দ্রুত ছড়াচ্ছে সংক্রমণ, আবারও কড়াকড়ি বিধিনিষেধ-সহ লকডাউন চিনে

0

বেজিং: রবিবার বেজিংয়ের কিছু অংশে নতুন করে লকডাউন। চিনের আরও বেশ কিছু শহরে আবারও দ্রুতগতিতে ছড়াচ্ছে সংক্রমণ। শি জিনপিং সরকারের ‘জিরো-কোভিড’ কৌশল ভেঙে পড়ারই লক্ষণ স্পষ্ট।

চিনের গ্লোবাল টাইমস হাইদিয়ান জেলার এক সরকারি মুখপাত্রের মন্তব্য উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, চাওয়াং, ফেংতাই, শুনি এবং ফাংশান জেলার পাশাপাশি হাইদিয়ান জেলাতেও লকডাউন জারি করেছেন কর্তৃপক্ষ।

চিনা সংবাদ মাধ্যমের রিপোর্ট অনুযায়ী, রেস্তোঁরার ডেলিভারি পরিষেবা এবং ওষুধের দোকান ছাড়া সমস্ত ইনডোর বিনোদন স্থান, জিম, ট্রেনিং ইনস্টিটিউট এবং শপিং মলগুলি এ দিন থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

বেজিংয়ের পাঁচটি জেলার বাসিন্দাদের বাড়ি থেকে কাজ করতে বলা হয়েছে। ধাপে ধাপে বন্ধ হচ্ছে রাজধানী শহরের বিনোদন কেন্দ্র এবং পর্যটনের জায়গাগুলিও। সমস্ত পার্কের দর্শক সংখ্যা ৩০ শতাংশে সীমাবদ্ধ করা উচিত বলে দাবি করা হয়েছে রিপোর্টে।

বিভিন্ন রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, চিনে নতুন করে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কারণ ওমিক্রন। পরিস্থিতি আরও জটিল আকার নিলেও বেশির ভাগ রোগীর লক্ষণগুলিই হালকা। তবে অনেক জায়গাতেই গোষ্ঠী সংক্রমণ ঘটেছে। যা পরিস্থিতিকে আরও ঝুঁকির দিকে নিয়ে যেতে পারে।

কোভিড অতিমারির মোকাবিলায় ‘জিরো-কোভিড’ কৌশল গ্রহণ করেছিল চিনা সরকার। দেশকে অতিমারি থেকে বের করে আনার জন্য কৃতিত্ব আদায় করে নিয়েছিল এই কৌশল। সেটাই এখন ভেঙে পড়েছে। যে কারণে আবারও দ্রুতগতিতে বাড়ছে সংক্রমণ। আর সেই ঘটনার জেরেই ২০২০ সালের মতো ব্যাপক লকডাউনের পথে হাঁটতে হচ্ছে চিনকে।

আরও পড়তে পারেন:

‘জন্মলগ্ন থেকেই তৃণমূলে ছিলাম’, কলকাতার উদ্দেশে রওনা দিয়ে দাবি অর্জুন সিংহের

ফুল বদল! আজ বিকেলেই তৃণমূলে ফিরতে পারেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহ?

দলবদলের জল্পনার মধ্যেই ফের ইঙ্গিতপূর্ণ ফেসবুক পোস্ট অর্জুন সিংহের, তৃণমূলে যোগদান কি সময়ের অপেক্ষা?

দৈনিক সংক্রমণ আগের দিনের মতোই, তবে মৃত্যু বাড়ল শেষ ২৪ ঘণ্টায়

হাইকোর্টের ডিএ রায়ে ধাক্কা, সুপ্রিম কোর্টে যাবে কি রাজ্য?

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন