টেক্সাস: বন্দুকবাজের গুলিতে সাধারণ মানুষের মৃত্যু হয়েই চলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। গত সেপ্টেম্বরে লাস ভেগাসের কনসার্টে স্টিফেন প্যাডক নামে এক বন্দুকবাজের হামলায় মারা গিয়েছিলেন ৫৮ জন। তারপর ২ মাসও কাটল না। আমেরিকারই দক্ষিণ টেক্সাসের শহরতলিতে সাদারল্যান্ড স্প্রিংস গ্রামে এক ছোটো গির্জায় বন্দুকবাজের নির্বিচার গুলির শিকার হলেন অন্তত ২৬ জন।

ঘটনার অল্প সময় পর ঘটনাস্থল থেকে বেশ কিছুটা দূরে নিজের গাড়ি থেকে উদ্ধার হয় আততায়ীর দেহ। তাঁর গাড়িতে আরও বহু অস্ত্র ছিল। তবে অপরাধীর পরিচয় এখনও স্পষ্ট করেনি প্রশাসন। শোনা যাচ্ছে তার নাম ডেভিড কেলি। সে কোনও জঙ্গি গোষ্ঠীর সঙ্গে যুক্ত বলে এখনও খবর নেই। আততায়ী আত্মহত্যা করেছে না কারও গুলিতে মারা গেছে, তাও স্পষ্ট নয়।

রবিবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টা ২০ নাগাদ ফার্স্ট ব্যাপটিস্ট চার্চে প্রার্থনার সময় পুরোপুরি কালো পোশাক ও ব্যালিস্টিক ভেস্ট পরা ওই বন্দুকবাজ অ্যাসল্ট রাইফেল দিয়ে গুলিতে ঝাঁঝরা করে দেয় অন্তত ২৬ জনকে। আহতের সংখ্যা ৩০। মৃতদের বয়স ৫ থেকে ৭২-এর মধ্যে। গুলিতে গির্জার মধ্যেই ২৩ জনের মৃত্যু হয়, ২ জনের দেহে মেলে বাইরে ও হাসপাতালে মারা যান একজন।

বন্দুকবাজ যখন গুলি চালাচ্ছিল, তখন স্থানীয় এক বাসিন্দা পরিস্থিতি দেখে নিজের বন্দুক থেকে তার দিকে গুলি ছোঁড়েন। তারপরেই সে চম্পট দেয়।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here