pakistan-and-china

ওয়েবডেস্ক: ছবিটা যেন আচমকাই বদলে যাচ্ছে। ক’দিন আগেই পাকিস্তানের সড়ক প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগে অর্থ বরাদ্দ বন্ধ করার কথা জানিয়েছিল চিন। এ বার তারা প্রতিবেশী দেশে বসবাসকারী চিনা নাগরিকদের উদ্দেশে বিশেষ সতর্কবার্তা ঘোষণা করল। কিন্তু কেন?

গত কাল রাতে হঠাৎই একটি  সতর্কবার্তা পৌঁছোয় ইসলামাবাদে অবস্থিত চিনা দূতাবাসে। এর পরই দূতাবাসের তরফে জরুরি ঘোষণা করা হয়। যেখানে বলা হয়, পাকিস্তানে বসবাসকারী চিনা নাগরিকদের সামনে বিপদ সমূহ। যে কোনো মুহূর্তে তাঁরা সন্ত্রাসবাদের শিকার হতে পারেন। যে কারণে কোলাহলযুক্ত স্থান এড়িয়ে চলতে হবে। সে দেশের কাছে খবর রয়েছে, চিনা নাগরিকরা পাকিস্তানে মোটেই নিরাপদ নন।

গত জুন মাসেও পাকিস্তানে দুই জন চিনা নাগরিককে প্রথমে অপহরণ এবং পরে হত্যা করা হয়। বালুচিস্তান-সহ বেশ কয়েকটি জায়গায় সড়ক-সহ নানা উন্নয়ন প্রকল্পে চিন পাকিস্তানকে অর্থ ও মানব সম্পদ দিয়ে সহযোগিতা করছে। ফলে ওই সব জায়গায় প্রচুর পরিমাণ চিনা শ্রমিক ও আধিকারিক রয়েছেন। তাঁদের নিয়েও চিন্তিত চিন।

যদিও পাকিস্তানের তরফে চিনকে আশ্বস্ত করা হয়েছে। তারা বেজিংয়ের উদ্দেশে বলেছে, এই বিষয়টি নিয়ে চিন নিশ্চিন্ত থাকতে পারে। কারণ পাকিস্তানের উন্নয়নে অংশ নেওয়া চিনা নাগরিকদের রক্ষা করার দায়িত্ব তাদেরই। আর এই দায়িত্ব তারা সযত্নে পালন করছে।

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, পাকিস্তান জোর গলায় যা-ই বলুক না কেন, চিনের হাতে জোরালো তথ্য আছে বলেই তড়িঘড়ি সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। ঘটনা যে দিকে এগোচ্ছে তাতে ভারতকে মাঝখানে রেখে ওই দুই দেশের কাছাকাছি আসার প্রক্রিয়ায় ব্যাঘাত ঘটতে পারে বলেই মনে করা হচ্ছে। তবে এমনও হতে পারে, আমেরিকা-ভারত হৃদ্যতা ক্রমশ গভীরতা পাওয়ায় চিন কোনো নতুন কৌশল নিতে চলেছে।

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here