমান্ত-সংলগ্ন অঞ্চলে সশস্ত্র বাহিনীর দ্রুত চলাচলের  ক্ষেত্রেও এই সড়ক ব্যবহৃত হবে। এবং এই চলাচল ভঙ্গুর পার্বত্য অঞ্চলের বাস্তুতন্ত্র অস্থিতিশীল করে তুলবে।

ভূতত্ত্ববিদ নবীন জুয়াল বলেছেন, হৃষীকেশ থেকে চম্বা, ৬০ কিমি দীর্ঘ এই সড়কে আগে এক বা দু’টি ধসপ্রবণ অঞ্চল ছিল। এখন তা উল্লেখযোগ্য ভাবে বেড়েছে।

Loading videos...

“কুঞ্জপুরি (Kunjapuri) তো বর্তমানে একটি নিয়মিত ধসপ্রবণ অঞ্চল হয়ে দাঁড়িয়েছে। রাস্তা প্রশস্ত করার কারণেই মূলত এটি ধস-অঞ্চলে পরিণত হয়েছে। অলকানন্দা উপত্যকায় সকনিধর হল এ রকম আরও একটি নিয়মিত ধসপ্রবণ অঞ্চল। যতই আমরা উপত্যকার উপর দিকে যেতে থাকি, ততই ধস-অঞ্চলের সংখ্যাও বাড়তে থাকে,” বলেন নবীন জুয়াল।

উল্লেখ্য, এই প্রকল্পের পরিবেশগত প্রভাব খতিয়ে দেখতে সুপ্রিম কোর্ট গত বছর যে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কমিটি (এইচপিসি, HPC) গঠন করে, নবীন জুয়াল তার অন্যতম সদস্য।

উত্তরাখণ্ডে পাহাড়ি রাস্তায় ধস।

সুপ্রিম কোর্ট কী বলেছে

কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন ও সড়ক মন্ত্রক (Union Road Transport and Highways Ministry) ২০১৮ সালে ঠিক করেছিল পার্বত্য অঞ্চলে নির্মীয়মাণ সড়কের প্রস্থ হবে সাড়ে ৫ মিটার। মঙ্গলবার এই বিষয়ে সুপ্রিম কোর্ট রায় দিতে গিয়ে জানিয়ে দেয়, সড়কের প্রস্থ সাড়ে ৫ মিটারের বেশি করা যাবে না। রায় দেওয়ার সময় সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court) পার্বত্য অঞ্চলের ভঙ্গুরতা এবং হিমালয়ের বাস্তুতন্ত্রের উপর সড়ক-প্রস্থের প্রভাবের উল্লেখ করে।

উত্তরাখণ্ডে চার ধাম সড়কের প্রস্থ সাত মিটার করার পক্ষপাতী ছিল কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত কমিটির চেয়ারম্যান রবি চোপরা-সহ কিছু সদস্য যুক্তি দিয়ে বুঝিয়েছিলেন, হিমালয়ের মতো ভঙ্গুর বাস্তুতন্ত্রে ধস খুব স্বাভাবিক ঘটনা। এর ওপর ওই অঞ্চলে এ ধরনের প্রশস্ত সড়ক আরও বিপদ ডেকে আনতে পারে। ভারতের জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ (NHAI) সড়কের প্রস্থ সাত মিটার করার সুপারিশ করে। সুপ্রিম কোর্টের উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন কমিটি তার বদলে ওই সড়কের প্রস্থ সাড়ে পাঁচ মিটার করার প্রস্তাব দেয়। কমিটির সেই প্রস্তাব বহাল রাখে সুপ্রিম কোর্ট।

এইচপিসি তার রিপোর্টে বলেছিল, পিথোরাগড় পর্যন্ত সড়কে পাহাড়ের গায়ে নতুন করে যে ১৭৪ জায়গায় কাটা হয়েছে, তার মধ্যে ১০২টি জায়গাই ধসপ্রবণ। “অভ্যন্তরীণ কারণে এবং পাহাড়ের গা কাটা-সহ নানা বাহ্যিক কারণে ওই জায়গাগুলো দুর্বল হয়ে যাওয়ার ফলে বেশি বেশি করে ধস সৃষ্টি হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞরা কী বলছেন

উত্তরাখণ্ডের ডিজাস্টার মিটিগেশন অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট সেন্টারের একজিকিউটিভ ডিরেক্টর পীযূষ রাউতেলা বলেন, একটা পাহাড়ের স্বাভাবিক ঢালের যদি পরিবর্তন করা হয় তা হলে তা স্থিতিশীলতা হারায় এবং ধস নামে। তিনি বলেন, “দেওয়াল তৈরি করার মতো কিছু ব্যবস্থা ধস আটকাতে কাজে দেয় বটে তবে পাহাড় তার স্বাভাবিক ঢাল ফিরে পেলে স্থিতিশীলতা আসে। কিন্তু তাতে সময় লাগে, কখনও কখনও অনেক সময় লাগে।”

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, পার্বত্য অঞ্চলের ভঙ্গুরতার বিষয়টি বিবেচনা না করে ভারী সড়ক নির্মাণ করার ফলে ওই অঞ্চল দুর্বল হয়ে গিয়েছে। যেখানে পাহাড়ের ঢাল খুব খাড়াই, ৪৫ ডিগ্রি থেকে ৮০ ডিগ্রির মধ্যে, সেখানে সড়ক নির্মাণের কাজ বেশি হয়েছে।

কেদারনাথ বিপর্যয় ২০১৩।

দেহরাদুনের ওয়াদিয়া ইনস্টিটিউট অব হিমালয়ান জিওলজির সিনিয়র সায়েন্টিস্ট প্রদীপ শ্রীবাস্তব জানান, ২০১৩-এর কেদারনাথ বিপর্যয়ের পরে ৩০০০ মতো ধসের জায়গা তৈরি হয়েছে। তিনি বলেন, “উন্নয়নমূলক কাজ গুরুত্বপূর্ণ, বিশেষ করে যেখানে কৌশলগত কারণ রয়েছে। তবে হিমালয়ের ভঙ্গুরতা এবং ভূতত্বের বিষয়টা মাথায় রাখতে হবে। মানুষের হস্তক্ষেপের ফলে এ ধরনের ঘটনা (কেদারনাথ বিপর্যয়) আরও বাড়বে এবং পাহাড় যে হেতু স্থিতিশীল নয়, সে হেতু তা ঘন ঘন ঘটতে পারে।”

খাড়াখাড়ি পাহাড় কাটা

সড়কের প্রকল্পের জন্য একেবারে খাড়াখাড়ি ভাবে পাহাড় কাটা হচ্ছে। এই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন পরিবেশবিদ মল্লিকা ভানোত। তিনি বলেন, এর ফলে পরিবেশগত দিক থেকে সংবেদনশীল অঞ্চলগুলিতে ধসের সৃষ্টি হচ্ছে। তাঁর কথায়, “চার ধাম যাওয়ার জন্য সড়ককে আরও চওড়া করার জন্য খাড়াখাড়ি ভাবে পাহাড় কাটা হচ্ছে। এর ফলে উত্তরাখণ্ডের পাহাড় নড়বড়ে হয়ে গিয়েছে। এবং যার জন্য ধসও বেড়ে গিয়েছে। এ ধরনের যে প্রকল্পে সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা বিপন্ন হয়, তাকে আর যা-ই হোক, উন্নয়ন বলা যায় না।”

চার ধাম প্রকল্পের অন্তর্গত হৃষীকেশ-শ্রীনগর সড়কে কৌদিয়ালায় গত ২৪ আগস্ট ধসে চাপা পড়ে তিন জন প্রাণ হারান। ২০১৮-এর ডিসেম্বরে রুদ্রপ্রয়াগ জেলায় চার ধাম সড়কে কাজ করার সময় সাত জন শ্রমিক মারা যান।

উত্তরাখণ্ড স্পেস অ্যাপ্লিকেশন সেন্টারের ডিরেক্টর এমপিএস বিশ্ত বলেন, গত কয়েক বছরে ধস যে বেড়ে গিয়েছে, সেটা পরিষ্কার। তবে এর ফলে ঠিক কতটা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বা ঠিক কটা ধস নেমেছে, সে সম্পর্কে কোনো সমীক্ষা হয়নি।

সৌজন্যে: হিন্দুস্তান টাইমস

খবরঅনলাইনে আরও পড়তে পারেন

পরিবেশ দূষণ কমাতে নির্বাচিত ১০০টি শহরে বিশেষ প্রচার চালাচ্ছে কেন্দ্র

Continue Reading
Advertisement
ফুটবল4 hours ago

এ বারের আইএসএল-এ দ্রুততম গোল, জামশেদপুরকে হারিয়ে ৩ পয়েন্ট ঘরে তুলল চেন্নাই

কেনাকাটা4 hours ago

ঘর সাজানোর জন্য সস্তার নজরকাড়া আইটেম

অনুষ্ঠান4 hours ago

জগদ্ধাত্রী পুজোয় করোনা যোদ্ধাদের সম্মান জানাল খড়গপুরের গ্রিনস্টার

রাজ্য8 hours ago

একদিনে দু’ হাজার টেস্ট বাড়লেও রাজ্যে আরও কমল নতুন সংক্রমণ, মৃত্যুও ৫০-এর কম

দেশ9 hours ago

করোনা ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নিয়ে সতর্কতা নরেন্দ্র মোদীর

দেশ10 hours ago

‘লভ জিহাদ’ রুখতে অধ্যাদেশ অনুমোদন করল উত্তরপ্রদেশ

দঃ ২৪ পরগনা10 hours ago

কৈলাস বিজয়বর্গীয়র ‘হরি বোল’, এক গুচ্ছ প্রতিশ্রুতি

virat kohli
ক্রিকেট11 hours ago

দশকের সেরা ক্রিকেটার হওয়ার দৌড়ে বিরাট কোহলি ও আরও এক ভারতীয়

কেনাকাটা

কেনাকাটা4 hours ago

ঘর সাজানোর জন্য সস্তার নজরকাড়া আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরকে একঘেয়ে দেখতে অনেকেরই ভালো লাগে না। তাই আসবারপত্র ঘুরিয়ে ফিরে রেখে ঘরের ভোলবদলের চেষ্টা অনেকেই করেন।...

কেনাকাটা4 days ago

লিভিংরুমকে নতুন করে দেবে এই দ্রব্যগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরের একঘেয়েমি কাটাতে ও সৌন্দর্য বাড়াতে ডিজাইনার আলোর জুড়ি মেলা ভার। অ্যামাজন থেকে তেমনই কয়েকটি হাল ফ্যাশনের...

কেনাকাটা6 days ago

কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিস, দাম একদম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: কাজের সময় হাতের কাছে এই জিনিসগুলি থাকলে অনেক খাটুনি কমে যায়। কাজও অনেক কম সময়ের মধ্যে করে...

কেনাকাটা3 weeks ago

দীপাবলি-ভাইফোঁটাতে উপহার কী দেবেন? দেখতে পারেন এই নতুন আইটেমগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই কালীপুজো, ভাইফোঁটা। প্রিয় জন বা ভাইবোনকে উপহার দিতে হবে। কিন্তু কী দেবেন তা ভেবে পাচ্ছেন...

কেনাকাটা4 weeks ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা2 months ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র আরও ১০টি শাড়ি, পুজো কালেকশন

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই পুজো আর পুজোর জন্য নতুন নতুন শাড়ির সম্ভার নিয়ে হাজর রয়েছে এরশা। এরসার শাড়ি পাওয়া...

কেনাকাটা2 months ago

‘এরশা’-র পুজো কালেকশনের ১০টি সেরা শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো কালেকশনে হ্যান্ডলুম শাড়ির সম্ভার রয়েছে ‘এরশা’-র। রইল তাদের বেশ কয়েকটি শাড়ির কালেকশন অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 months ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা2 months ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

নজরে