China India Pakistan
প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি

ওয়েবডেস্ক: ভারত-পাকিস্তানের কর্তারপুর করিডরকে স্বাগত জানাল চিন। সোমবার চিনের তরফে বিষয়টিকে সদর্থক দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখে বলা হয়, দুই দেশের এই সাম্প্রতিক উদ্যোগে শুধু ভারত-পাকিস্তানই উপকৃত হবে না। পাশাপাশি সারা বিশ্বেই শান্তিস্থাপনে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেবে এই পরিকল্পনা।

দুই দেশের তরফেই কর্তারপুর করিডর নিয়ে ইতিবাচক উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। হয়েছে শিলান্যাস। এই পরিকল্পনায় পাকিস্তানে অবস্থিত দরবার সাহিবের সঙ্গে সংযোগ স্থাপিত হবে ভারতের গুরুদাসপুরে অবস্থিত ডেরা বাবা নানকের। উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার আলোচনার পর ভারত সরকারের তরফে কর্তারপুর করিডোর থেকে বাবা নানকের ডেরার মধ্যে আন্তর্জাতিক সীমান্ত নির্মাণ ও বিকাশের অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল।

Kartarpur Corridor

এই প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে ভারতীয় শিখ সম্প্রদায়ের মানুষরা কর্তারপুর সাহিব গুরুদ্বারে যেতে পারবেন। ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত থেকে তিন কিলোমিটার ভেতরে অবস্থিত এই গুরুদ্বারছ এটি পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশের নরওয়াল জেলায় রাভি নদীর পারে অবস্থিত। ওই স্থানেই গুরু নানক দেব ১৮ বছর কাটিয়েছিলেন।

সোমবার চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র জেং শুয়াং সংবাদ মাধ্যমের কাছে বলেন, “ভারত-পাকিস্তানের এই যৌথ উদ্যোগকে আমরা খুশি। ভারত-পাকিস্তান দক্ষিণ এশিয়ার দুটি গুরুত্বপূর্ণ দেশ। ফলে এই দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক সুদৃঢ় হলে সারা পৃথিবীতেই শান্তিস্থাপনে তা সহায়ক ভূমিকা নেবে”।

আরও পড়ুন: মে ’৬৮ কে মনে করিয়ে দিচ্ছে ফ্রান্সে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ

যদিও ভারত-পাকিস্তান পৃথক ভাবে এই উদ্যোগের শিলান্যাস করলেও দুই দেশের শীর্ষ রাজনৈতিক ব্যক্তিদের মধ্যে নরম-গরম বাকযুদ্ধ সমানে অব্যাহত রয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here