Connect with us

বিজ্ঞান

কোভিড-১৯ চিকিৎসার সম্ভাব্য ওষুধ হিসাবে অ্যাসপিরিনের পরীক্ষা ব্রিটেনে

কোভিডের চিকিৎসায় সাধারণ অ্যাসপিরিন! শুরু হল বিশ্বের বৃহত্তম পরীক্ষা।

Published

on

শুরু অ্যাসপিরিনের পরীক্ষা। প্রতীকী ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: সাধারণ ভাবে ব্যথা, জ্বর ও প্রদাহে ব্যবহৃত হয় অ্যাসপিরিন (Aspirin)। অ্যাসিটাইল-স্যালিসাইলিক অ্যাসিড ভিত্তিক এই ওষুধই কোভিড-১৯ (Covid-19) চিকিৎসার সম্ভাব্য ওষুধ হিসেবে ব্রিটেনের একটি বৃহত্তম গবেষণায় ঠাঁই করে নিয়েছে।

শুক্রবার রকভারি ট্রায়াল (RECOVERY trial) ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, সাধারণ অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি মেডিসিন অ্যাসপিরিন কোভিড-১৯ চিকিৎসায় কতটা কার্যকরী, তা নিয়ে যাবতীয় পরীক্ষা শুরু হচ্ছে। ব্রিটেনের অন্যতম বৃহত্তম পরীক্ষায় কোভিড-১৯-এর বিরুদ্ধে অ্যাসপিরিনের কার্যকারিতার যথোপযুক্ত সন্ধান করা হবে।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, আজ থেকে কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের উপর অ্যাসপিরিনের প্রয়োগের জন্য বিশ্বের বৃহত্তম পরীক্ষাটি শুরু হচ্ছে। ব্রিটেনের ১৭৬টি হাসপাতালে ১৬ হাজারের বেশি রোগীকে এর জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে।

Loading videos...

বিশেষজ্ঞদের মতে, কোভিডরোগীর রক্তনালীতে রক্ত জমাট বাঁধার ঝুঁকি বেশি থাকে। রক্তের অনুচক্রিকা রক্তকে জমাট বাঁধতে সাহায্য করে। যেহেতু অ্যাসপিরিন একটি অ্যান্টিপ্লেলেটলেট এজেন্ট, তাই এটি কোভিডরোগীদের রক্ত ​​জমাট বাঁধার ঝুঁকি হ্রাস করতে পারে।

রিকভারি ট্রায়ালের সহ-প্রধান গবেষক নুফিল্ড মেডিসিন বিভাগের (Nuffield Department of Medicine) অধ্যাপক পিটার হরবি বলেছেন, “আমরা মনে করি, কোভিডের চিকিৎসায় অ্যাসপিরিনের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। এর নেপথ্যে যথেষ্ট যুক্তিও রয়েছে। এটা নিরাপদ, সস্তা এবং সহজলভ্য। আমরা এখন কোভিডের কার্যকরী ওষুধের সন্ধান চালিয়ে যাচ্ছি। অ্যাসপিরিন যদি সেই ওষুধ হয়, তা হলে এটা সর্বত্রই তাৎক্ষণিক ভাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে সেটা সম্ভব পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল আসার পরে”।

সম্প্রতি ইউনিভার্সিটি অফ ম্যারিল্যান্ড স্কুল অফ মেডিসিনের (UMSOM) বিশেষজ্ঞরা দাবি করেছিলেন, কোভিড-১৯ আক্রান্ত এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগীর ক্ষেত্রে শারীরিক সমস্যা এবং মৃত্যুর আশঙ্কা হ্রাস করতে কার্যকর ভূমিকা নেয় অ্যাসপিরিন।

অ্যানাস্থেসিয়া এবং অ্যানালজেসিয়া জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণায় দাবি করা হয়, অ্যাসপিরিন কোভিডের গুরুতর জটিলতা প্রতিরোধ করতে সহায়তা করতে পারে। এমনটাও দাবি করা হয়, ভবিষ্যতে করোনায় মৃত্যুহার কমাতে অ্যাসপিরিনই বিশ্বের প্রথম সহজলভ্য ওষুধ হতে চলেছে। এ ব্যাপারে যাবতীয় পরীক্ষা চলছে।

আরও পড়তে পারেন: ডেটিং অ্যাপ ব্যবহারে সাবধান! কয়েক লক্ষ ছবি, চ্যাট-সহ ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

বিজ্ঞান

ভারতের ঘাড়ে দায় চাপিয়ে করোনাভাইরাসের উৎস নিয়ে বিস্ফোরক দাবি চিনা বিজ্ঞানীদের

ভারত অথবা বাংলাদেশ থেকেই করোনা পৌঁছেছিল চিনে, দাবি সাংহাইয়ের একটি গবেষণায়!

Published

on

লকডাউন শিথিল হওয়ার পর উহান। ফাইল ছবি

খবর অনলাইন: গত বছরের শেষ দিকে চিনের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ে। যদিও চিন থেকেই করোনাভাইরাস সংক্রমণের শুরু হয়েছিল কি না, তা নিয়েই নতুন করে বিতর্ক তুলে দিল সাংহাইয়ের একটি গবেষণা। চিনের বিজ্ঞানীরা দাবি করলেন, “ভারত অথবা বাংলাদেশ থেকেই করোনা পৌঁছেছিল চিনে। অযথা উহানের উপর দোষ চাপানোর চেষ্টা চলছে”।

উহানের একটি বাজার থেকেই করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছিল, এমন প্রচলিত ধারণাকে চ্যালেঞ্জ করে ‘দ্য আর্লি ক্রিপ্টিক ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ইভলিউশন অব সার্স-কোভ-২ ইন হিউম্যান হোস্টস’ শীর্ষক গবেষণাপত্র প্রকাশ করেছেন চিনা বিজ্ঞানীরা।

মেডিকেল জার্নাল ‘ল্যানসেট’-এর অনলাইন প্ল্যাটফর্ম এসএসআরএন.কম-এ ওই গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয় গত ১৭ নভেম্বর। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে পাওয়া ভাইরাসের স্ট্রেইন সম্পর্কিত গবেষণার উপর ভিত্তি করে রয়েছে ওই গবেষণাপত্রটি তৈরি হয়েছে।

Loading videos...

পদ্ধতিতে ভুল!

ডা. শেন লিবিংয়ের নেতৃত্বে গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, করোনাভাইরাস স্ট্রেনের উদ্ভবের সন্ধানে প্রচলিত পদ্ধতি সঠিক ভাবে কার্যকর হয়নি। কারণ, ওই পদ্ধতিতে বেশ কয়েক বছর আগে চিনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলীয় ইউনানে আবিষ্কৃত ব্যাট ভাইরাসকে ব্যবহার করা হয়েছিল।

নতুন গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, মহামারির উৎস শনাক্তকরণে বিজ্ঞানীদের বিভ্রান্তি বাড়িয়েছিল ওই পদ্ধতি। নতুন গবেষণায় গবেষকেরা ওই পদ্ধতির পরিবর্তেএকটি নতুন পদ্ধতি ব্যবহার করেছেন, যা প্রতিটি ভাইরাল স্ট্রেনে পরিবর্তনের সংখ্যা গণনা করে।

কেন ভারত?

গবেষণাপত্রে দাবি করা হয়েছে, অস্ট্রেলিয়া, বাংলাদেশ, গ্রিস, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, ইতালি এবং চেক প্রজাতন্ত্রের মতো আটটি দেশে ভাইরাসের সর্বনিম্ন পরিবর্তিত স্ট্রেন পাওয়া গিয়েছে। ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের ক্ষেত্রে সব থেকে বড়ো জিনগত বৈচিত্রের নিরিখে ভারত এবং বাংলাদেশের দিকেই আঙুল তুলেছেন চিনা গবেষকরা।

গবেষকদের দাবি, ভারতের বিশালাকার তরুণ জনগোষ্ঠী, চরম আবহাওয়া এবং খরার কারণে ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ার মতো সমস্ত রকমের প্রয়োজনীয় পরিবেশ রয়েছে। গবেষকরা স্পষ্ট ভাবেই লিখেছেন: “আমাদের গবেষণার ফলাফল দেখায় যে উহান সেই জায়গা নয়, যেখান থেকে সারস-কোভ -২ সংক্রমণ প্রথম শুরু হয়েছিল।”

গবেষণাপত্রটিতে আরও দাবি করা হয়েছে, “স্বল্প পরিবর্তিত স্ট্রেনের ভৌগলিক তথ্য এবং স্ট্রেনের বৈচিত্র- উভয়েই ইঙ্গিত দেয় যে, ভারতীয় উপমহাদেশ সম্ভবত সেই স্থান হতে পারে, যেখানে মানুষ থেকে মানুষের মধ্যে এই ভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হয়েছিল। যা উহানের তিন-চার মাস আগেই শুরু হয়েছিল”।

চ্যালেঞ্জ ভারতেরও

তবে চিনা বিজ্ঞানীদের এই গবেষণাপত্রটিই শেষ কথা নয়। ভারতীয় বিজ্ঞানীরাও চিনের এই দাবিকে চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছেন। ভারত সরকারের এক ভাইরোলজিস্ট মুকেশ ঠাকুর চিনা সংবাদপত্র ‘সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টে’র কাছে বলেন, এ ধরনের সিদ্ধান্ত ‘ভুল ব্যাখ্যা’য় ভরা।

Continue Reading

বিজ্ঞান

বয়স্কদের উপর ‘কার্যকর’ অক্সফোর্ডের কোভিড-টিকা

কম বয়সিদের মতোই বয়স্কদের মধ্যেও সম্ভাব্য ভ্যাকসিনটি উৎসাহ জোগাচ্ছে!

Published

on

খবর অনলাইন ডেস্ক: অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের (University of Oxford) তৈরি কোভিড-১৯ টিকা (Covid-19 vaccine) বয়স্কদের শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে কার্যকর। বিশেষত, ৫৬-৬৯ বছর বয়সি এবং ৭০ বছরের বেশি বয়সিদের মধ্যেও এই টিকার কার্যকারিতার প্রমাণ মিলেছে।

বৃহস্পতিবার ল্যানসেট (‘Lancet) চিকিৎসা সাময়িকীতে প্রকাশিত একটি প্রাথমিক গবেষণায় বলা হয়েছে, অক্সফোর্ডের তৈরি চ্যাডক্স ওয়ান এনকোভ-১৯ (ChAdOx1 nCoV-19) ভ্যাকসিনটি বয়স্কদের জন্যও ‘নিরাপদ এবং সহনশীল’। ৫৬০ জন সুস্থ এবং প্রাপ্তবয়স্কের উপর এই টিকার প্রয়োগের পর তথ্যটি উঠে এসেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই টিকা দেওয়ার পর অল্প বয়স্কদের মতোই বয়স্কদের মধ্যে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সক্ষম। তবে কিশোর ও তরুণদের মধ্যেও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে সক্ষম অক্সফোর্ডের এই টিকা। এমনিতেই বয়স্কদের মধ্যে করোনার ঝুঁকি অনেকটাই বেশি বলে প্রথম থেকেই জানিয়ে আসছেন চিকিৎসকেরা।

Loading videos...

গবেষকরা জানিয়েছেন, বয়স্কদের মধ্যে কোভিডের ঝুঁকি মারাত্মক। ফলে গবেষণা থেকে উঠে আসা এই তথ্য যথেষ্ট উৎসাহজনক। কারণ, ঝুঁকির বিষয়টি মাথায় রেখেই সার্স কোভ-২ (SARS-CoV-2)-এর বিরুদ্ধে বয়স্কদের উপর ব্যবহারযোগ্য এমন ভ্যাকসিনের খোঁজ চলছে।

গবেষক দলটি আরও বলেছে, এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল থেকে উঠে আসা গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ের প্রাথমিক ফলাফলগুলি আগামী সপ্তাহেই প্রকাশ্যে আসার প্রত্যাশা করা হচ্ছে। পরবর্তী পদক্ষেপটি হল, এটা রোগ থেকে সুরক্ষা দেওয়ার জন্য কতটা কার্যকর, সেটাই দেখার।

প্রসঙ্গত, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং অ্যাস্ট্রাজেনেকার (Astra Zeneca) সম্ভাব্য মূল ভ্যাকসিনটি নিয়ে ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (SII) এবং বায়োমেডিক্যাল গবেষণায় ভারতের শীর্ষ সংস্থা ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ (ICMR) যৌথ ভাবে কোভিশিল্ড (Covishield) তৈরি করছে।

কোভিশিল্ড-এর তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগে অংশগ্রহণকারী স্বেচ্ছাসেবকদের নামের তালিকা সম্পূর্ণ করেছে সেরাম ইনস্টিটিউট। বর্তমানে দেশের ১৫টি জায়গায় কোভিডশিল্ডের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চলছে!

আরও পড়তে পারেন: ৯৫ শতাংশ কার্যকর, ভ্যাকসিন নিয়ে কোনো উদ্বেগ নেই, চূড়ান্ত ট্রায়ালে বলল ফাইজার

Continue Reading

বিজ্ঞান

মাউথওয়াশ ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে করোনাভাইরাসকে মেরে ফেলতে পারে, বলছে গবেষণা

কোভিডরোগীর লালারসে করোনাভাইরাসের সংখ্যা হ্রাসের নেপথ্যে মাউথওয়াশের কোনো ভূমিকা আছে কি?

Published

on

মাউথওয়াশ। প্রতীকী ছবি

খবর অনলাইন ডেস্ক: সাবান দিয়ে ভালো করে হাত ধুয়ে ফেললে করোনাভাইরাসের (Coronavirus) সংক্রমণ এড়ানো যেতে পারে। এ ছাড়া হ্যান্ডওয়াশ অথবা হ্যান্ড স্যানিটাইজার তো ছিলই। এ বার সেই তালিকাতেই যুক্ত হয়ে গেল মাউথওয়াশ। ব্রিটেনের একটি গবেষণা অন্তত তেমন কথাই বলছে।

ব্রিটেনের কার্ডিফ ইউনিভার্সিটির (Cardiff University) বিজ্ঞানীরা বলেছেন. একটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে কোভিড-১৯ (Covid-19)-এর কারণ করোনাভাইরাসের (coronavirus) বিরুদ্ধে মাউথওয়াশ একটি ব্যবহারযোগ্য উপকরণ হতে পারে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, মাউথওয়াশ (mouthwash) মাত্র ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে করোনাভাইরাসকে মেরে ফেলতে পারে।

গবেষকেরা জানান, সাধারণ ভাবে ব্যবহৃত মাউথওয়াশ করোনা ভাইরাস ঠেকাতে পারে। এর মধ্যে থাকা সিটলপাইরিডিনিয়াম ক্লোরাইড (CPC) নামে একটি রাসায়নিকের জন্যই এটা সম্ভব হয়। ফলে কোনো সংক্রামিত ব্যক্তি যদি মাউথওয়াশ ব্যবহার করেন, তা হলে তাঁর থেকে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা কমতে পারে।

Loading videos...

তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও কোভিড প্রতিরোধে মাউথওয়াশের কার্যকারিতা নিয়ে গবেষণা হয়েছে। দু’টি গবেষণাতেই সিপিসি-র ভূমিকার কথা তুলে ধরা হয়েছে।

গবেষকরা দাবি করেছেন, মাউথওয়াশ দিয়ে মুখ ধুলে ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে সিটলপাইরিডিনিয়াম ক্লোরাইড এবং ইথানল / ইথাইল লরওয়েল অর্জিনেট এই ভাইরাসকে নির্মূল করতে পারে।

যদিও কোভিডরোগীর চিকিৎসায় মাউথওয়াশের ব্যবহার নিয়ে সংশয় রয়েছে। গবেষকরা বলছেন, পরীক্ষাগারে প্রাপ্ত ফলাফল থেকে মোটেই কোভিডরোগীর চিকিৎসায় মাউথওয়াশের প্রয়োগ নিয়ে কোনো স্থির সিদ্ধান্তে পৌঁছানো যায়নি। তাঁরা বলছেন, ফুসফুসে পৌঁছানোর একটা মাউথওয়াশ প্রয়োজন, যা প্রাকৃতিক ভাবে সম্ভব নয়।

এ ব্যাপারে স্থায়ী সিদ্ধান্তে পৌঁছানোর জন্য ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল পরিচালনা করার পরিকল্পনা নিয়েছেন গবেষকরা। তাঁরা চান, কোনো কোভিডরোগীর লালারসে করোনাভাইরাসের সংখ্যা হ্রাসের নেপথ্যে মাউথওয়াশ প্রয়োগের কোনো কার্যকরী ভূমিকা থাকতে পারে কি না, সেই প্রশ্নেরই উত্তর খুঁজতে।

বলা হয়েছে, আগামী ২০২১ সালের গোড়ার দিকেই এই ট্রায়ালের ফলাফল হাতে চলে আসতে পারে। এমনিতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী ভ্যাকসিনের জন্য অপেক্ষা চলছে বিশ্ব জুড়ে। এমন পরিস্থিতিতে মাউথওয়াশ নিয়ে নতুন এই গবেষণা সাধারণ মানুষের আগ্রহে নতুন মাত্রা যোগ করেছে।

আরও পড়তে পারেন: ভারত বায়োটেকের কোভিড টিকার চূড়ান্ত ট্রায়াল, কলকাতাতেও শুরু স্বেচ্ছাসেবক নথিভুক্তি

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
ফুটবল8 hours ago

মরশুমের প্রথম জয় বেঙ্গালুরুর, প্রথম হার চেন্নাইয়ের

রাজ্য10 hours ago

দুয়ারে সরকার: চার দিনেই ৭৫৮টি ক্যাম্পে ১৪ লক্ষ উপস্থিতি

রাজ্য11 hours ago

কলকাতায় সক্রিয় রোগী ৬ হাজারের নীচে, রাজ্যে নতুন সংক্রমণে ব্যাপক পতন

Vijay Mallya
বিদেশ11 hours ago

ফ্রান্সে বিজয় মাল্যের ১৪ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করল ইডি

দেশ12 hours ago

হায়দরাবাদে উত্থান বিজেপির, ইস্তফা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির!

দেশ13 hours ago

হায়দরাবাদ পুরভোটে টিআরএস বৃহত্তম দল হলেও পোক্ত বিজেপির ভিত!

দঃ ২৪ পরগনা13 hours ago

সুন্দরবনের মৎস্যজীবীদের বিকল্প কাজ-সহ একাধিক দাবিতে চিতুরি বন দফতরে ডেপুটেশন

দেশ13 hours ago

মঙ্গলবার ভারত বন্‌ধের ডাক দিলেন আন্দোলনরত কৃষকরা

কেনাকাটা

কেনাকাটা21 hours ago

পোর্টেবল গিজারের ওপর বিশেষ ছাড় বেশ কয়েকটি মডেলে

খবর অনলাইন ডেস্ক: শীতকাল মানেই কনকনে ঠান্ডায় উষ্ণ জলের প্রয়োজন। সেই গরম জলের প্রয়োজন মেটাতে পারে গিজার। অ্যামাজনে কয়েক ধরনের...

কেনাকাটা4 days ago

ব্র্যান্ডেড কোম্পানির ইমারশন রডে ২ বছর পর্যন্ত ওয়ার‍্যান্টি পাওয়া যাচ্ছে

খবর অনলাইন ডেস্ক: শীতকালে গরম জলে স্নান করার মজাই আলাদা। জল গরম করার জন্য কি ওয়াটার হিটার খুঁজছেন? কিনতে পারেন...

কেনাকাটা1 week ago

৫০০ টাকার মধ্যে অত্যাধুনিক হেডফোন

খবর অনলাইন ডেস্ক: হেডফোন খারাপ হয়ে গেছে? সস্তায় নতুন ধরনের হেডফোন খুঁজছেন? হেডফোনের কয়েকটি অত্যাধুনিক কালেকশন রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা1 week ago

শীতের নতুন কিছু আইটেম, দাম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: শীত এসে গিয়েছে। সোয়েটার জ্যাকেট কেনার দরকার। কিন্তু বাইরে বেরিয়ে কিনতে যাওয়া মানেই বাড়ি এসে এই ঠান্ডায়...

কেনাকাটা1 week ago

ঘর সাজানোর জন্য সস্তার নজরকাড়া আইটেম

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরকে একঘেয়ে দেখতে অনেকেরই ভালো লাগে না। তাই আসবারপত্র ঘুরিয়ে ফিরে রেখে ঘরের ভোলবদলের চেষ্টা অনেকেই করেন।...

কেনাকাটা2 weeks ago

লিভিংরুমকে নতুন করে দেবে এই দ্রব্যগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক: ঘরের একঘেয়েমি কাটাতে ও সৌন্দর্য বাড়াতে ডিজাইনার আলোর জুড়ি মেলা ভার। অ্যামাজন থেকে তেমনই কয়েকটি হাল ফ্যাশনের...

কেনাকাটা2 weeks ago

কয়েকটি প্রয়োজনীয় জিনিস, দাম একদম নাগালের মধ্যে

খবর অনলাইন ডেস্ক: কাজের সময় হাতের কাছে এই জিনিসগুলি থাকলে অনেক খাটুনি কমে যায়। কাজও অনেক কম সময়ের মধ্যে করে...

কেনাকাটা4 weeks ago

দীপাবলি-ভাইফোঁটাতে উপহার কী দেবেন? দেখতে পারেন এই নতুন আইটেমগুলি

খবর অনলাইন ডেস্ক : সামনেই কালীপুজো, ভাইফোঁটা। প্রিয় জন বা ভাইবোনকে উপহার দিতে হবে। কিন্তু কী দেবেন তা ভেবে পাচ্ছেন...

কেনাকাটা1 month ago

দীপাবলিতে ঘর সাজাতে লাইট কিনবেন? রইল ১০টি নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে আলোর উৎসব। কালীপুজো। প্রত্যেকেই নিজের বাড়িকে সুন্দর করে সাজায় নানান রকমের আলো দিয়ে। চাহিদার কথা মাথায় রেখে...

কেনাকাটা2 months ago

মেয়েদের কুর্তার নতুন কালেকশন, দাম ২৯৯ থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজো উপলক্ষ্যে নতুন নতুন কুর্তির কালেকশন রয়েছে অ্যামাজনে। দাম মোটামুটি নাগালের মধ্যে। তেমনই কয়েকটি রইল এখানে। প্রতিবেদন...

নজরে