ওয়েবডেস্ক: শুক্রবার লাদাখ সফরে গিয়ে চিনের উদ্দেশে বার্তা দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। তিনি পরোক্ষে চিনকে ‘বিস্তারবাদী’ শক্তি হিসাবে তুলে ধরেন। প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পর চিনের তরফেও কড়া প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করা হয় বলে সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর।

এ দিন আচমকা লাদাখ সফর করেন প্রধানমন্ত্রী। ভারত-চিন সীমান্ত (India-China Border) উত্তেজনার মাঝে তাঁর এই সফর বেশ ইঙ্গিতবাহী। তার উপর সেখানে গিয়ে তিনি সেনাবাহিনীর উদ্দেশে ভাষণ দেন। সেনার মনোবল বাড়ানোর পাশাপাশি ‘শত্রু’কেও নির্দিষ্ট বার্তা দেন।

কী বলল চিন?

প্রধানমন্ত্রী মন্তব্য়ের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই পরই বেজিংয়ের তরফে দূতাবাসের মুখপাত্র জি রঙ (Ji Rong) জোরালো প্রতিক্রিয়ায় জানান, “চিন শান্তিপূর্ণ আলোচনার মাধ্যমে তার ১৪টি প্রতিবেশী দেশের মধ্যে ১২টির সঙ্গে সীমানা নির্ধারণ করেছে। স্থল সীমান্তকে বন্ধুত্বপূর্ণ সহযোগিতার বন্ধনে পরিণত করেছে। চিনকে ‘বিস্তারবাদী’ হিসাবে দেখা আদতে অতিরঞ্জিত করা এবং প্রতিবেশীদের সঙ্গে তার বিরোধের বিষয়টি ভিত্তিহীন”।

এর আগেই প্রধানমন্ত্রীর লাদাখ সফর সম্পর্কে  চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ন বলেন, “ভারত ও চিন সামরিক ও কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে উত্তেজনা হ্রাস করার বিষয়ে যোগাযোগ এবং আলোচনা চালাচ্ছে। এই মুহূর্তে পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটাতে পারে এমন কোনো পদক্ষেপে কোনো পক্ষেরই জড়ানো উচিত নয়”।

কী বলেছেন মোদী?

চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত (Bipin Rawat) এবং সেনাপ্রধান এমএম নরবনেকে (MM Narvane) সঙ্গে নিয়ে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ লেহ-তে পৌঁছোন প্রধানমন্ত্রী। ১১ হাজার ফুট উঁচুতে অবস্থিত নিমু চেকপোস্টে হাজির হন তাঁরা। সেখানে স্থল, জল ও বায়ুসেনার জওয়ানদের মনোবল বাড়াতে তাঁদের সঙ্গে আলোচনায় অংশ নেন। ইন্দো-তিব্বত সীমান্ত পুলিশ (ITBP) আধিকারিকরাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

চিনের আগ্রাসী মনোভাবের বিরুদ্ধে মোদী বলেন, “এখন বিকাশবাদের যুগ। ইতিহাস সাক্ষী, বিস্তারবাদীরা মুছে গিয়েছে। বিশ্বে শান্তি বিঘ্নিত করার জন্য চেষ্টা চালিয়েছে বিস্তারবাদীরা। কিন্তু প্রতিবারই তাদের পরাস্ত হতে চেয়েছে। কারণ, সারা বিশ্ব তাদের বিরুদ্ধে একজোট হয়ে লড়ছে”।

একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী এই অঞ্চলটিকে “যুদ্ধক্ষেত্র” হিসাবে বর্ণনা করেন। যা গলওয়ান উপত্যকা (Galwan Valley) থেকে খুব একটা দূরে নয়।

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন